ঋতুরাণি শরৎ

ড. নেয়ামত ভূঁইয়া
 | প্রকাশিত : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২৩:২৯

বর্ষা যখন বিদায় নিয়েছে কালান্তে

বৃষ্টিপাতের ছন্দে ঘটিয়ে পতন,

হিমেল পরশে শরৎ এসেছে একান্তে

শোনাতে ‘ঋতুর রাণির’ মৌন কথন।

ঘাসের ডগায় জমছে শিশির বিন্দু

সকালের রোদে ফোটাতে মুক্তোকণা,

শুভ্র ফেনিল ঢেউদোল দেয়া সিন্ধু

আকাশের সাথে ভাব করে লেনাদেনা।

নীলাকাশ জুড়ে সাদা মেঘেদের ভেলা

উদাসী হাওয়ায় আনমনে যায় ভেসে,

মেঘে মেঘে চলে সই পাতানোর খেলা

দল বেঁধে যেন হারাবে নিরুদ্দেশে।

নদীর কূলের তুলো-সাদা কাশফুল

যেন বরফের গালিচা রেখেছে পেতে,

জলের দোলায় ভিজিয়ে ওদের চুল

জল ছিটানোর খেলায় রয়েছে মেতে।

রাতেই ফুটেছে শিউলির যতো কলি

সকাল না হতে ঝরছে গাছের ছায়ায়,

সুবাসে ভরে দুর্বাঘাসের অঞ্জলি

স্নিগ্ধতা ছড়ায় মুগ্ধ মাধুরী-মায়ায়।

আমন ধানের বেড়ে ওঠা কচি চারা

মুখ তুলে চায়, সঙ্গি কি আছে কেউ!

খানিক হিমেল হাওয়ার ছন্দ দোলায়

অবারিত মাঠে তোলে সবুজের ঢেউ।

ঝিলের জলে শাপলা ফুলের মেলা

কামিনী, কেয়া ফুটিয়েছে তরু-লতা,

ময়না, শালিক খেলছে সুরের খেলা

শরতেই যেন ফাগুনি-বিহ্বলতা।

সবুজ পাতারা রাঙিয়ে তাদের মন

সময়ের ডাকে সহসা দিচ্ছে সাড়া,

গায়ে গায়ে ওদের হলদে আচ্ছাদন

রঙের বাহারে বনানী আত্মহারা।

ফুলের শোভায়, কোকিলের কুহুতানে

বসন্তকেই ‘ঋতুরাজ’ বলে জানি,

পরিক্রমার প্রসন্ন বরদানে

শরতও তেমনি নিসর্গে ‘ঋতুরাণি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :