নৌবাহিনীর ঠিকাদার রঞ্জুকে ধাক্কা দেয়া বাসচালক কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২১ জুন ২০২১, ১৭:৩৭
রাইদা পরিবহনের একটি বাস (ফাইল ছবি)

বাংলাদেশ নৌবাহিনীর ঠিকাদার সুলতান মাহমুদ রঞ্জুর মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয়া রাইদা পরিবহনের বাসের চালক সনু শেখকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত।

সোমবার দুপুরে ঢাকা মহানগর হাকিম ইয়াসমিন আরা এই আদেশ দেন।

ঢাকা মহানগর মুখ্য হাকিম আদালতের বিমানবন্দর থানার নিবন্ধন কর্মকর্তা মো. মাহমুদুর রহমান ঢাকা টাইমসকে এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

সোমবার দুপুরে বিমানবন্দর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মাহবুব হোসাইন আসামি সনু শেখকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠান। এ ঘটনায় ঘাতক বাসটিকেও জব্দ করা হয়।

গত ২৬ মে দুপুরে মোটরসাইকেল যোগে ব্যবসায়িক কাজে উত্তরার নিজ বাসা থেকে গুলশান-২ নম্বরে যাচ্ছিলেন রঞ্জু। কাওলা বাসস্ট্যান্ডে ফুটওভার ব্রিজ থেকে আনুমানিক ২০ গজ দূরে ঢাকা মেট্রো-ভ ১৫-১৫২২ নম্বরের রাইদা পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস রঞ্জুকে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে তিনি মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে যান। পরে সেখানে কর্তব্যরত পুলিশ সার্জেন্ট ফারুক হোসেন এসে তাকে উদ্ধার করেন। এরপর তার স্বজনরা এসে তাকে জাতীয় অর্থোপেডিক ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল (পঙ্গু) নিয়ে যান। সেখানে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে চিকিৎসকরা জানান, তার ডান পাঁজরের চারটি হাড় এবং কলারবোনসহ পাঁচটি হাড় ভেঙে গেছে। চিকিৎসকদের পরামর্শে রঞ্জু বর্তমানে বাসায় বিশ্রামে আছেন। চিকিৎসক তাকে কমপক্ষে তিন মাস বিশ্রামে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন।

এ ঘটনায় গত ১৬ জুন বিমানবন্দর থানায় মামলা করেন রঞ্জু। মামলা নম্বর-১৫। মামলাটি তদন্ত করছেন বিমানবন্দর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. মাহবুব হোসাইন।

এ ব্যাপারে বিমানবন্দর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. মাহবুব হোসাইন ঢাকা টাইমসকে বলেন, গতকাল রবিবার দুপুরে গাড়িচালক সনুকে গ্রেপ্তার করেছি। এছাড়া রায়দা পরিবহনের ওই বাসটিকেও আটক করেছি। সুমনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছি। এখন সাক্ষ্য-প্রমাণ সংগ্রহ করে আদালতে প্রতিবেদন দেব।

মো. সুলতান মাহমুদ রঞ্জু ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা থানার কামারগ্রামের মৃত-শওকত হোসেনের ছেলে। তিনি পরিবারসহ রাজধানীর উত্তরা ৬ নম্বর সেক্টরের ৫ নম্বর সড়কের ৫০৩ নম্বর বাড়িতে থাকেন।

(ঢাকাটাইমস/২১জুন/এএ/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আদালত বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :