নিয়মিত দুপুরে ঘুমান? শরীর-স্বাস্থ্যের কী বারোটা বাজাচ্ছেন জানুন

ঢাকাটাইমস ডেস্ক
| আপডেট : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১১:৩৪ | প্রকাশিত : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১১:১০

ঘুম হলো আমাদের স্বাভাবিক শারীরবৃত্তীয় প্রক্রিয়া। কিন্তু জানলে অবাক হবেন, ঘুমের সময় আপনার অজান্তেই শরীরের অন্দরে চলে একাধিক জটিল কাজ। এমনকি এই সময় শরীর সারাদিনের ধকল সামলে নিজেকে পরবর্তী চ্যালেঞ্জের জন্য তৈরি করে নেয়।

তাই সুস্থ-সবল জীবনযাপন করার ইচ্ছা থাকলে প্রতিদিন কমপক্ষে ৭ ঘণ্টা ঘুম চাই-ই চাই। তবে যে কোনো কার্যকরী অস্ত্রও বহুল ব্যবহারে ভোঁতা হয়ে যেতে পারে। ঘুমের ক্ষেত্রেও এই কথাটা শতভাগ প্রযোজ্য।

তাই পর্যাপ্ত ঘুম উপকারী হলেও অত্যধিক নিদ্রাযাপন কিন্তু শরীরের মন্দ বই ভালো করে না। বিশেষত, দুপুরবেলায় ঘুমানোর অভ্যাস থাকলে একাধিক রোগবিরেতের খপ্পরে পড়তে পারে শরীর। তাই আর দেরি না করে নিয়মিত দুপুরে ঘুমানোর ক্ষতিকর দিকগুলো সম্পর্কে জেনে নিন।

অনিদ্রার ভ্রুকুটি

আমাদের শরীরের অন্দরে প্রকৃতিপ্রদত্ত একটি ঘড়ি রয়েছে। এই ঘড়ির সময় ধরেই আমাদের রাতেরবেলায় ঘুম পায়। তবে আপনি যদি অহেতুক দুপুরবেলাতেই দুই চোখের পাতা এক করে ফেলেন, তাহলে এই ঘড়ির সময়ের গড়বড় হয়ে যেতে পারে।

এই কারণেই কাটাতে হতে পারে বিনিদ্র রজনী। তাই রাতেরবেলা দুই চোখের পাতা এক করার ইচ্ছে থাকলে দুপুরে কোনোমতেই ঘুমানো যাবে না। তাই যত দ্রুত সম্ভব এই ভুল শুধরে নিন।

বাড়তে পারে ওজন

দুপুরে খাবার খাওয়ার পর চটজলদি ঘুমের দেশে পাড়ি দিলে কিন্তু ওজনের কাঁটা ঊর্ধ্বমুখী হতে পারে। আসলে ঘুমের সময় শরীরের শক্তির প্রয়োজন থাকে না বললেই চলে। ফলে খাবারের মাধ্যমে গৃহীত ক্যালোরি দেহে ফ্যাট হিসাবে জমতে থাকে।

এই কারণেই বাড়ে ওজন। তাই ওজন কমানোর ইচ্ছে থাকলে দুপুরে ঘুমের অভ্যাসে লাগাম টানুন। এই নিয়মটা মেনে চলতে পারলেই দেখবেন আপনার ওজনের কাঁটা নিম্নমুখী হবে।

কার্ডিওভাস্কুলার অসুখের ফাঁদ

আজকাল অনেকেই অল্প বয়সে স্ট্রোক ও হার্ট অ্যাটাকের মতো কার্ডিওভাস্কুলার রোগের ফাঁদে পড়ে প্রাণ হারাচ্ছেন। খারাপ খবর হলো, দুপুরে ঘুমানোর অভ্যাস থাকলে এসব প্রাণঘাতী রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বাড়বে। তাই দুপুরে ঘণ্টার পর ঘণ্টা ঘুমানোর অভ্যাস থাকলে আজই শুধরে যান। নইলে রোগের মারে শরীরের হবে দফারফা।

পিছু নেবে মাথা ব্যথা

দুপুরে দীর্ঘক্ষণ ঘুমের পর অনেকেই মাথা ব্যথার খপ্পরে পড়েন। বিশেষত, যাদের মাইগ্রেনের সমস্যা রয়েছে, তাদেরই এই সমস্যায় আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা থাকে বেশি। শুধু তাই নয়, দুপুরে ঘুমের কারণে পিছু নিতে পারে মন খারাপ।

এমনকি অবসাদ ও উৎকণ্ঠার মতো জটিল সমস্যার ফাঁদেও জড়িয়ে পড়তে পারেন। তাই হাসি-খুশি জীবন কাটানোর ইচ্ছে থাকলেও দুপুরে ঘুমানোর অভ্যাসে ইতি টানুন।

পেটের হবে দফারফা!​

খাবার খাওয়ার পরপরই ঘুমের দেশে পাড়ি জমালে খাদ্য হজমে সমস্যা হতে পারে। এমনকি এই কারণে গ্যাস, অ্যাসিডিটির মতো সমস্যার খপ্পরে পড়ার আশঙ্কাও বাড়বে বৈকি!

তাই তো পেটের রোগের ফাঁদ এড়িয়ে চলার ইচ্ছে থাকলে দিনের বেলায় ঘুমাবেন না। এতেই আপনার সুস্থ থাকার পথ প্রশস্ত হবে।

(ঢাকাটাইমস/১৪সেপ্টেম্বর/এজে)

সংবাদটি শেয়ার করুন

ফিচার বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :