দ্বিতীয় ইনিংসে ১১৯ রানে শ্রীলঙ্কার ৫ উইকেট নিলো টাইগাররা

ক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকা টাইমস
| আপডেট : ২৩ মার্চ ২০২৪, ১৭:৫৫ | প্রকাশিত : ২৩ মার্চ ২০২৪, ১৭:৪৮

৯২ রানের লিড নিয়ে খেলতে নেমে দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুটা ভালো হয়নি শ্রীলঙ্কার। বাংলাদেশি পেসারদের বোলিং তোপে ১১৯ রান তুলতেই ৫ উইকেট হারিয়ে বসেছে তারা। যার ফলে দ্বিতীয় দিন শেষে শ্রীলঙ্কার লিড দাঁড়িয়েছে ২১১ রান।

দ্বিতীয় ইনিংসে শ্রীলঙ্কার হয়ে ওপেনিংয়ে নামেন দিমুথ করুনারত্নে ও নিশান মাদুশকা। তবে এই জুটিকে বেশিদূর এগোতে দেননি তরুণ পেসার নাহিদ রানা।

নাহিদ রানার বলে ২০ বলে ১০ রান করা নিশান মাদুশকা উইকেটরক্ষক লিটন দাসের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে সাজঘরে ফিরে যান তিনি। তার বিদায়ের পর ১৯ রানে ১ উইকেট হারিয়ে চা পানের বিরতিতে যায় লঙ্কানরা।

১৯ রানে ১ উইকেট হারানোর পর দিমুথ করুনারত্নে ও কুশল মেন্ডিস। এই জুটিতে ভর করে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করে শ্রীলঙ্কা। তবে এই জুটিকেও বেশিদূর এগোতে দেননি নাহিদ রানা।

নাহিদ রানার বলে লিটন দাসের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে সাজঘরে ফিরে যান কুশল মেন্ডিস। তার বিদায়ে ৩২ রানেই ২ উইকেট হারায় লঙ্কানরা।

৩২ রানে ২ উইকেট হারানোর পর জুটি গড়ে দলকে টেনে তোলার চেষ্টা করেন দিমুথ করুনারত্নে ও অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস। এই জুটতে ভর করে ঘুরে দাঁড়াতে থাকে শ্রীলঙ্কা। অবশেষে ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠার আগেই এই জুটিকে থামান তাইজুল ইসলাম। তাইজুলের বলে উইকেটরক্ষক লিটন দাসের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে সাজঘরে ফিরে যান অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস। আউট হওয়ার আগে করেন ২৪ বলে ২২ রান। তার বিদায়ে ভাঙে ২৮ রানের জুটি।

অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসের পর সাজঘরে ফিরে যান দিনেশ চান্ডিমালও। তাকে ফেরান মেহেদী হাসান মিরাজ। মিরাজের বলে এলবিডব্লিউয়ের শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরে যান তিনি। তার বিদায়ে ৬৪ রানেই ৪ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে শ্রীলঙ্কা।

৬৪ রানে ৪ উইকেট হারানোর পর জুটি গড়েন দিমুথ করুনারত্নে ও ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা। এই জুটতে ভর করে ২৭ ওভারে দলীয় শতক পূর্ণ করে শ্রীলঙ্কা। এরপরেই ব্যক্তিগত অর্ধশতক তুলে নেন ওপেনার দিমুথ করুনারত্নে। বাংলাদেশের বিপক্ষে আজ তিনি ৯৮ বলে তুলে নেন অর্ধশতক।

তবে অর্ধশতক তুলে নেওয়ার পর নিজের ইনিংসকে আর বেশিদূর নিয়ে যেতে পারেননি তিনি। ১০১ বলে ৫২ রান করে শরিফুল ইসলামের বলে নাহিদ রানার হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে সাজঘরে ফিরে যান তিনি। তার বিদায়ে ভাঙে ৪৯ রানের জুটি।

তার বিদায়ের পর ক্রিজে আসেন বিশ্ব ফার্নান্ডো। ধনাঞ্জয়া ডি সিলভার সঙ্গে ৬ রানের জুটি গড়েন তিনি। এরপরেই দ্বিতীয় দিনের খেলা সমাপ্ত ঘোষণা করেন আম্পায়াররা। দ্বিতীয় দিন শেষে শ্রীলঙ্কার লিড দাঁড়িয়েছে ২১১ রান।

এর আগে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে খালেদ আহমেদের ঝোড়ো বোলিংয়ে ৫৭ রানেই ৫ উইকেট হারায় শ্রীলঙ্কা। ৫৭ রানেই ৫ উইকেট হারানোর পর জুটি গড়েন কামিন্দু মেন্ডিস ও ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা। এই জুটিতে ভর করে ২২ ওভারে ৯২ রান নিয়ে লাঞ্চ বিরতিতে যায় শ্রীলঙ্কা। লাঞ্চ থেকে ফিরে জোড়া অর্ধশতক তুলে নেন এই দুই ব্যাটার। তাদের জুটিতে ভর করে দ্বিতীয় সেশনটা নিজেদের করে নে শ্রীলঙ্কা। দ্বিতীয় সেশনে লঙ্কানদের কোনো উইকেটই ফেলতে পারেনি বাংলাদেশ। বিনা উইকেটে ১২৫ রান তুলে নেয় এই সেশনে তারা। যার ফলে দ্বিতীয় সেশন শেষে ৪৯ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ২১৭ রান তুলে নিয়েছে শ্রীলঙ্কা। চা পানের বিরতি থেকে আরও ভয়ঙ্কর হয়ে এই জুটি। এই দুই ব্যাটারই তুলে নেন সেঞ্চুরি। তারপর লঙ্কান শিবিরে আঘাত হেনে এই দুই সেঞ্চুরিয়ানকে ফেরান অভিষিক্ত নাহিদ রানা। যার ফলে আবারও খেলায় ফেরে বাংলাদেশ। শেষ পর্যন্ত ৬৮ ওভার খেলে সব উইকেট হারিয়ে ২৮০ রান তুলতে সক্ষম হয় শ্রীলঙ্কা।

এরপরেই ব্যাটিংয়ে নামে বাংলাদেশ। ব্যাটিংয়ে নেমে তারাও দ্রুত উইকেট হারাতে থাকে। ১০ ওভারে ৩২ রান তুলতেই টাইগাররা হারিয়ে ফেলে ৩ উইকেট। লঙ্কানদের চেয়ে ২৪৮ রানে পিছিয়ে থেকে প্রথম দিনের খেলা শেষ করে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় দিনের শুরুতে দ্রুত উইকেট হারিয়ে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৩২ রান করে লাঞ্চ বিরতিতে যায় বাংলাদেশ।

লাঞ্চ বিরতি থেকে ফিরে দ্রুত দুই উইকেট হারিয়ে বসে তারা। নবম উইকেটে খালেদ ও শরিফুলের ৪০ রানের জুটিতে ভর করে ৫১ ওভার ১ বলে সব উইকেট হারিয়ে ১৮৮ রান তুলতে সক্ষম হয় বাংলাদেশ। যার ফলে প্রথম ইনিংস শেষে লঙ্কানদের লিড দাঁড়ায় ৯২ রানের।

(ঢাকাটাইমস/২৩মার্চ/এনবিডব্লিউ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :