এবার বাবার জন্য পাত্রী চেয়ে ছেলের পোস্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৫ আগস্ট ২০২২, ১৭:২৯

কিছুদিন আগে মায়ের জন্য পাত্র চেয়ে ফেসবুকে পোস্ট দেন এক ছেলে। তাতে হইচই পড়ে যায় সারা দেশে। বিধবা মায়ের জন্য ছেলের ওই উদ্যোগ কারও কাছে পায় প্রশংসা, কারও কাছে হয় নিন্দিত। সেই ঘটনার রেশ না কাটতে এবার বাবার জন্য পাত্রী খুঁজতে লেগে পড়েছেন আরেক ছেলে।

ঘটনাটি নওগাঁ জেলার সাপাহার উপজেলার। সোমবার (১৫ আগস্ট) দুপুরে এই উপজেলার মাস্টারপাড়া গ্রামের বাসিন্দা মনিরুল ইসলাম তার ফেসবুকে একটি পোস্ট দেন বাবার জন্য পাত্রী চেয়ে। সঙ্গে তিনি নিজের বাবার একটি ছবিও পোস্ট করেছেন।

পোস্টে মনিরুল লিখেছেন, ‘আমার মা ২০২১ সালের ২৭ নভেম্বর স্ট্রোক করে মৃত্যুবরণ করেন। সেই থেকে আমার বাবা একাকিত্বভাবে জীবন যাপন করছেন। তিনি হাই প্রেশারের রোগী। বয়স ৪৮ বছর। আমরা বর্তমানে সাপাহার উপজেলার মাস্টারপাড়া এলাকায় বসবাস করি।’

‘আমার বাবা ইসলামপুর দাখিল মাদ্রাসায় সহকারী মৌলভী হিসেবে কর্মরত আছেন। আর হয়তো ২ থেকে ৩ বছরের মধ্যে রিটায়ার্ড করবেন। এমতাবস্থায় তার সেবাযত্ন করার জন্য অবশ্যই একজন কাছের মানুষের দরকার।’

‘সে জন্য আমি আমার বাবার জন্য পাত্রী খুঁজছি। আর্থিক অবস্থা না থাকলেও চলবে। বয়স ৩৮ থেকে ৪০ বছর হলে ভালো হয়। যাতে করে উনার সেবাসহ সাংসারিক কাজ কর্মে সহযোগিতা করতে পারেন।’

এর আগে গত ৩০ জুলাই মায়ের জন্য পাত্র চেয়ে ‘বিসিসিবি মেট্রিমনিয়াল: হেভেনলি ম্যাচ’ নামের ফেসবুক গ্রুপে বিজ্ঞপ্তি দেন ঢাকার কেরানীগঞ্জের বাসিন্দা মোহাম্মদ অপূর্ব। ওই বিজ্ঞপ্তির সঙ্গে অপূর্ব তার মায়ের সঙ্গে তোলা একটি ছবি এবং মায়ের একার একটি ছবি যুক্ত করেন।

অপূর্ব তার বিজ্ঞপ্তিতে লেখেন, ‘বাবা মারা গেছেন। তাই আম্মুর জন্য পাত্র খুঁজছি।’ পাত্রের যোগ্যতা সম্পর্কে অপূর্ব লেখেন, ‘পাত্র অবশ্যই ঢাকার আশপাশের হলে ভালো হয়। শিক্ষাগত যোগ্যতা কম হলে সমস্যা নেই। পাত্রের পেশা চাকরি বা ব্যবসা- যে কোনোটা হতে পারে।’

তবে পাত্রকে অবশ্যই নামাজি হতে হবে বলে শর্ত দেন অপূর্ব। এও জানান, পাত্রকে একদম সাদামাটা হতে হবে। যিনি তার মায়ের জীবনের বাকি চলার পথের সঙ্গী হতে পারবেন। পাত্রের বয়স ৪২ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে হলে ভালো হয় বলেও বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করেন অপূর্ব।

(ঢাকা টাইমস/১৫ আগস্ট/এএইচ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :