লবলং সাগরটাকে বাঁচাতেই হবে

সৈয়দ চৌধুরী
| আপডেট : ১১ আগস্ট ২০২০, ১৫:৩৫ | প্রকাশিত : ১১ আগস্ট ২০২০, ১৫:২৭

প্রচুর বৃষ্টিতে ভরে উঠেছিল লবলং। মাওনা থেকে বারতোপা রাস্তায় যেতে বর্ষায় মাছ ধরার সময় যখন ছবিটি তুললাম তখন মনটা হু-হু করে উঠল! এই পানি যদি এভাবেই থাকে তবুও কালো হয়ে যাবে সব।

এখানে যুক্ত হবে পয়ঃবর্জ্য, হাসপাতালের বর্জ্য, ফ্যাক্টরির এসিডিক, অ্যালকালি টাইপের ওয়েস্ট ওয়াটার, রাসায়নিক সার, খাবারের উচ্ছিষ্ট অরগানিক ওয়েস্ট। প্রতিনিয়ত ভারী হয়ে যাচ্ছে লবলংয়ের তলা। পানি ভূগর্ভস্থে ফিরতে পারার শক্তি হারাচ্ছে অথবা দূষিত পানি ঢুকছে মাটির তলায়!

সামনের দিনগুলো শ্রীপুরের জন্য ভালো আসবে কি না সেটা সত্যিই বড় সন্দেহের জায়গা সৃষ্টি করছে। পানি সম্পদ বাঁচানোর জন্য হাই টিডিএস, হাই সিওডি, হাই বিওডি, লো ডিওযুক্ত পানিপ্রবাহ বন্ধ করতে হবে। এ এলাকার পানি পরীক্ষা করতে হবে। সব উপাদান সঠিক আছে কি না সে বিষয়ে নিশ্চিত হতে হবে।

পরিবেশ অধিদপ্তরের এ ব্যাপারে কাজ করার জন্য আবেদন রাখছি। পানির পিইচের মান বর্ষাকালে ঠিক থাকলেও শুষ্ক সময়ে তা কমে যাচ্ছে। পরিত্রাণ না করা গেলে একসময় এ অঞ্চলের মানুষ যেমন আক্রান্ত হবে কিডনি রোগে তেমনি হারাবে জীবনী শক্তি। তাই দ্রুত ব্যবস্থা নেয়াই কাম্য।

ঢাকাটাইমস/১১আগস্ট/এসকেএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

ফেসবুক কর্নার বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :