তিন যুগের পুরনো সেতু দুই ইউনিয়নবাসীর গলার কাঁটা

ইকরামুল আলম, ভোলা
 | প্রকাশিত : ১৫ জানুয়ারি ২০২২, ১৩:৫১

ভোলার দৌলতখান উপজেলার উত্তর জয়নগর ও দক্ষিণ জয়নগর ইউনিয়নের সীমানাবর্তী খালের ওপর নির্মিত তিন যুগের পুরনো ‘আয়রণ ব্রিজ’ এখন দুই ইউনিয়নের মানুষের গলার কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে এ ব্রিজটি দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দুই ইউনিয়নের কয়েক হাজার পথচারী ও স্কুলের শিক্ষার্থীরা যাতায়াত করছে। ব্রিজটির দুই পাশ ভেঙে গিয়ে এখন কোনো মতে দাঁড়িয়ে আছে। যে কোনো সময় ব্রিজটি ভেঙে পড়ে বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা। প্রায় তিন যুগ আগে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর উত্তর জয়নগরের ৯নম্বর ওয়ার্ড ও দক্ষিণ জয়নগর ৭নম্বর ওয়ার্ডের পঁচাগো বাজারের পাশের খালের ওপর এ আয়রন ফুট ব্রিজটি নির্মাণ করে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, ব্রিজটির মাঝখানের অংশ ভেঙে অনেকটা খালে কাত হয়ে গেছে। দুই পাশের অংশও ভেঙে খালে দেবে গেছে। দীর্ঘদিন ধরেই এখান দিয়ে কোনো যানবাহন চলাচল করতে পারে না। মানুষ হেঁটে পারাপার হচ্ছে। ব্রিজটির বেহাল দশায় পথচারীরা হেঁটে পারাপার হতে গিয়েও অনেক সময় দুর্ঘটনার শিকার হতে হয়। যে কোনো সময় ব্রিজটি পুরোপুরি খালে পড়ে যেতে পারে। এছাড়াও এ ব্রিজটির ওপর দিয়ে দুই ইউনিয়নের প্রায় ১০-১২টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কয়েক হাজার শিক্ষার্থীরা প্রতিদিন যাতায়াত করে আসছে।

স্থানীয় আজহার আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু তাহের জানান, এ ব্রিজের ওপর দিয়ে স্থানীয় ১০-১২টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা যাতায়াত করে। ঝুঁকিপূর্ণ এ ব্রিজটি দিয়ে স্কুল-কলেজ, মাদ্রাসাপড়ুয়া শিক্ষার্থীসহ পথচারীরা চলাচল করতে গিয়ে প্রায়ই দুর্ঘটনার শিকার হতে হয়। তাই মানুষের দুর্ভোগের কথা চিন্তা করে এখান দিয়ে নতুন একটি ব্রিজ করা জরুরি।

স্থানীয় আবুল কালাম নামে এক পথচারী জানান, ব্রিজটির দুই পাশ থেকে ভেঙে যাওয়ার কারণে এ ব্রিজটি দিয়ে যানবাহন ও অ্যাম্বুলেন্স চলাচল করতে পারছে না। জরুরি প্রয়োজন ও রোগীদের হাসপাতালে নিতে এ এলাকার মানুষের ভোগান্তিতে পড়তে হয়। ব্রিজটির এমন করুণ অবস্থা যে, হেঁটে পার হওয়াটাও বিপজ্জনক।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)-এর দৌলতখান উপজেলা প্রকৌশলী মাইদুল ইসলাম খান বলেন, বিষয়টি আমরা অবগত হয়েছি। এখান দিয়ে নতুন একটি ব্রিজ নির্মাণের জন্য প্রকল্প প্রস্তাব তৈরি করে মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। মন্ত্রণালয় থেকে পাশ হয়ে এলে দ্রুত এটির সমাধান হয়ে যাবে।

(ঢাকাটাইমস/১৫জানুয়ারি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :