মুজিবনগর হাসপাতাল

টেলিমেডিসিন সেবায় মানুষ পাচ্ছে উন্নত চিকিৎসা

রাজিবুল হক সুমন, মেহেরপুর
 | প্রকাশিত : ২১ অক্টোবর ২০১৯, ০৯:১৬

টেলিমেডিসিন সেবা জনপ্রিয় হয়ে উঠছে মেহেরপুরের মুজিবনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। বিনামূল্যে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শে জটিল ও উন্নতমানের চিকিৎসা পেয়ে খুশি সাধারণ মানুষ। কার্ডিওলজি, কিডনি, ডেন্টাল, নিউরোলজি, নেফ্রলজি, মেডিসিন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা এখানে চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকেন। টেলিমেডিসিন সেবার প্রচার-প্রসারে কাজ করছে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ।

প্রত্যন্ত গ্রামে বসবাসকারী মানুষের স্বাস্থ্যসেবা তাদের দোড়গোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে বিনামূল্যে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের সেবা নিশ্চিত করতে ২০১৬ সালের ১৫ মে মুজিবনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চালু হয় টেলিমেডিসিন সেবা। বাড়তি ব্যয় ছাড়াই হাতের কাছে উন্নত চিকিৎসা পাওয়ায় জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে টেলিমেডিসিন সেবা।

প্রথম দিকে রোগীর সংখ্যা কম হলেও গত চার বছরে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের কাছে চিকিৎসা সেবা নিয়েছেন ১৭১০ জন। সপ্তাহে ছয় দিন চালু থাকে টেলিমেডিসিন সেবা।

মুজিবনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটিতে চিকিৎসক সংকট রয়েছে দীর্ঘদিন ধরে। ১১ জন মেডিকেল অফিসারের পদ থাকলেও দায়িত্ব পালন করছেন মাত্র চারজন। এই হাসপাতালটি টেলিমেডিসিন চিকিৎসা দেন জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউট, সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ, কিডনি ইন্সটিটিউট হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা। জটিল ও কঠিন রোগে আক্রান্তদের আর দূরে যেতে হয় না। হয় না বাড়তি কোনো খরচ। হাতের কাছে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের সেবা পাচ্ছেন বিনামূল্যে।

মুজিবনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিতে আসা সুমাইয়া খাতুন জানান, ‘আমার মুখের স্কিনের সমস্যা হওয়ার কারণে এখানে এসেছিলাম। কিন্তু এখানে স্কিন যাক্তার নাই। পরে টেলিমেডিসিন সেবার মাধ্যমে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারকে দেখানো হলে তিনি প্রেসক্রিপসন দিয়েছেন। বাইরের কোন ডাক্তারের কাছে যেতে হলে সময় ব্যয় হতো। খরচ বেশি হতো- এটা হচ্ছে না।’ এভাবে চিকিৎসা নিতে পারায় তিনি সন্তোষ প্রকাশ করেন।

রিপন খান জানান, ‘আমার সমস্যার জন্য যদি বাইরে যেতাম- তাতে সময় নষ্ট হতো, ব্যয় হতো, অনেক প্রবলেম হতো। সেইটিই এখন হাতের কাছে মুজিবনগর হাসপাতালে টেলিযোগাযোগের মাধ্যমে পাচ্ছি। ডাক্তার দেখিয়েছি। আমরা এখানে যারা চিকিৎসা নিতে আসি, তারা সবাই বেশ খুশি।’

আমজাদ হোসেন নামে আরেক রোগী জানান, ‘আমি বিদেশে ছিলাম। দেশে আসার পর চর্মরোগ দেখা দেওয়ায় আমি এখানে এসেছি। ইন্টারনেটের মাধ্যমে ডাক্তারের পরামর্শে চিকিৎসা নিচ্ছি।’

মুজিবনগর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা রেজওয়ান আহম্মেদ ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘বিভিন্ন বিষয়ে যেমন কার্ডিওলজি, স্কিন, সার্জারিসহ প্রতিটি বিষয়ে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক বিভিন্ন মেডিকেল কলেজ থেকে অনলাইনে টেলিকমিউনিকেশনের মাধ্যমে আমাদের রোগীদের সেবা দিয়ে যাচ্ছে। এ পর্যন্ত যে পরিমাণ রোগীর সেবা দিয়েছি, তার পরিমাণটা আরও বাড়াতে চাই। সেক্ষেত্রে আমরা বিভিন্নভাবে প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছি। আশা করছি, দ্রুত সময়ে এই সংখ্যা আরও বাড়বে।’

(ঢাকাটাইমস/২০অক্টোবর/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত