আইপিও, প্লেসমেন্ট ও বোনাস শেয়ার বিধিমালা সংশোধনে কমিটি

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৮ মে ২০১৯, ১৯:০৫

প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) স্থির মূল্য এবং বুক বিল্ডিং পদ্ধতি, প্লেসমেন্ট, আইপিও পরবর্তী সময়ে বোনাস শেয়ার ইস্যুর বিধিমালা ও নোটিফিকেশন সংশোধনে ২টি কমিটি গঠন করেছে বাংলাদেশ সিকিউরটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। আজ বুধবার কমিশনের ৬৮৫তম সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এ ছাড়া এই কমিটি তালিকাভুক্ত কোম্পানির উদ্যোক্তা পরিচালকদের ২ শতাংশ এবং ৩০ শতাংশ শেয়ার ধারণসংক্রান্ত যে বিধিমালা রয়েছে তা সংশোধনের আইনগত বিষয়গুলো খতিয়ে দেখবে।

কমিশনের নির্বাহী পরিচালক ফরহাদ আহমেদকে প্রধান করে ছয় সদস্যের কমিটির সদস্যসচিব উপপরিচালক শেখ লুৎফর কবির। অন্য সদস্যরা হলেন- নির্বাহী পরিচালক রুকসানা চৌধুরী, পরিচালক মোহাম্মদ রেজাউল করিম, রিপন কুমার দেবনাথ ও মো. মনসুর রহমান।

এই কমিটি প্রাইভেট অফারের মাধ্যমে মূলধন উত্তোলনের ক্ষেত্রে বিএসইসির অনুমোদনের কোনো প্রয়োজন হবে না সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট বিধিমালা, নোটিফিকেশন বাতিল বা পরিবর্তন সংক্রান্ত খসড়া আদেশ তৈরি ও নীতিমালা প্রণয়ন করবে। এ ছাড়া আইপিও সাইজ, কোটা, যোগ্য বিনিয়োগকারী, লক ইন পিরিয়ড ইত্যাদি বিষয়ে নেওয়া সিদ্ধান্তের আলোকে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (পাবলিক ইস্যু) রুলস, ২০১৫ এর প্রয়োজনীয় সংশোধনের খসড়া তৈরি করবে। একই সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অন্যান্য আদেশ বা নোটিফিকেশন পরিবর্তন সংক্রান্ত কাজও করবে এই কমিটি।

কমিটিকে আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে আলোচ্য বিষয়গুলোর বিষয়ে একটি প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে। এদিকে, বিএসইসির নির্বাহী পরিচারক মো. আনোয়ারুল ইসলামকে আহবায়ক এবং উপ-পরিচালক মো. নজরুল ইসলামকে সদস্যসচিব করে চার সদস্যবিশিষ্ট আরও একটি কমিটি গঠন করেছে কমিশন। এই কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- পরিচালক রিপন কুমার দেবনাথ, মো. মনসুর রহমান।

এই কমিটি তালিকাভুক্ত কোম্পানির বোনাস শেয়ার ঘোষণার নতুন শর্ত সংযোজন, মূল্য সংবেদনশীল তথ্য প্রকাশের প্রক্রিয়ার সংশোধন, উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের ২ শতাংশ ও ৩০ শতাংশ শেয়ার ধারণসংক্রান্ত নোটিফিকেশনের প্রয়োজনীয় সংশোধন এবং সংশ্লিষ্ট অন্যান্য আদেশ বা নোটিফিকেশন পরিবর্তন সংক্রান্ত কাজ করবে।

এই কমিটিকেও আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন কমিশনে দাখিল করার নির্দেশ দিয়েছে। বিদ্যমান আইনে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের মাধ্যমে তালিকাভুক্ত সকল কোম্পানির ইস্যুকৃত শেয়ারের লক ইন (যা এখনো উম্মুক্ত হয়নি) পিরিয়ড প্রসপেক্টাস ইস্যুর তারিখের পরিবর্তে ট্রেডিং শুরুর তারিখ থেকে গণনা করা হবে বলে কমিশন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যা আজ থেকে কার্যকর হবে বলে জানিয়েছেন কমিশন।

(ঢাকাটাইমস/৮মে/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :