ফোন করলেই খাবার পৌঁছে দিচ্ছেন সাংসদ ইসরাফিল আলম

আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৭ এপ্রিল ২০২০, ২২:৫৬

প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসের প্রার্দুভাবের কারণে কর্মহীন, অসহায়, শ্রমজীবী, দিনমজুর ও অসচ্ছল পরিবারের জন্য ভ্যানে করে বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন নওগাঁ- ৬ (আত্রাই-রাণীনগর) আসনের সাংসদ ইসরাফিল আলম ।

তিনি বলেন, সবাইকে ঘরে থাকছে বলছি। কারণ অজ্ঞাত-অচিহ্নিত ও অদৃশ্য শক্তি করোনার বিরুদ্ধে আমরা যুদ্ধ করছি। আমরা নিজেরা যদি নিজ নিজ জায়গা থেকে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সতর্ক না হই, তাহলে আমাদের সর্বনাশ আমরাই ডেকে আনব। কারণ এই করোনাভাইরাস যদি কাউকে স্পর্শ করে তাহলে শুধু ওই ব্যক্তিই মারা যাবে না পুরো ওই গ্রাম এমনকি ওই অঞ্চলটি মৃত্যুপুরীতে পরিণত হবে। তাই আসুন আমরা ঘরের বাইরে বের না হয়ে একটু কষ্ট হলেও তা মেনে নিয়ে নিজ নিজ জায়গা থেকে সতর্কতা অবলম্বন করে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে যুদ্ধ ঘোষণা করি। এই সংকট চলার সময়ে আপনাদের অভাবের কথা ঘরে ঘরে গিয়ে শোনা হবে এবং প্রয়োজনীয় খাবারসামগ্রীসহ অন্যান্য উপকরণ পৌঁছে দিয়ে আসা হবে। সরকারের পাশাপাশি আমিসহ আমার লোকেরা রাণীনগর ও আত্রাই উপজেলার প্রতিটি কর্মহীন মানুষের ঘরে ঘরে গিয়ে আপনাদের খোঁজ নিয়ে সহযোগিতা দিয়ে আসব। শুধুমাত্র আপনারা ঘরে বসে আল্লাহর কাছে দোয়া করবেন যেন আমাদের দেশে এই ভাইরাস মহামারি আকার ধারণ না করে। আমি প্রতিদিন আমার গাড়ির পেছনে খাবারের প্যাকেট নিয়ে দুই উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় দিন-রাত ঘুরছি আর কর্মহীন মানুষদের খুঁজে খুঁজে বের করে খাবারসামগ্রী হাতে তুলে দিচ্ছি। যেখান থেকে কর্মহীন মানুষদের ফোন ও খবর পাচ্ছি সেখানেই সঙ্গে সঙ্গে খাবার পৌঁছে দিচ্ছি। যতদিন এই সংকট শিথিল না হচ্ছে ততদিন আমি ফেরি করে আপনাদের ঘরে ঘরে গিয়ে প্রয়োজনীয় খাবারসামগ্রী পৌঁছে দিয়ে আসব- শুধুমাত্র দয়া করে আপনারা কেউ জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে বের হবেন না এবং কোন মোড়ে কিংবা বাজারে অযথা জটলা পাকাবেন না। তাই আসুন, এই মরণঘাতক ভাইরাসের হাত থেকে আমি নিজে বাঁচি অন্যকেও বাঁচতে সহায়তা ও সতর্ক করি।

তিনি আরো বলেন, সরকার করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় ভিজিএফ, ভিজিডি, ১০ টাকা কেজি চাল ও বিশেষ খাদ্য সহায়তা দিতে যে ব্যাপক ব্যবস্থা নিয়েছে তার সঠিক বাস্তবায়ন হলে কোনো মানুষই অভুক্ত থাকবে না। নির্বাচনের সময় যেভাবে আমি বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট চেয়েছি, ঠিক সেইভাবেই আমার নেতৃত্বে স্বেচ্ছাসেবীদের মাধ্যমে কর্মহীন মানুষদের ঘরে ঘরে গিয়ে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছি। কারণ আল্লাহর পর আমি আত্রাই ও রাণীনগর উপজেলার মানুষদের অভিভাবক। আমার ভান্ডারে পর্যাপ্ত পরিমাণ খাবার মজুদ আছে। আপনা ভয় পাবেন না। এছাড়াও এই খাবার বিতরণ নিয়ে কেউ কোন অনিয়ম করলে তার বিরুদ্ধে আমার আদালতে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করব। আপনারা করোনা মোকাবিলায় ঘরে বসে থাকুন আতংকিত না হয়ে আপনি নিজে সচেতন হোন এবং আপনার আশেপাশের সবাইকে সচেতন হতে উদ্বুদ্ধ করুন।

খাদ্য সহায়তার হটলাইন নাম্বারগুলো হলো: ০১৭১৬৩৩১৭৯৭, ০১৭১১১৩৬৮১০, ০১৭২৮৭১৮৫৯১, ০১৭১৩৭৮৮৪৩৮, ০১৭৬৫৯১৯২৮০ ও ০১৭৪০৫৪০৭৮৭।

(ঢাকাটাইমস/৭এপ্রিল/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :