ছেলেধরা সন্দেহে মারধর, প্রধান শিক্ষক গ্রেপ্তার

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৩ জুলাই ২০১৯, ১৭:৩৯
প্রধান শিক্ষক কামাল হোসেন

ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে ছেলেধরা সন্দেহে এক ব্যক্তিকে মারধরের অভিযোগে এক শিক্ষককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তার নাম কামাল হোসেন। তিনি চাঁদপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

মঙ্গলবার তাকে আদালতে মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

জানা যায়, পীরগঞ্জ উপজেলার কোষারানীগঞ্জ ইউনিয়ন এলাকা থেকে ভোমরাদহ এলাকায় ফাইবার টানার জন্য বৈদ্যুতিক পোলের সার্ভে কাজ চলছে। এ কাজে এসেছিলেন ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর থানার আদাখোলা গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে টেকনিশিয়ান ইউনুস আলী হাওলাদার।
সোমবার সকাল ১১ টার দিকে ইউনুস আলী চাঁদপুর উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন এলাকায় সার্ভে করছিলেন।

এ সময় উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কামাল হোসেনের নেতৃত্বে কয়েকজন লোক অপরিচিত ইউনুস আলীকে আটক করে স্কুলমাঠে নিয়ে যান। এরপর জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে  ইউনুস আলীকে বেধরক মারপিট করে গুরুতর জখম করেন তারা। এ সময় তার পকেটে থাকা ৩৫০০ টাকা ও হাতে থাকা ব্যবহৃত ওয়ালটন মোবাইল ছিনিয়ে নেন। খবর পেয়ে পীরগন্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শাখাওয়াত হোসেন ঘটনাস্থল থেকে আহতাবস্থায় টেকনিশিয়ান ইউনুসকে উদ্ধার করে পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করেন। পরে ফাইবার এট হোম লিমিটেডের ঠাকুরগাঁও ও দিনাজপুর এলাকার কর্মকর্তারা হাসপাতালে ছুটে যান ইউনুস আলীকে দেখতে। মারধরের ঘটনায় চাঁদপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কামাল হোসেনসহ পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আরো ১০/১২ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন ভুক্তভোগী। রাতেই অভিযান চালিয়ে পুলিশ চাদপুর হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক কামাল হোসেনকে গ্রেপ্তার করে। মঙ্গলবার তাকে আদালতে সোপর্দ করলে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।
পীরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো.বজলুর রশিদ জানান, এ মামলায় অপর আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

জেলা পুলিশ সুপার মনিরুজ্জামান বলেন, ছেলেধরা গুজবে কোনো ব্যক্তি যেন অপরিচিত ও নিরীহ কোনো মানুষকে অহেতুক মারধর না করে সেজন্য মাইকিং করে এলাকার মানুষকে সচেতন করা হয়েছে। তারপরও কেউ আইন নিজের হাতে তুলে নিলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ঢাকাটাইমস/২৩জুলাই/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :