পদ্মায় স্পিডবোট ডুবে শিশু নিখোঁজ, উদ্ধার ১৯

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৩ আগস্ট ২০১৯, ১২:৪৯ | প্রকাশিত : ১৩ আগস্ট ২০১৯, ১০:২৭
উদ্ধার কাজে সেনা সদস্যরা। মঙ্গলবার সকালে তোলা।

পদ্মা নদীতে তীব্র ঢেউয়ের মাঝে ইঞ্জিন বিকল হয়ে মুন্সীগঞ্জের কাঁঠালবাড়ী-শিমুলিয়া নৌ-রুটে ২০যাত্রী নিয়ে একটি স্পিডবোট ডুবে গেছে। এ ঘটনায় ১৯যাত্রীকে কাছাকাছি থাকা স্পিডবোটে উদ্ধার করা হলেও দীন ইসলাম (৮) নামের এক শিশু নিখোঁজ রয়েছে।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে লৌহজং টার্নিং পয়েন্টে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ঘটনার পরপরই নৌ-রুটটিতে বন্ধ রাখা হয়েছে লঞ্চ ও স্পিডবোট চলাচল। তবে সীমিত আকারে ফেরি চলাচল করছে।

বিআইডাব্লিটিসির কাঁঠালবাড়ী ঘাট সূত্র জানায়, সকালে শিমুলিয়া ঘাট থেকে ২০ যাত্রী নিয়ে একটি স্পিডবোট কাঁঠালবাড়ী ঘাটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। স্পিডবোটটি মাঝ পদ্মায় পৌঁছালে ইঞ্জিন বিকল হয়ে ঢেউয়ের ধাক্কায় উল্টে যায়। 

মাওয়া নৌ ফাঁড়ির পুলিশের ইনচার্জ আমিনুল ইসলাম ঢাকাটাইমসকে বলেন, বোটে থাকা যাত্রীরা জানিয়েছেন বোটটিতে ২০জন যাত্রী ছিলো। একজন নিখোঁজ রয়েছে। বাকিদের অক্ষত উদ্ধার করা হয়েছে । নিখোঁজ শিশুকে উদ্ধারে অভিযান চলছে। 

লৌহজং উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ কাবিরুল ইসলাম খান ঢাকাটাইমসকে জানান, স্পিডবোটে থাকা সকল যাত্রীকে উদ্ধার করা হলেও একজন নিখোঁজ রয়েছে। স্থানীয় প্রশাসন, ফায়ার সার্ভিস, সেনাবাহিনী ও কোস্টগার্ড নিখোঁজ শিশুটিকে উদ্ধারের কাজ করছে।

এদিকে নিখোঁজ দীন ইসলামের বোন মিম আক্তার কান্নাভেজা কণ্ঠে এ প্রতিবেদককে বলেন, ঢাকার মিরপুর-১২ এর  থেকে এসে বাবা ও আমরা তিন ভাইবোন শিমুলিয়া ঘাটে স্পিডবোটে উঠি। স্পিডবোটটিতে তখনো পানি ভর্তি ছিলো। যাত্রীরা বলার পরও পানি না কমিয়ে স্পিডবোট ছেড়ে দেওয়া হয়। নদীতে উল্টে যাওয়া গেলে আমার ভাইকে একবারের জন্যও চোখে দেখতে পেলাম না।

 

ঢাকাটাইমস/ ১৩আগস্ট/ ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :