ইলিয়াস আলী ইস্যু: মির্জা আব্বাসের বক্তব্যের ব্যাখ্যা চায় বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২২ এপ্রিল ২০২১, ২১:০৭

সাবেক সাংসদ ও বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এম ইলিয়াস আলীর গুম’ হওয়া ইস্যুতে দলের জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের সম্প্রতি দেয়া বক্তব্যের ব্যাখ্যা চেয়েছে বিএনপি।

দলীয় সূত্র জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার বিকালে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের পক্ষে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বক্তব্যের ব্যাখ্যা চেয়ে মির্জা আব্বাসকে চিঠি দিয়েছেন।

তবে তাকে শোকজ করার যে গুজব উঠেছে, তা সঠিক নয়।

গত শনিবার একটি ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে ইলিায়াস আলীর নিখোঁজ হওয়ার ঘটনা উল্লেখ করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার ইলিয়াস আলীকে গুম করেনি, তাহলে গুমটা কে করল? এই সরকারের কাছে এটা আমি জানতে চাই।’

ইলিয়াস আলী গুম হওয়ার আগের রাতে দলের কর্যালয়ে এক ব্যক্তির সঙ্গে মারাত্মক বাগবিতণ্ডা করেন বলে বক্তব্যে বলেন মির্জা আব্বাস।

স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বিএনপির মহাসচিবের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, ইলিয়াস আলীর গুমের পেছনে দলের অভ্যন্তরে লুকায়িত ‘বদমায়েশগুলো’কে চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নিন।

আগামী শনিবার বিএনপির সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। ওই বৈঠকে মির্জা আব্বাসকে তার বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে।

জানা গেছে, মির্জা আব্বাসকে দেয়া ওই চিঠিতে তার বক্তব্য উল্লেখ করে বলা হয়, ইলিয়াস আলী গুম হয়েছেন ৯ বছর হয়েছে। এই সময়ে তাকে গুমের বিষয়ে সরকারের বিরুদ্ধে দেশে ও বহির্বিশ্বে জনমত গড়ে উঠেছে। এ ব্যাপারে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থাগুলোর মধ্যে ঐকমত্য তৈরি হয়েছে।

চিঠিতে মির্জা আব্বাসকে বলা হয়, ‘আপনার বক্তব্য এই জনমতকে প্রশ্নবিদ্ধ করছে। যার পরিপ্রেক্ষিতে দলের নেতা-কর্মীরা আপনার বক্তব্যের ব্যাপারে আপনার কাছে ব্যাখ্যা প্রত্যাশা করছে যে আপনি কী বলতে চেয়েছিলেন।’

অবশ্য ইতোমধ্যে মির্জা আব্বাস সংবাদ সম্মেলন করে বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিয়েছেন। দলের স্থায়ী কমিটির সিনিয়র সদস্যরাও বিষয়টি মির্জা আব্বাসের স্বভাবসুলভ বক্তব্যের বহিঃপ্রকাশ হিসেবে মনে করছেন।

তবে দলীয় সূত্রে জানা গেছে, মির্জা আব্বাস বিরোধী দলের একটি গ্রুপ এই বিষয়টিকে ইস্যু হিসেবে দাঁড় করিয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/২২এপ্রিল/বিইউ/ ইএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :