অস্থির বাজারে ডজনে ২০ টাকা কমল ডিমের দাম

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৯ আগস্ট ২০২২, ১৬:২৭
সপ্তাহের ব্যবধানে অস্থির ডিমের বাজার কিছুটা শান্ত হয়েছে, নামমাত্র কমেছে দাম (ছবি: সংগৃহীত)

দেশজুড়ে নিত্যপণ্যের মূল্যবৃদ্ধিতে বেশ কিছুদিন ধরেই বাজারে অস্থিরতা বিরাজ করছে। সপ্তাহের ব্যবধানে অস্থির ডিমের বাজার কিছুটা শান্ত হয়েছে, নামমাত্র কমেছে দাম। শুক্রবার রাজধানীর আগাঁরগাওসহ বেশ কয়েকটি বাজার ঘুরে এ চিত্র দেখা যায়।

এদিকে দেশে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির পর দফায় দফায় বাড়েতে শুরু করে নিত্যপণ্যের মূল্য। এই সুযোগে ডিমের দামও বেড়ে যায়। সপ্তাহের ব্যবধানে লাল ডিমের ডজনে দাম বেড়ে হয় ১৬০ থেকে ১৭০ টাকা। এরপর সরকারের কয়েকটি সংস্থা বাজারে ডিমের দাম নিয়ন্ত্রণে অভিযান শুরু করে।

অভিযানের মুখে লাল ডিমের ডজনে দাম ২০ টাকা কমে শুক্রবার রাজধানীর বাজারগুলোতে বিক্রি হয় ১৪০ টাকা দরে। এছাড়া বাজারে হাঁসের ডজন বিক্রি হচ্ছে ১৮০ থেকে ১৯০ টাকা এবং দেশি মুরগির ডিমের ডজন বাজারভেদে বিক্রি হচ্ছে ১৮০ থেকে ২০০ টাকা পর্যন্ত।

রাজধানীর বিভিন্ন বাজার সরেজমিনে দেখা গেছে, বাজারে গত সপ্তাহের মতই টমেটো বিক্রি হচ্ছে ১৩০ থেকে ১৪০ টাকা, লম্বা বেগুন বিক্রি হচ্ছে ৭০ টাকা। গোল বেগুন ৮০ টাকা, করলা ৭০ থেকে ৮০ টাকা, পটল ৫০ টাকা, চিচিঙ্গা ৫০ থেকে ৬০ টাকা, শসা ৭০ থেকে ৮০ টাকা বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়া মিষ্টিকুমড়া প্রতি কেজি ৫০ টাকা, কচুর লতি ৭০ থেকে ৮০ টাকা, ঢেঁড়স ৬০ টাকা, ধুন্দুল ৫০ টাকা, বরবটি ৮০ টাকা কেজি, পেঁপের কেজি ৩০ টাকা। কাঁচামরিচের কেজি ২০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। গত সপ্তাহের মতো পেঁয়াজ ৪৫ থেকে ৫০ টাকা কেজি, আলুর কেজি ৩০ থেকে ৩৫ টাকা।

মাছ বাজার ঘুরে দেখা গেছে, অপরিবর্তিত রয়েছে ইলিশ মাছের কেজি। এক কেজি ওজনের ইলিশের কেজি বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ৫০০ থেকে ১ হাজার ৬০০ টাকা। ৭০০ থেকে ৮০০ গ্রাম ওজনের ইলিশের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৮০০ থেকে ৯০০ টাকা। এছাড়াও ছোট ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ৪০০ টাকা কেজি দরে।

এছাড়া শিং মাছের কেজি ৩৫০ থেকে ৪৬০ টাকা। পাবদা মাছের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৩৫০ থেকে ৫০০ টাকা। পাঙাস মাছের কেজি বিক্রি হচ্ছে ১৬০ থেকে ১৯০ টাকা। রুই মাছের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৩২০ থেকে ৪৫০ টাকা এবং কৈ মাছের কেজি বিক্রি হচ্ছে ২০০ থেকে ২৫০ টাকা।

মুরগির বাজার ঘুরে দেখা দেখে গেছে, বাজারে গত সপ্তাহের মতই বাজারে ব্রয়লার মুরগির কেজি ১৮০ টাকা বিক্রি হচ্ছে। পাকিস্তানি কক বা সোনালি মুরগির কেজি বিক্রি হচ্ছে ২৮০ থেকে ৩০০ টাকা, এবং লেয়ার মুরগিও বিক্রি হচ্ছে ২৮০ থেকে ৩০০ টাকা কেজি দরে। চালের বাজার ঘুরে দেখা গেছে, বাজারে মিনিকেট চাল ৭৮ থেকে ৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। নাজিরশাইল ৮০ থেকে ৮৫, ভালো আটাশ চাল ৬০ টাকা, পোলাও চাল কেজিপ্রতি খোলা বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকা প্যাকেটজাত পোলাও কেজি ১৫০ টাকা।

(ঢাকাটাইমস/১৯আগস্ট/কেআর/এসএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

অর্থনীতি এর সর্বশেষ

চীনের সঙ্গে বাণিজ্য বাড়াতে ব্যবসায়ীদের প্রতি আহ্বান সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রীর

পুঁজিবাজারে শরিয়া অ্যাডভাইজারি কাউন্সিল গঠনের সিদ্ধান্ত

বেস্ট ব্যাংক অ্যাওয়ার্ড পেল ইসলামী ব্যাংক

এনআরবিসি ব্যাংকের সাউথ এশিয়ান বিজনেস এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড অর্জন

বিশ্ববাজারে ক্রমবর্ধমান মন্দা আরও তীব্র হওয়ার আশঙ্কা

বাংলাদেশি কোম্পানিতে আসছে বিদেশি বিনিয়োগ

কীভাবে দেনা পরিশোধ গ্রাহকদের, জানাবে ইভ্যালি

কর্মসংস্থান ব্যাংকের ঢাকা বিভাগীয় ব্যবসায়িক পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত

স্বপ্ন এখন বরিশালের রুপাতলীতে

বাজারে নাভিশ্বাস: দাম বাড়ানো ‘ধান্দাবাজদের’ জেলে ভরা হোক, চাইছেন ব্যবসায়ীরাই

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :