রাজবাড়ির পাংশায় উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ, আহত ৫

রাজবাড়ি প্রতিনিধি, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ২৪ জুন ২০২৪, ২২:৩৯

রাজবাড়ীর পাংশায় মাছপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় উভয়পক্ষের অন্তত ৫ জন আহত হয়েছে।

রবিবার রাত ৮টার দিকে মাছপাড়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে পাংশা থানায় উভয় পক্ষ অভিযোগ দিয়েছে।

পাংশা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থলে যাওয়ার আগেই দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। তবে এখন পরিস্থিতি শান্ত আছে এবং এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। সংর্ঘষের সময় দুটি দোকান ভাঙচুর হয়েছে। সংঘর্ষে ৬-৭জন আহত হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।

এ বিষয়ে সোমবার দুপুরে মাছপাড়ার বাহাদুরপুর গ্রামে নিজ বাড়িতে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি এবং নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. সুজা উদ্দিন মৃধা এক সাংবাদিক সম্মেলন করেছেন। সাংবাদিক সম্মেলনে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন তিনি।

স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা যায়, মাছপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খন্দকার সাইফুল ইসলাম বুরো চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করে (৮ মে) উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে অংশ নিয়ে বিজয়ী হন। তার পদত্যাগের কারণে মাছপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদ শূন্য হয়।

তবে উপনির্বাচনের তফশিল ঘোষণা না হলেও উপজেলা নির্বাচন সম্পন্ন হওয়ার পর থেকে নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান খন্দকার সাইফুল ইসলাম বুরোর ছেলে উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক খন্দকার সিসিল চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দিয়ে প্রচারণা শুরু করেন। পাশাপাশি মাছপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান পদে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সুরুজ মৃধাও প্রার্থী হিসেবে প্রচারণা শুরু করেন।

রোববার রাত ৮টার দিকে এই দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় দোকানপাটও ভাঙচুর করা হয়। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

মাছপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও চেয়ারম্যান প্রার্থী সুরুজ মৃধা জানান, রাত ৮টার দিকে তার কিছু কর্মী-সমর্থক মোটরসাইকেল নিয়ে মিছিল করছিলেন। তখন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম বুরো ও তার ছেলের নেতৃত্বে মিছিলে হামলা চালান এবং বেশ কয়েকটি দোকান ভাঙচুর করেন। এক পর্যায়ে তারা আমার বাড়িতেও হামলার চেষ্টা করেন। এ সময় পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও তার ছেলে জনমনে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে এবং তার কর্মীদের ভয় দেখাচ্ছে। হামলায় তার বেশ কয়েকজন কর্মী আহত হয়েছেন বলেও দাবি করেন তিনি।

অপরদিকে পাংশা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খন্দকার সাইফুল ইসলাম বুরো জানান, তারা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান শেষ করে ইউনিয়নের পার্টি অফিসে বসে ছিলেন। তখন ৫০ থেকে ৬০টি মোটরসাইকেল নিয়ে এসে সুরুজ মৃধার লোকজন তার কর্মীদের ওপর হামলা করে। সে সময় তারা শুধু প্রতিরোধ করেছিলেন। সুরুজ মৃধার লোকজন আগে তাদের ওপর হামলা করেছেন। এতে তাদের একজন কর্মী আহত হয়েছেন।

(ঢাকাটাইমস/২৪জুন/পিএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

সারাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সারাদেশ এর সর্বশেষ

জামালপুরে ছাত্রলীগ নেতাকে অব্যাহতি, বহিষ্কারের সুপারিশ

কোটা সংস্কারের পক্ষে অবস্থান নিয়ে ডাসারে ছাত্রলীগ নেতার পদত্যাগ

রণক্ষেত্র কুষ্টিয়া, আন্দোলনকারীদের ধাওয়ায় পালালো ছাত্রলীগ

প্রধানমন্ত্রীর উপহার ল্যাপটপ পেল কিশোরগঞ্জের ১০৫ নারী

জামালপুরে ট্রেন ও সড়ক অবরোধ, ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়া, সাংবাদিকসহ আহত ৬

বগুড়ায় ছিনতাইকালে বাস থে‌কে লা‌ফি‌য়ে ভার্সিটি শিক্ষার্থীর মৃত্যু

​​​​​​​মাওয়ায় পুলিশ-শিক্ষার্থী সংঘর্ষ, পদ্মা সেতুতে যান চলাচল ব্যাহত

মাদারীপুরে মহাসড়ক অবরোধ, পুলিশ ছাত্রলীগ ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া

শিক্ষার্থী আবু সাঈদের দাফন সম্পন্ন

চাঁদপুর আঞ্চলিক সড়কে জলাবদ্ধতা, দুর্ভোগ চরমে

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :