সম্মেলন প্রস্তুতি আ.লীগের ১২ উপকমিটি গঠন

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২০:১৫

আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনকে সামনে রেখে ১২টি সম্মেলন প্রস্তুত উপকমিটি গঠন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। বুধবার বিকালে ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের সম্পাদকমণ্ডলীর সভাশেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সম্পাদকমণ্ডলীর সভায় ২০ ও ২১ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন নিয়ে আলোচনা হয়। ২০ তারিখ বিকাল ৩টায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সম্মেলনের উদ্বোধন হবে। পরদিন ২১ তারিখ পর্যন্ত কাউন্সিল অধিবেশন চলবে। আগামী শনিবার থেকে জেলা বিভাগগুলোতে বর্ধিত সভার মধ্যদিয়ে সম্মেলনের প্রস্তুতি শুরু হবে। বর্ধিত সভার মাধ্যমে সম্মেলন প্রস্তুতিতে অংশ নেবেন।

বিভিন্ন ইউনিটের মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটির বিষয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, মেয়াদোত্তীর্র্ণ কমিটিগুলো নিয়ে আমাদের যারা বিভাগীয় পর্যায়ে সমন্বয় করছে তারা প্রায়োরিটি বেসিসে সেসব ইউনিটে সম্মেলনের দিন তারিখ ঠিক করবেন। ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটিগুলোর সম্মেলন শেষের সার্কুলার ইতিমধ্যে আমরা জেলায় পাঠিয়ে দিয়েছি।

তিন বছরে যা পারেননি, তিন মাসে তা সম্ভব কি না জানতে চাইলে, তিন বছরে অনেক কমিটি হয়েছে এ সময়ে যেগুলোর কাউন্সিল অনেক আগে হয়েছিল। আমরা কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের কমিটি ২২ বছর পরে দিয়েছি, নারায়ণগঞ্জের কমিটি ১৭ বছর পর দিয়েছি, ময়মনসিংহের কমিটিও হয়েছে অনেক দিন পরে। আওয়ামী লীগ ইচ্ছে করলে পারে। আমাদের টিম ওয়ার্ক আছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আওয়ামী লীগে অপকর্ম হয়নি, কেউ করেনি এটা বলি না। অপকর্ম হলে আমরা তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিই। এটা অন্তত আওয়ামী লীগে হয়, অন্য কোনো দল ব্যবস্থা নেয় না। বিএনপিও ব্যবস্থা নেয় না। আওয়ামী লীগে এই পলিটিক্যাল কনসার্র্ন আছে, কাজেই কেউ অনিয়ম, দুর্নীতি করলে শাস্তি আছে, দুদককে বলা আছে আওয়ামী লীগের কেউ দুনীতি, অপকর্ম করলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে।’

ছাত্রলীগ প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে ক্ষোভ প্রকাশ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘আমি ছাত্রলীগ নিয়ে কোনো কথাই বলবো না। আমি একটি শব্দও বলবো না। প্রতিদিন আপনারা এ প্রশ্নটা কেন করেন। এ নিয়ে তো আমি বলে দিয়েছি। এটা প্রধানমন্ত্রী নিজেই দেখছেন। দায়িত্বপ্রাপ্তদের গাইড লাইন দিচ্ছেন। এ বিষয়ে আমি আর কিছু বলতে চাই না।’

২১ জাতীয় সম্মেলন উপলক্ষে গঠিত খসড়া কমিটিগুলো হলো- সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির আহ্বায়ক শেখ হাসিনা; সদস্য সচিব ওবায়দুল কাদের, অভ্যর্থনা উপ-কমিটির আহ্বায়ক মোহাম্মদ নাসিম; সদস্য সচিব দীপু মনি, অর্থ উপ-কমিটির আহ্বায়ক কাজী জাফরউল্লাহ; সদস্য সচিব এইচএন আশিকুর রহমান, ঘোষণাপত্র উপ-কমিটির আহ্বায়ক শেখ ফজলুল করিম সেলিম; সদস্য সচিব আব্দুর রহমান, দপ্তর উপ-কমিটির আহ্বায়ক পীযুষ ভট্টাচার্য; সদস্য সচিব আব্দুস সোবহান গোলাপ, মঞ্চ ও সাজসজ্জা কমিটির আহ্বায়ক জাহাঙ্গীর কবির নানক; মির্জা আজম, প্রচার ও প্রকাশনা কমিটির আহ্বায়ক এইচটি ইমাম; সদস্য সচিব হাছান মাহমুদ, শৃঙ্খলা উপ-কমিটির আহ্বায়ক আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহ; সদস্য সচিব আফম বাহাউদ্দিন নাছিম, গঠনতন্ত্র সংশোধন উপ-কমিটির আহ্বায়ক আব্দুর রাজ্জাক; সদস্য সচিব আফজাল হোসেন, স্বাস্থ্য উপ-কমিটির আহ্বায়ক মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন; সদস্য সচিব রোকেয়া সুলতানা, সংস্কৃতিক উপ-কমিটির আহ্বায়ক আতাউর রহমান; সদস্য সচিব অসীম কুমার উকিল, খাদ্য উপ-কমিটির আহ্বায়ক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া।

(ঢাকাটাইমস/১৮সেপ্টেম্বর/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :