আ.লীগের সম্মেলনে নতুন নেতৃত্ব আসবে?

মহিবুল ইজদানী খান ডাবলু
| আপডেট : ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৭:৪১ | প্রকাশিত : ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৭:০৬
মহিবুল ইজদানী খান ডাবলু

দেশের সর্ববৃহৎ রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় কাউন্সিল নিয়ে ইতিমধ্যে মিডিয়ায় আসছে নতুন নতুন সংবাদ। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে তার পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার কথাও বলছেন অনেকে। অন্যদিকে ওবায়দুল কাদের বলেছেন, তার দলের আসন্ন জাতীয় সম্মেলনে সভাপতি পদটি ছাড়া অন্য যেকোনো পদে পরিবর্তন আসতে পারে।

দলে যে একটা পরিবর্তন আসছে তা নিয়ে কোনো দ্বিমত নেই। তবে সে পরিবর্তন আসবে কীভাবে, কিংবা হবে কীভাবে? প্রতিবারের মতো দলীয় সমর্থকেরা চাইবেন জাতির জনকের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে পুনরায় সভাপতিl কিন্তু বঙ্গবন্ধু কন্যা কি চাইবেন আবারো দলীয় প্রধান হতে? তার জীবিত অবস্থায় নিশ্চয় তিনি চাইবেন আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে একজন আস্থাশীল ব্যক্তিl  ১৫ আগস্টের পরবর্তী সময়ে জাতির জনকের গড়া আওয়ামী লীগকে অনেক ঘাত-প্রতিঘাতের মধ্য দিয়ে শেখ হাসিনা আজ দেশের বৃহত্তম রাজনৈতিক দল হিসেবে গড়ে তুলেছেনl আসছে কাউন্সিলে এমনও হতে পারে যে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের সভাপতি না হয়ে প্রস্তাব করবেন নতুন সভাপতির নামl আর সেই নাম হবে একজন মহিলা নেত্রীর নামl

এদিকে শুক্রবার ধামন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সাংবাদিক, সভাপতি বা সাধারণ সম্পাদক পদে কোনো পরিবর্তন আসছে কি না প্রশ্ন করলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘একটা পদে কোনো পরিবর্তন আসবে না। সেটা হচ্ছে আমাদের পার্টির সভাপতি। আমাদের সভাপতি দেশরত্ন শেখ হাসিনা। তিনি ছাড়া আমরা কেউ অপরিহার্য না। তিনি এখনো আমাদের জন্য প্রাসঙ্গিক, অপরিহার্য। তৃণমূল পর্যন্ত সবাই তার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ।’

কিন্তু প্রশ্ন হলো আর কতদিন? মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগ সভানেত্রী  শেখ হাসিনা নিশ্চয় চাইবেন না তার অবর্তমানে আওয়ামী লীগ ভেঙে টুকরো টুকরো হয়ে যাকl আমরা দেখেছি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু হত্যার পরবর্তী সময়ে আওয়ামী লীগের কী অবস্থা হয়েছিলl গাজী আওয়ামী লীগ, মিজান আওয়ামী লীগ, বাকশালসহ বিভিন্ন দলে বঙ্গবন্ধুর আদর্শবাদীরা বিভক্ত হয়ে পড়েl সুতরাং আওয়ামী লীগকে অতীত থেকে শিক্ষা নিতে হবেl অবশ্য একথা ঠিক, এভাবে বারবার দলীয় নেতৃত্বে থাকা আর না থাকা নির্ভর করবে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওপরl তিনি নিশ্চয় সবকিছু ভেবেচিন্তে সঠিক সিদ্ধান্তই নেবেনl ওবায়দুল কাদের দলীয় নেত্রীর প্রতি শ্রদ্ধা ও আস্থা আছে বলেই হয়তো এমন কথা বলেছেনl

সাধারণ সম্পাদক পদে পরিবর্তন আনার কথাও মিডিয়ায় প্রকাশিত হয়েছেl  ওবায়দুল কাদের শেখ হাসিনার একজন আস্থাশীল ব্যক্তিl  সাবেক এই ছাত্রলীগ নেতা পঁচাত্তরের ১৫ আগস্টের পরবর্তী সময়ে ছাত্রলীগের গোপনীয় আন্দোলনে অগ্রগামী ভূমিকা রাখেনl পরবর্তী সময়ে বিএনপি ও এরশাদ আমলেও তার রাজনৈতিক ভূমিকা অতুলনীয়l এখন পর্যন্ত এমন কিছু তিনি করেননি যে, যার জন্য দলীয় হাইকমান্ড তার প্রতি অসন্তুষ্ট থাকবেনl শারীরিক অসুস্থতার মধ্যেও  তিনি রাত-দিন সাংগঠনিক তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেনl

তাছাড়া এতো অল্প সময়ের মধ্যে শেখ হাসিনা নিশ্চই চাইবেন না এধরনের একটা পরিবর্তনl সুতরাং ওবায়ুল কাদেরের মতো একজন বিশ্বস্ত আস্থাভাজন সাধারণ সম্পাদক তার পদে বহাল থাকবেন বলেই মনে হচ্ছেl একথা ঠিক আওয়ামী লীগ কীভাবে চলবে, কাকে দিয়ে চলবে সেটা একমাত্র বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ছাড়া আর কেউ বলতে পারবেন না। তিনি যেটা ভালো মনে করবেন, তাই করবেন। দলের সাধারণ সম্পাদক পদে আপাতত কোনো পরিবর্তন আসবে না বলেই ধারণা করা যেতে পারে। যদিও সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘পার্সোনালি আই অ্যাম নট ইন্টারেস্টেড।’

লেখক: জুরি, স্টকহল্ম আপিল কোর্ট ও ইমিগ্রেশন কোর্ট

সংবাদটি শেয়ার করুন

মতামত বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :