দিনাজপুর-৪ আসনে নৌকা পেতে মরিয়া একাধিক প্রার্থী

মোহাম্মদ মানিক হোসেন, চিরিরবন্দর (দিনাজপুর)
 | প্রকাশিত : ১৫ মে ২০২৩, ২২:০৭

চিরিরবন্দর-খানসামা নিয়ে দিনাজপুর-৪ আসন। মোট ১৮টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত এ আসনে আবারও বিজয়ের ব্যাপারে আশাবাদী আওয়ামী লীগ। তবে এবার আসনটিতে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে নতুন মুখ আশা করছে স্থানীয় একাংশের নেতাকর্মীরা। এ ছাড়া জামায়াত ও বিএনপির রিজার্ভ ভোট মোকাবিলা করতে এই অংশের নেতাকর্মীরা প্রার্থী নির্বাচনে নতুনত্ব দেখতে চান। তবে নির্বাচন নিয়ে এখনো দোটানায় বিএনপি।

আগামী সংসদ নির্বাচন ঘিরে আওয়ামীলীগের প্রার্থীদের নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে আলোচনা চলছে। কারণ যাঁরা মনোনয়ন পাওয়ার আশা করছেন এলাকায় তাদের যাতায়াত বেড়েছে। তবে বর্তমানে ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগের দিনাজপুর ৪ আসনের সংসদ সদস্য, সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও অর্থ মন্ত্রাণালয়ের সম্পার্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও বর্তমানে দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আবুল হাসান মাহমুদ আলী এমপির পক্ষ থেকে কাউকে এখনও আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে প্রচারনা করতে দেখতে পাওয়া যায়নি।

এছাড়া এদিকে বিএনপি-জামায়াতে চলছে নীরব প্রচারণা, দলীয় সিদ্ধান্তের মধ্যে থাকলে শিগগিরই তারাও মাঠে নামবে এমনটাই বলছেন বিএনপি নেতারা। সাম্প্রতি বিএনপি নেতা সাবেক এমপি মো. আখতারুজ্জামান মিয়াকে তার এলাকায় কয়েকটি উঠান বৈঠক করতে দেখা গেছে। অপরদিকে বর্তমানে জামায়াতকে সেভাবে মাঠে দেখতে পাওয়া না গেলও সম্প্রতি জামায়াত নেতা সাবেক আমির আফতাব উদ্দিন মোল্লাকে দিনাজপুর ৪ আসনের খানসামা উপজেলায় তাকে বিএনপির তৃণমূল নের্তৃবৃন্দের সঙ্গে ঘুরতে দেখা গেছে।

এদিকে আওয়ামী লীগের সাম্ভব্য মনোনয়ন প্রত্যাশীরা তৃণমূল নেতাদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়,গণ সংযোগ, ছবি দিয়ে পোস্টার ও ব্যানার করে এলাকায় এলাকায় লাগানো সম্ভাব্য প্রার্থীদের এসব তৎপরতা চোখে পড়ছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাদের গণসংযোগের ছবি পোস্ট করা হচ্ছে।

জাতীয় সংসদের ৯ নম্বর এই আসনটিতে আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থীদের মধ্যে অন্যতম নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন প্রত্যাশী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও স্বাধীনতা পদক প্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক ডা. এম আমজাদ হোসেনকে নিয়মিত হাট-বাজারগুলােতে তৃণমূল নেতাদের সঙ্গে কুশল বিনিময় ও গণসংযোগ করতে দেখা গেছে। এছাড়াও তিনি বর্তমানে বেশিরভাগ সময়ে তাকে এলাকায় থাকতে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে বলে জানা গেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে তার জোড় প্রচারণা। ডা. আমজাদ হোসেন চিরিরবন্দরে নামি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আমেনা-বাকি রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও ঢাকা ল্যাবএইড হাসপাতালের অর্থোপেডিক বিশেষজ্ঞ ও একজন বরেণ্য চিকিৎসক।

এদিকে সাবেক হুইপ,সাবেক ছাত্রনেতা,দিনাজপুর-৪ আসনের তিন-বারের নির্বাচিত সংসদ, বাংলাদেশ কৃষক লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মো. মিজানুর রহমান মানু তিনিও বিভিন্ন জায়গায় গণসংযোগ করছেন। সম্প্রতি তাকে খানসামা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মরহুম আ. জব্বার মাস্টারের কবর জিয়ারত ও পরে কাচিনিয়া বাজারে গফিরত শাহের আঙ্গিনায় বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ ও মতবিনিময় করতে দেখা গেছে।

অপরদিকে আওয়ামী লীগের আরেক জোষ্ঠ নেতা, সাবেক ছাত্রনেতা, ১২ নং আলোকডিহি ইউপির একাধিক বার নির্বাচিত চেয়ারম্যান, চিরিরবন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, বর্তমানে জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও চিরিরবন্দর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. তারিকুল ইসলাম তারিকে মনোনয়ন দৌড়ঝাঁপে তাকেও গণসংযোগ ও প্রচারণায় ব্যাস্ত থাকতে দেখা গেছে। সম্প্রতি তার নেতাদের সঙ্গে তাকে উঠান বৈঠক করতে ও মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসাবে বিভিন্ন জায়গায় ব্যানার ফেস্টুন লাগাতে দেখা গেছে।

এছাড়া চিরিরবন্দর উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজারে তৃনমুল নেতাকর্মীদের নিয়ে গণসংযোগ ও কুশল বিনিময় করছেন দিনাজপুর ৪ আসনের (চিরিরবন্দর-খানসামা) এর নতুন মুখ মনোনয়ন প্রত্যাশী চিরিরবন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ- সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার দুর্দিনের সাবেক ব্যক্তিগত নিরাপত্তা সহকারী ও গ্রেনেড হামলার আহত সৈনিক শ্রী জ্যোতিষ চন্দ্র রায়কেও জোড় প্রচারণা করতে দেখা গেছে। তিনিও বিভিন্ন হাট বাজারে স্থানীয়দের সাথে মতবিনিময় করছেন ও সবার কাছে দোয়া প্রার্থনা চাইছেন।

এদিকে দিনাজপুর ৪ আসনের খানসামা উপজেলার বাসিন্দা সাবেক ছাত্রনেতা, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের দিনাজপুর জেলা শাখার সাবেক সাধারণ সম্পাদক, বর্তমানে জেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক, এ্যডভোকেট হাজী মো. সাইফুল ইসলামকে এর আগেও একাধিক বার মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসাবে নৌকা মার্কা চাইতে দেখা গেছে। তিনিও মনোনয়ন দৌড়ে সম্প্রতি আওয়ামী যুবলীগকে সঙ্গে নিয়ে তৃনমুল নেতাদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করছে ও বিভিন্ন অকেশনে চিরিরবন্দর খানসামার মানুষের পাশে বস্ত্র বিতরণসহ সামাজসেবা কাজে নিজেকে নিয়োজিত রাখছেন।

অপরদিকে যুবলীগের আরেক সাবেক ছাত্র নেতা, খানসামা উপজেলার বাসিন্দা দিনাজপুর জেলা শাখার বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সাবেক সহ- সভাপতি ও বর্তমানে জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আনোয়ার হোসেন তিনিও নৌকা মার্কার মনোনয়ন প্রত্যাশী ও মনোনয়ন চাইবেন বলে জানা গেছে।

(ঢাকাটাইমস/১৫মে/এআর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

বাংলাদেশ এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :