ফিলিস্তিনিদের অধিকার কোথায় গেল: যুক্তরাষ্ট্রের ভেটো প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ২১:২২
মন্ত্রণালয়ে ব্রিফ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, গাজায় নারী-শিশুদের নির্বিচার হত্যাই শুধু নয়, সেখানে পানি, বিদ্যুৎসহ সব ধরনের মৌলিক সরবরাহব্যবস্থা পরিকল্পিতভাবে ব্যাহত করা হচ্ছে। হাসপাতালে অভিযান-হামলা চালানো হচ্ছে। চরমভাবে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অপরাধ সংঘটিত হচ্ছে এবং এটি আন্তর্জাতিক আইনকানুনের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।

এত কিছুর পর গাজায় যুদ্ধ বিরতির বিপক্ষে যুক্তরাষ্ট্রের ভেটো প্রদানের ঘটনাকে হতাশজনক আখ্যা দিয়েছেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, কেউ কেউ ইসরায়েলিদের নিরাপত্তার কথা বলে, তাহলে এই ফিলিস্তিনি নারী-শিশুদের নিরাপত্তা, ফিলিস্তিনিদের অধিকার কোথায় গেল? এ প্রশ্ন রেখে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আমাদের অত্যন্ত বন্ধুপ্রতিম সম্পর্ক। কিন্তু এই ভেটো প্রদান গভীর হতাশাব্যঞ্জক। আমরা কোথাও যুদ্ধ চাই না, যুদ্ধ বন্ধ হোক।’

বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনের সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

সম্প্রতি ফিলিস্তিনের গাজায় অবিলম্বে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়ে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে একটি প্রস্তাব তুলেছিল আলজেরিয়া। গত মঙ্গলবার সর্বশেষ তোলা সেই প্রস্তাবের ওপর ভোটাভুটিতে ভেটো ক্ষমতা প্রয়োগ করে যুক্তরাষ্ট্র। ফলে প্রস্তাবটি আর গৃহীত হয়নি।

নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য ও ইসরায়েলের ঘনিষ্ঠ মিত্র যুক্তরাষ্ট্র ছাড়া ১৫ সদস্যদেশের মধ্যে ১৩টি দেশ প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দেয়। এছাড়া ভোটদানে বিরত ছিল আরেক স্থায়ী সদস্য যুক্তরাজ্য।

যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়াবিষয়ক উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী আফরিন আক্তারের আসন্ন বাংলাদেশ সফর প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্ক আরও এগিয়ে নিতে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের চিঠি অত্যন্ত গুরুত্ববহ। তাদের কর্মকর্তাদের সফর দুই দেশের সম্পর্ককে আরও গভীর ও বিস্তৃত করবে।

এদিকে সৌদি আরবকসহ তিন দেশের রাষ্ট্রদূত এদিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত করেছেন। সৌদি আরবের রাষ্ট্রদূত ঈসা বিন ইওসেফ আল দুহাইলান, মিসরের রাষ্ট্রদূত ওমর মহি এলদিন ফাহমী ও অস্ট্রেলিয়ার ভারপ্রাপ্ত হাইকমিশনার নার্ডিয়া সিম্পসনের সাক্ষাতের পর পরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।

সৌদি রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে আলোচনা প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, একসময় সৌদি আরবের সঙ্গে শুধু জনশক্তি রপ্তানি আর হজের সম্পর্ক ছিল। এখন এই সম্পর্ককে বিনিয়োগ সম্পর্কে রূপ দিতে চায় বাংলাদেশ। এ দেশে বিনিয়োগের জন্য বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে সৌদি আরবকে ৩০০ একর জমি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল। আরও ৩০০ একর জমি তারা চেয়েছে।

হাছান মাহমুদ জানান, সৌদি আরবের যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান আল সৌদ বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ গ্রহণ করেছেন। চলতি বছরের দ্বিতীয়ার্ধে বিষয়টি চূড়ান্ত হতে পারে।

মিশরের রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাত প্রসঙ্গে তিনি জানান, মিসর তাদের দেশে পাট চাষ করতে চায়। এ বিষয়ে তারা বাংলাদেশের সাহায্য চেয়েছে। এ বিষয়ে তাদের সর্বাত্মক সহযোগিতা করার কথা বলা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, এ বছর মিসরের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছর পূর্তি হচ্ছে, শিগগিরই এটি উদ্‌যাপিত হবে

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, অস্ট্রেলিয়ার ভারপ্রাপ্ত হাইকমিশনারের সঙ্গে তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি, চামড়া খাতে বিনিয়োগের বিষয়ে আলাপ হয়েছে। তারা এ বিষয়ে ইতিবাচক সাড়া দিয়েছে।

উল্লেখ নিরাপত্ত পরিষদে বিভিন্ন প্রস্তাবে ভেটো দিলেও প্রথমবারের মতো যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

মঙ্গলবার আল জাজিরা জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র একটি খসড়া প্রস্তাব প্রস্তুত করেছে। প্রস্তাবে ৩টি বিষয় গুরুত্ব দিয়ে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে— যত দ্রুত সম্ভব সাময়িক যুদ্ধবিরতি কার্যকর করতে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের তাৎপর্যপূর্ণ ভূমিকা রাখতে হবে। হামাসের কাছে থাকা সব জিম্মির মুক্তি এবং গাজায় মানবিক সহায়তা পৌঁছাতে যেসব বাধা রয়েছে সেগুলোও দূর করার প্রস্তাব জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

(ঢাকাটাইমস/২২ফেব্রুয়ারি/এসআইএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :