ঝিনাইদহে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২২ জুলাই ২০১৯, ২১:৩০

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় তামান্না খাতুন নামে এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। তবে এটা আত্মহত্যা নয়, পরিকল্পিত হত্যা বলে নিহতের স্বজনরা দাবি করেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার রাতে উপজেলার ত্রিবেনী ইউনিয়নের আনন্দনগর গ্রামে।

সাত বছর আগে আনন্দনগর গ্রামের মকছেদ শেখের ছেলে বকুল শেখের সাথে সদর উপজেলার সোনাদহ গ্রামের প্রবাসি নাসির শেখের মেয়ে তামান্না খাতুনের বিয়ে হয়। সংসারজীবনে তাদের তানভীর নামে পাঁচ বছর বয়সী একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। গত ছয় মাস আগে বকুল শেখ প্রথম স্ত্রী তামান্নার বিনা অনুমতিতে আবারো বিয়ে করেন। ছোট বউকে নিয়ে বকুল ঢাকাতে বসবাস শুরু করেন। সেই থেকেই তাদের সংসার জীবনে কলহের সৃষ্টি হতে থাকে।

বকুল ঢাকা থেকে বাড়িতে এলে রবিবার রাতে বড় স্ত্রী তামান্নার সাথে বাকবিতণ্ডার সৃষ্টি হয়। এর কিছুক্ষণ পর গলায় ওড়না পেচানো অবস্থায় ঘরের মধ্যে ঝুলতে দেখে পরিবার ও আশপাশ এলাকার লোকজন তামান্নাকে উদ্ধার করে শৈলকুপা হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতালের চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

এদিকে নিহত তামান্নার বাবা দেশের বাইরে থাকায় সোনাদহ গ্রামের চাচাতো ভাই জামাল শেখ, চাচি সোনালী খাতুন ও মুন্নি খাতুন আনন্দনগর গ্রামে নিহত তামান্নার মৃতদেহ দেখতে আসে।

এসময় তারা অভিযোগ করে বলেন, তামান্না খুবই নরম স্বভাবের মেয়ে ছিল। তার স্বামী বকুল স্ত্রী সন্তান রেখে বিনা অনুমতিতে দ্বিতীয় বিয়ে করে সংসারে অশান্তি বাঁধায়। বকুল ও তার বাড়ির লোকজন মিলে তামান্নাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে।

রামচন্দ্রপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই রবিউল ইসলাম জানান, নিহত গৃহবধূ তামান্নার মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট হাতে পেলে জানা যাবে এটা হত্যা, নাকি আত্মহত্যা?

(ঢাকাটাইমস/২২জুলাই/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :