ঢাবি মেডিকেলে বাড়ছে জ্বর-সর্দির রোগী

ঢাবি প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ২২:৩৮

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শহীদ ডা. মোহাম্মদ মুর্তজা মেডিকেল সেন্টারে বাড়ছে জ্বর, সর্দি, মাথাব্যথা ও ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা। করোনা আক্রান্ত একজন শিক্ষার্থী আছেন আইসোলেশনে।

বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারে গিয়ে এই তথ্য পাওয়া যায়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলো সব বর্ষের শিক্ষার্থীদের জন্য খুলে দেওয়া হয় গত ১০ অক্টোবর। এরপর থেকে ক্রমান্বয়ে বাড়তে থাকে জ্বর, সর্দি, মাথাব্যথা, ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা। বর্তমানে ডেঙ্গু রোগী কম এলেও বাকিদের আগমন আগের মতোই।

মেডিকেল সেন্টার থেকে প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, গত ১০ অক্টোবর থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ৪ হাজার ২২১ জন শিক্ষার্থী মেডিকেল সেন্টারে গিয়ে চিকিৎসা সেবা নিয়েছেন। এর মধ্যে জ্বর-সর্দিতে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যাই বেশি ছিল।

এ বিষয়ে টোকেন প্রদান ইউনিটে কর্মরত মোহাম্মাদ রাজু ঢাকাটাইমসকে বলেন, এখানে যারা আসে তাদের অধিকাংশই জ্বর-মাথাব্যথা নিয়ে আসে। কিছুদিন আগে শিক্ষার্থীদের আসার চাপ অনেক বেশি ছিল। একদিনে ২৫০ জনের মতো রোগী আসত।

শিক্ষার্থীদের রোগের বর্ণনা দিতে গিয়ে দায়িত্বরত চিকিৎসক অভিজিত রায় ঢাকাটাইমসকে বলেন, বর্তমানে শিক্ষার্থীদের মধ্যে জ্বর-সর্দিকেন্দ্রিক রোগী বেশি আসে। তবে মাঝে এটার চাপ আরো বেশি ছিল। ডেঙ্গু রোগীদের চাপ ১৫ দিন আগে খুব বেশি ছিল। এমনও কোনোদিন ছিল যেখানে সাত থেকে আটজন ডেঙ্গুর রোগী ভর্তি ছিল। তবে এখন কিছুটা কমে গেছে। এছাড়াও সর্দি জ্বর ছাড়াও আমাদের কাছে অ্যাজমা বা শ্বাসকষ্টের রোগী নিয়মিত আসে।

বর্তমানে মেডিকেল সেন্টারে চালু আছে আইসোলেশন। ফজলুল হক মুসলিম হলের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের করোনা আক্রান্ত একজন শিক্ষার্থী আইসোলেশনে আছেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই শিক্ষার্থী বলেন, আমি নভেম্বরের ২৮ তারিখে স্যাম্পল দেই। ৩০ তারিখে করোনা পজিটিভ এলে ওই দিনেই আমি মেডিকেল সেন্টারের আইসোলেশনে চলে আসি।

(ঢাকাটাইমস/২ডিসেম্বর/আরএল/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :