ফরিদপুরে দুর্ঘটনায় নিহত ও আহতদের জন্য ক্ষতিপূরণ ঘোষণা

ফরিদপুর প্রতিনিধি, ঢাকা টাইমস
| আপডেট : ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ১৪:৩৩ | প্রকাশিত : ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ১৩:৪৯

ফরিদপুরে যাত্রীবাহী বাস ও পিকআপ ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে ১৪ জন নিহতের ঘটনায় পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছেন জেলা প্রশাসক। পাশাপাশি নিহতদের জন্য পাঁচ লাখ এবং আহতদের তিন লাখ টাকা দেওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক কামরুল আহসান তালুকদার ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘খবর পেয়েই আমরা ঘটনাস্থলে ছুটে যাই। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে প্রধান করে পাঁচ সদস্যের তদন্ত টিম গঠন করা হয়েছে। এছাড়া নিহতদের পরিবারের সদস্যদের জন্য পাঁচ লাখ এবং আহতদের জন্য তিন লাখ টাকা ঘোষণা করা হয়েছে।’

মঙ্গলবার সকাল পৌনে ৮টার দিকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের ফরিদপুর সদরের কানাইপুরের তেঁতুলতলা এলাকায় ইউনিক পরিবহনের সঙ্গে আলফাডাঙ্গা থেকে ছেড়ে যাওয়া একটি পিকআপ ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়।

এ ঘটনায় এক পরিবারের পাঁচজনসহ মোট ১৪ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ১১ জন ঘটনাস্থলে এবং বাকি দুজন হাসপাতালে মারা যান।

দুর্ঘটনার খবর পেয়ে স্থানীয়দের সঙ্গে নিয়ে ফায়ার সার্ভিস, হাইওয়ে পুলিশ ও জেলা পুলিশের সদস্যরা উদ্ধার কাজ শুরু করে। আহতদের উদ্ধার করে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে দুজনের মৃত্যু হয়।

খবর পেয়ে জেলা প্রশাসকের সঙ্গে ঘটনাস্থল ও হাসপাতালে ছুটে যান ফরিদপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোর্শেদ আলমও।

এ ঘটনায় এক পরিবারের নিহত পাঁচজন হলেন- ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গার বেজিডাঙ্গা গ্রামের রফিক মোল্লা (৩৫), তার স্ত্রী সুমি বেগম (২৩), দুই ছেলে রুহান মোল্লা (৬), হাবিব মোল্লা (৩) এবং রফিক মোল্লার মা।

রফিক মোল্লা ঢাকায় একটি সরকারি অফিসে লিফটম্যান হিসেবে কর্মরত ছিলেন। ঈদের ছুটি শেষ করে তিনি মা, স্ত্রী ও দুই ছেলেকে নিয়ে পিকআপ ভ্যানে করে ঢাকায় যাচ্ছিলেন। নিহত অন্যদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

নিহতের স্বজনরা জানান, বাসে সিট না পেয়ে পিকআপ ভ্যান ভাড়া করে সবাই বাড়ি থেকে সকালে বের হয়ে ফরিদপুরের উদ্দেশে রওনা দেন।

ফরিদপুরের জেলা পুলিশ সুপার মোরশেদ আলম বলেন, ‘সড়কে আমাদের চলাচলে আরও সচেতন হতে হবে, তা না হলে থামবে না মৃত্যুর মিছিল। শুধু যাত্রীদেরই নয় মালিক ও শ্রমিকদের বড় ভূমিকা রাখতে হবে।’

দুর্ঘটনা সম্পর্কে প্রত্যক্ষদর্শী কানাইপুরের দিগনগর গ্রামের বাসিন্দা সাহানা বেগম বলেন, ‘ঘটনাস্থলে আসার পর বাসটির একটি চাকা রাস্তার গর্তে পড়ে যায়। গাড়িটি আড়াআড়িভাবে সড়কের ওপর দাঁড়িয়ে যায়। এ সময় পিকআপ ভ্যানটি বাসটির মাঝামাঝিতে এসে আঘাত করলে এই দুর্ঘটনা ঘটে।’

ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার ওসি হাসানুজ্জামান জানান, লাশের সুরতহালের পরে পরিচয় শনাক্ত করে পরিবারের কাছে হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে।

(ঢাকা টাইমস/১৬এপ্রিল/এসএ/ইএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

বাংলাদেশ এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :