টাঙ্গাইল-২

ছোট মনির ব্যবসা থেকে আয় কমলেও নগদ টাকার পরিমাণ বেড়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক, টাঙ্গাইল
| আপডেট : ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩, ১৮:০৪ | প্রকাশিত : ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩, ১৭:৫২

টাঙ্গাইল-২ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী তানভীর হাসান ওরফে ছোট মনির ব্যবসায়ীক আয় কমলেও নগদ টাকার পরিমাণ বেড়েছে।

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন ফরমের সাথে দাখিল করা হলফনামা মতে স্বাক্ষরজ্ঞান সম্পন্ন এ প্রার্থী নিজেকে একজন বেসরকারি ঠিকাদার উল্লেখ করলেও গত ৫ বছরে তার ব্যবসা থেকে আয় কমেছে বলে উল্লেখ করেছেন। ব্যবসা থেকে আয় কমলেও নিজ নামে ও যৌথভাবে নগদ টাকার পরিমাণ বেড়েছে বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দাখিল করা হলফনামা ও দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দাখিল করা হলফনামা থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

হলফনামা সূত্রে জানা যায়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ব্যবসা থেকে তার বাৎসরিক আয় দেখানো হয়েছিল ৪২ লাখ ৫৯ হাজার ৭৩৪ টাকা। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এসে দেখিয়েছেন ১৫ লাখ ৬০ হাজার ৬০৪ টাকা। তবে এবার দাখিল করা হলফনামায় তার নির্ভরশীলদের আয় বেড়েছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দাখিল করা হলফ নামায় ছোট মনির তার নিজ নামে দেখিয়েছেন ২ লাখ টাকা। এবার দেখিয়েছেন ৮ লাখ টাকা এবং যৌথভাবে রয়েছে ২ লাখ ৪৪ হাজার ৫৪৯ টাকা।

৫ বছর আগে ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দাখিল করা হলফনামায় স্বর্ণের পরিমাণ দেখিয়েছেন ৪০ ভরি। এবার দেখিয়েছেন ১৫০ ভরি এবং স্বামী-স্ত্রীর নামে বিয়ের সময় পাওয়া আরো ২০০ ভরি স্বর্ণ রয়েছে।

৫ বছর আগে কোনো সম্পত্তি না থাকলেও এবার নিজ নামে ৯৯ শতাংশ জমি রয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন। এছাড়া স্বামীর স্ত্রীর যৌথ নামে ২২৯০ বর্গফুটের আয়তনের একটি ফ্ল্যাট থাকলেও তার ঠিকানা দেওয়া হয়নি।

এদিকে ১৪ কোটি ২১ লাখ ৭১ হাজার ৫১৭ টাকার ঋন রয়েছে বলে হলফনামায় উল্লেখ করেছেন ছোট মনির।

স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা যায়, টাঙ্গাইল-২ আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য তানভীর হাসান ওরফে ছোট মনির সাবেক মন্ত্রী ও সিদ্দিকী পরিবারের সদস্য আবদুল কাদের সিদ্দিকীর সঙ্গে আওয়ামী লীগের রাজনীতি করতেন। কাদের সিদ্দিকী আলাদা দল গঠন করার পর ছোট মনির জার্মানিতে চলে যান। এরপর ২০১৩ সালের ১৮ জানুয়ারি মুক্তিযোদ্ধা ফারুক আহমেদকে হত্যা করা হয়। এই মামলায় সাবেক এমপি আমানুর রহমান খান রানা ও তার তিন ভাইসহ বেশ কয়েকজনকে আসামি করা হয়।

আলোচিত খান পরিবারের চার ভাই আওয়ামী লীগ নেতা ফারুক হত্যা মামলার আসামী হওয়ার পর জেলায় রাজনীতির পট পরিবর্তন শুরু হয়। এই সময় জার্মান থেকে দেশে ফিরে জেলা আওয়ামী লীগে যুক্ত হন এবং খান পরিবারের ভাইদের শাস্তির দাবীতে আন্দোলন গড়ে তোলেন ছোট মনির। এরপর আস্তে আস্তে নিজের ভীত মজবুত হতে শুরু হয় ছোট মনিরের। পরে জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্ব পাওয়ার পাশাপাশি ২০১৮ সালে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এরপর আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক নৌপরিবহন মন্ত্রী শাহজাহান খানের মেয়ে ঐশী খানকে বিয়ে করেন।

এ আসনে ছোট মনিরের প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. ইউনুছ ইসলাম তালুকদার ঠান্ডুও পেশায় একজন ব্যবসায়ী।

(ঢাকাটাইমস/০৮ডিসেম্বর/পিএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

সারাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :