ভবানীপুর উপনির্বাচন স্থগিতের দাবি বিজেপির

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:৫৯
ছবি: ইন্ডিয়া টুডে

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের ভবানীপুর আসনে বিধানসভা উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর। কিন্তু এই নির্বাচনে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ সম্ভব নয় বলে মনে করছেন রাজ্য বিজেপির সাবেক সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সোমবার দুপুরে ভবানীপুরে প্রচারে গিয়ে হামলার মুখেও পড়েন তিনি। পরে তিনি দাবি তুলেছেন, ভবানীপুরে ভোটগ্রহণ স্থগিত রাখা হোক। সূত্র: আনন্দবাজার।

সোমবার ভবানীপুরের বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়ালের হয়ে প্রচারে গিয়েছিলেন দিলীপ। যদুবাবুর বাজারে তাঁর মিছিল ঘিরে বিক্ষোভ দেখায় তৃণমূল। বিজেপি ও তৃণমূল সমর্থকদের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি হয়। ধাক্কাধাক্কির মধ্যে পড়ে মাথা ফাটে এক বিজেপি কর্মীর। সেই সময় দিলীপের নিরাপত্তারক্ষীর হাতে ‘সার্ভিস পিস্তল’ দেখা যায়।

এই প্রসঙ্গে দিলীপ বলেন, ‘আমি প্রচারে গেলে আমাকে চারদিক দিয়ে ঘিরে আক্রমণ করা হয়। বাধ্য হয়ে ভয় দেখতে আমার নিরাপত্তারক্ষীরা বন্দুক বার করেন। এক ঘণ্টা আগে আমাদের সাংসদ অর্জুন সিং প্রচারে গেলে তাঁকেও ধাক্কাধাক্কি করা হয়। তাঁকে নিরাপত্তারক্ষীরা বার করে নিয়ে যেতে বাধ্য হন। এর আগে প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়ালকেও আক্রমণ করা হয়েছে। রাজ্য সভাপতিকেও বাধা দেওয়া হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা আগে থেকেই পুলিশকে জানিয়েছিলাম। কিন্তু পুলিশ সহযোগিতা করেনি। একজন পুলিশ সুপার পদাধিকারী আমাদের বাঁচাতে গেলে তাঁকেও মারধর করা হয়। হেরে যাওয়ার ভয়ে তৃণমূল এ সব করছে। নির্বাচন কমিশনকে আমরা বারবার জানিয়েছি। কিন্তু কমিশন সুরক্ষার কোনও ব্যবস্থা করেনি।’

দিলীপ ঘোষের প্রশ্ন, ‘ভোটারদের কাছে পৌঁছাতে না পারলে কীভাবে ভোট হবে? সাধারণ মানুষ কীভাবে ভোট দিতে যাবেন? যাঁরা বিজেপিকে ভোট দিতে চান তাঁদের ভয় দেখানো হচ্ছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে মুখ্যমন্ত্রী রাখার জন্য কমিশন পক্ষপাতদুষ্ট আচরণ করছেন। আমরা নির্বাচন স্থগিত রাখার দাবি জানাচ্ছি।’

(ঢাকাটাইমস/২৭ সেপ্টেম্বর/এসইউএল)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :