সৌদির তেলক্ষেত্রে হামলা জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি: আরব লীগ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৯:১৬

সৌদি আরবের অন্যতম দুটি তেলক্ষেত্রে ড্রোন হামলার ঘটনাকে জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি বলে মন্তব্য করেছে আরব দেশগুলোর সংগঠন আরব লীগ। সংগঠনের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এ ধরনের হামলা আরব দেশগুলোর জাতীয় নিরাপত্তাকে হুমকিগ্রস্ত করছে।

আরব লীগের সচিবালয় থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতির বরাত দিয়ে মিশরের সংবাদ সংস্থা মিসরি আল-ইয়ায়োম এ খবর জানিয়েছে। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সৌদি তেল স্থাপনায় ইয়েমেনের প্রতিশোধমূলক হামলা চলমান উত্তেজনাকে ‘বিপজ্জনক মাত্রায়’ বাড়িয়ে দিয়েছে।

আরব লীগের বিবৃতিতে ইয়েমেনের আনসারুল্লাহ আন্দোলনকে ‘সন্ত্রাসী’ আখ্যায়িত করে বলা হয়েছে, আনসারুল্লাহ যোদ্ধাদের সঙ্গে ইয়েমেনের জনগণের কোনো সম্পর্ক নেই। বিবৃতিতে ইরানের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলা হয়েছে, আরব দেশগুলোর অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করছে তেহরান।

গত শনিবার সকালে ইয়েমেনের সেনাবাহিনী ও গণ কমিটি ঘোষণা করে তারা তাদের দেশের ওপর গত প্রায় পাঁচ বছরের সৌদি আগ্রাসনের জবাবে দেশটির দু’টি তেল স্থাপনায় হামলা চালিয়েছে। তাদের ঘোষণায় বলা হয়, সৌদি আরবের জাতীয় তেল কোম্পানি আরামকো পরিচালিত ‘বাকিক’ ও ‘খারিস’ তেল শোধনাগারে ১০টি পাইলটবিহীন বিমান বা ড্রোনের সাহায্যে এ হামলা চালানো হয়েছে।

ওই হামলার পর ইয়েমেনের সশস্ত্র বাহিনীর মুখপাত্র ইয়াহিয়া সারি এক বিবৃতিতে বলেন, ইয়েমেনের ওপর পাঁচ বছরের আগ্রাসন ও অবরোধের যে জবাব দেয়া হয়েছে তা সম্পূর্ণ বৈধ ও স্বাভাবিক।

তবে ইয়েমেনের হুথি বিদ্রোহীরা হামলার দায় স্বীকার করলেও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এই হামলার জন্য ইরানকে দায়ী করেছে। এই হামলার কারণে এরই মধ্যে সৌদির তেল উৎপাদন অর্ধেকে নেমে এসেছে। যুক্তরাষ্ট্র ঘোষণা দিয়েছে, যদি বিশ্বের তেল বাজার এই কারণে অস্থিতিশীল হয়ে পড়ে তবে তারা তাদের তেল ভাণ্ডার থেকে ক্রেতাদের তেল সরবরাহ করবে।

ঢাকা টাইমস/১৬সেপ্টেম্বর/একে

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :