সুন্দরবনের বাঘ এলো সিনেমা হল ভ্রমণে

বিনোদন প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৮:৪১

গত ২৩ সেপ্টেম্বর দেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে র‌্যাব ওয়েলফেয়ার কো-অপারেটিভ সোসাইটি প্রয়োজিত সিনেমা ‘অপারেশন সুন্দরবন’। চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন দীপংকর দীপন। শুরু থেকেই এই সিনেমা নিয়ে মানুষের মাঝে ব্যাপক আগ্রহ। প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির পরও সেই ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছে সিনেমাটি।

‘অপারেশন সুন্দরবন’ টিম সব সময় সুন্দরবনের প্রকৃতি এবং সুন্দরবনের প্রাণি রক্ষার ক্ষেত্রে সমান গুরুত্ব দিয়ে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় টিম ‘অপারেশন সুন্দরবন’ রাজধানীর চিত্রামহল, মধুমিতা ও লায়ন সিনেমা হলে ‘সুন্দরবনের বাঘ এলো সিনেমা ভ্রমণে’ নামে একটি ক্যাম্পেইন শুরু করেছে। সোমবার দুপরে এই ক্যাম্পেইনটি শুরু হয়েছে ধোলাইপাড় রোডের চিত্রা সিনেমা হল থেকে।

প্রতিটি সিনেমা হলে একটি করে টাইগার বুথ থাকবে যেখানে সোনা, রূপা এবং হিরা নামে তিনটি বাঘ থাকবে। এই তিনটি বাঘ দর্শকদের স্বাগত জানাবে এবং এই তিনটি বাঘ দর্শকদের সিনেমা দেখতে আসতে বলবে। শিশু-কিশোররা বাঘের প্রতি আকৃষ্ট হবে এবং তারা এসে বাঘের সাথে ছবি তুলবে এবং সেই ছবি ‘অপারেশন সুন্দরবন’-এর অফিসিয়াল পেজে পাঠালে পেজ থেকে সেই ছবি প্রকাশ করা হবে। এভাবে শিশু-কিশোরদের মধ্যে সুন্দরবনের বাঘ, প্রকৃতি এবং প্রাণি সম্পর্কে আগ্রহ বাড়বে এবং এদের সংরক্ষণের মানসিকতা বাড়বে।

এরই প্রেক্ষিতে চিত্রনায়ক সিয়াম সুন্দরবনের বাঘ সংরক্ষণে গুরুত্বারোপ করে বলেন, ‘সুন্দরবনের বাঘ বাঁচলে সুন্দরবন বাঁচবে আর সুন্দরবন বাঁচলে আমাদের দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চল রক্ষা পাবে, বাংলাদেশের প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষা পাবে।’

চিত্রনায়ক জিয়াউল হোসেন রোশন বলেন, ‘ছবিটির শুটিংয়ের সময় সুন্দরবনের প্রাকৃতিক পরিবেশের যেন কোনো ক্ষতি না হয় সেদিকে সবসময় লক্ষ্য রাখা হয়েছে।’ সুন্দরবনের প্রকৃতি এবং প্রাণীকূলের প্রতি তার অসীম ভালোবাসা রয়েছে বলে জানান রোশান। তিনি চান, দেশের সকল মানুষের মনে যেন এই ভালোবাসা পৌঁছে যায়।

চলচ্চিত্রটির পরিচালক দীপংকর দীপন বলেন, ‘অপারেশন সুন্দরবন’ চলচ্চিত্রে বিভিন্ন পশু-পাখি দেখানো হয়েছে, পশুপাখির প্রতি মানুষের আগ্রহ বাড়ানোর জন্য। সুন্দরবনের বাঘ, প্রাকৃতিক পরিবেশ সুন্দরবনেই মানানসই এবং সুন্দরবনের বাঘ এবং অন্যান্য পশু-পাখিদের যেন সেখান থাকতে দেওয়া হয়।’

সুন্দরবনে বাঘের পরিবেশ রক্ষার জন্য যেসব বিষয় প্রয়োজন তা নিশ্চিত করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে আহ্বান জানান দীপন। পাশাপাশি সুন্দরবনের বাঘ এবং প্রাকৃতিক পরিবেশ সম্পর্কে মানুষের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য এই ক্যাম্পেইনটি চালু করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

এ প্রসঙ্গে র‌্যাবের মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, ‘এই চলচ্চিত্রটির মাধ্যমে আমরা সুন্দববনের প্রকৃতি এবং জীববৈচিত্র রক্ষায় সাধারণ মানুষকে একটি বার্তা দিতে চেয়েছি। পাশাপাশি বাংলাদেশের প্রাকৃতিক ভারসাম্য এবং দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলকে প্রাকৃতিক দুযোর্গ থেকে রক্ষা করতে সুন্দরবন যে ভূমিকা রেখে চলেছে, তা সবাইকে পুনরায় স্মরণ করিয়ে দিতে চাই।’

মঈন জানান, ‘এই আয়োজনে টিম ‘অপারেশন সুন্দরবন’ সিনেমা হলগুলোতে এসে টাইগার বুথের পাশে শিশু-কিশোরদের ছবি তোলা এবং ‘অপারেশন সুন্দরবন’ সিনেমা দেখার আহবান জানাবে।’

(ঢাকাটাইমস/২৬সেপ্টেম্বর/এলএম/এএইচ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :