প্রধানমন্ত্রীর দেয়া অসহায় মুক্তার বাড়ি পরিদর্শনে সাংসদ শিবলী

বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২১ অক্টোবর ২০১৯, ২০:১৪

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে দিনাজপুরের বিরামপুরের অসহায় মুক্তা খাতুনকে দেয়া বসতবাড়িটি পরিদর্শন করেছেন দিনাজপুর-৬ আসনের সাংসদ শিবলী সাদিক। সোমবার দুপুরে  পৌর শহরের শিমুলতলী এলাকায় এ বাড়ি পরিদর্শন করেন তিনি।

সংসদ সদস্যকে কাছে পেয়ে মুক্তা খাতুন আবেগঘন কন্ঠে বলেন, ‘আমার জীবন দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর এই ঋণ শোধ করতে পারব না। আমার কোন বাড়ি ছিল না, তিনি আমাকে বাড়ি বানিয়ে দিয়েছেন। আমি এমন একটি সুন্দর বাড়ি পাব- তা জীবনেও ভাবিনি। আমার স্বপ্নও ছিল না যে, আমি আমার নিজের নামে একটি পাকা ঘরে ঘুমাতে পারব। শেখ হাসিনা আমাদের সেই স্বপ্ন পূরণ করে দিয়েছেন।’

মুক্তা খাতুনের সেমিপাকা রঙিন বাড়িটিতে দুটি থাকার ঘর, একটি রান্না ঘর ও একটি টয়লেট রয়েছে। বাড়ির দেয়াল রঙিন করা হয়েছে। উন্নত মানের ঢেউটিনে ব্যবহার করা হয়েছে গাঢ় নীল রঙ।

এসময় দিনাজপুর-৬ আসনের সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক বলেন, ‘আজ এ এলাকার সবচেয়ে হতদরিদ্র মানুষকে সুন্দর বাড়ি ঘর নির্মাণ করে দিচ্ছে সরকার। আগামীতে গ্রাম ও শহরের মানুষের মধ্যে কোন পার্থক্য থাকবে না। জননেত্রী শেখ হাসিনা যতদিন সরকারে থাকবে, ততদিন বাংলার কোন মানুষ গৃহহীন থাকবে না।’

বাড়ি পরিদর্শনকালে উপজেলা চেয়ারম্যান খায়রুল আলম রাজু, উপজেলা নির্বাহী অফিসার তৌহিদুর রহমান, পৌর মেয়র লিয়াকত আলী সরকার টুটুল, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা কাওছার আলীসহ অন্যান্য কর্মকর্তা ও রাজনৈতিক নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, ‘জমি আছে ঘর নাই’ এমন অসহায় ও দরিদ্র মানুষদের জন্য মাথা গোঁজার ঠাঁই দিতে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের টিআর-কাবিটা প্রকল্পের বিশেষ বরাদ্দের মাধ্যমে দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার সাতটি ইউনিয়ন ও পৌর এলাকায় ৩০টি সেমিপাকা বাড়ি নির্মাণ করা হয়েছে।

এ প্রকল্পের মাধ্যমে উপজেলায় নবনির্মিত বাড়িগুলো পুরো সময় ধরে তদারকি করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার তৌহিদুর রহমান ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা কাওছার আলী।

(ঢাকাটাইমস/২১অক্টোবর/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :