গাজার পৃথক স্থানে ইসরায়েলি বিমান হামলায় নিহত ৫০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ০৫ ডিসেম্বর ২০২৩, ১৭:২৫

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকার দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর খান ইউনিস এবং মধ্য গাজার নুসেইরাত শরণার্থী শিবিরে ইসরায়েলি বিমান বাহিনীর হামলায় আরও ৫০ জন নিহত হয়েছেন।

ফিলিস্তিনের সরকারি বার্তাসংস্থা ওয়াফার বরাতে এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা আনাদুলু।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মঙ্গলবার খান ইউনিস শহরের একাধিক হামলা চালায় ইসরায়েলি বিমান বাহিনী। এ হামলায় কমপক্ষে ৪০ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও অনেকে।

অন্যদিকে নুসেইরাত শরণার্থী শিবিরের কাছে একটি বাড়িতে হামলা চালালে আরও ১০ জন নিহত হয়।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, সোমবার স্কুলে বোমা বর্ষণের পাশাপাশি গাজার উত্তরাঞ্চলীয় শরণার্থী কেন্দ্র জাবালিয়া ক্যাম্পেও বোমা ও ড্রোন হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি বিমান বাহিনী। এতে অন্তত ১০৮ জন নিহত এবং কয়েক ডজন ফিলিস্তিনি আহত হন। আহতদের শিবিরের নিকটবর্তী কামাল আদওয়ান হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। জ্বালানির অভাবে গত বেশ কিছুদিন ধরে হাসপাতালটিতে বিদ্যুৎ নেই।

ইসরায়েলি বিমান বাহিনীর অব্যাহত বোমা ও ড্রোন হামলায় ঘরবাড়ি হারিয়ে হাসপাতালটির চত্বরে আশ্রয় নিয়েছেন ৭ হাজারেরও বেশি মানুষ।

এরআগে সোমবার অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার উত্তরাঞ্চলে পৃথক দুটি স্কুলে ইসরায়েলি হামলায় কমপক্ষে ৫০ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও শতাধিক ফিলিস্তিনি। স্কুল দুটিতে বাস্তুচ্যুত কয়েক হাজার ফিলিস্তিনি আশ্রয় নিয়েছিলেন।

স্থানীয় সূত্রের বরাত দিয়ে ওয়াফা জানিয়েছে, সোমবার গাজা উপত্যকার উত্তরে দারাজ এলাকায় জাতিসংঘ পরিচালিত সালাহ আদ-দিন স্কুল এবং আল-দাররাজের শহীদ আসাদ সাফওয়াতি স্কুলে বিমান হামলা চালায় ইসরায়েলি বাহিনী। এতে শিশুসহ কমপক্ষে ৫০ জন নিহত হয়েছেন।

এদিকে ফিলিস্তিনি স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাসের সঙ্গে এক সপ্তাহ যুদ্ধবিরতির পর শুক্রবার থেকে গাজা উপত্যকায় আবার আক্রমণ শুরু করেছে ইসরায়েলের সেনাবাহিনী। তার আগে ইসরায়েলের সেনাবাহিনী মূলত গাজার উত্তরভাগেই অভিযান চালিয়েছিল। কিন্তু এখন দক্ষিণ গাজাতেও বিমান হামলা ও স্থল অভিযান শুরু করছে ইসরায়েল।

এর আগে উত্তর গাজায় অভিযানের সময় গাজাবাসীকে দক্ষিণে সরে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল ইসরায়েল। সেসময় গাজার বেসামরিক মানুষের একটা বড় অংশ নিরাপদ আশ্রয়ের জন্য দক্ষিণ গাজায় চলে গেছিল। এখন দক্ষিণ গাজায়ও ইসরায়েল হামলা জোরদার করেছে। চালানো হচ্ছে স্থল অভিযান। এর ফলে পুরো গাজা এখন কার্যত অনিরাপদ হয়ে পড়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ইসরায়েলের সেনা দক্ষিণ গাজায় খান ইউনিস শহরের পূর্বদিকে গেছে। আকাশপথে হামলার পাশাপাশি ট্যাংক নিয়ে সেখানে অভিযান চালানো হচ্ছে।

হামাসের সঙ্গে গত ৭ অক্টোবর সংঘাত শুরু হওয়ার পর থেকে গাজায় নির্বিচারে বিমান হামলা ও স্থল অভিযান চালাচ্ছে ইসরায়েল। ইসরায়েলি হামলায় এ পর্যন্ত নিহতের সংখ্যা ১৫ হাজার ৮৯৯ জনে দাঁড়িয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে ফিলিস্তিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। একই সময়ের মধ্যে আহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪২ হাজারে।

(ঢাকাটাইমস/০৫ডিসেম্বর/এমআর/ইএইচ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ

ইউক্রেনের চেয়ে গাজায় ৬ গুণ বেশি নারী-শিশু নিহত

শর্ত না মানলে কারাগারের ভেতরেই শায়িত করা হবে নাভালনির মরদেহ

চীনের নানজিংয়ে আগুনে ১৫ জনের মৃত্যু

নির্বাচনের ফলাফলকে চ্যালেঞ্জ: সুপ্রিম কোর্টে ইমরানের পিটিআই

অনুমতি ছাড়া হজ করলে যে গুরুদণ্ড দেবে সৌদি কর্তৃপক্ষ 

দ্বিতীয় রাশিয়ান এ-৫০ গুপ্তচর বিমান ভূপাতিত করার দাবি ইউক্রেনের

সেনাবাহিনীতে যোগ দেওয়ার শর্তে রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব দিতে চায় মিয়ানমারের জান্তা সরকার

ঢাকা সফরে আসছেন মার্কিন উপসহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী

শপথ নিলেন পাকিস্তানের পাঞ্জাব বিধানসভার নবনির্বাচিত এমপিরা

গাজায় ইসরায়েলি বিমান হামলায় ৪০ ফিলিস্তিনি নিহত, প্রাণহানি ছাড়াল সাড়ে ২৯ হাজার  

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :