বিইউপির ফোকফেস্টে ছিল সাংস্কৃতিক চর্চার আবহ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৮:৪৭

শিক্ষার্থীদের মাঝে সাংস্কৃতিক চর্চার আবহ ছড়িয়ে দেয়ার প্রয়াসে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস (বিইউপি)-এ হয়ে গেল  লোকধারার সংগীত অনুষ্ঠান ‘ফোকফেস্ট-২০১৯।

‘শহুরে ছকে শেকড়ের খোঁজে’ মূলভাবকে ধারণ করে আয়োজিত এ উৎসবে বিশেষ মাত্রা যোগ করতে ৮ ও ৯ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত এ আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন কথা সাহিত্যিক আনিসুল হক, জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী অর্ণবসহ অনেকে।

প্রথমদিনে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন উৎসবের প্রধান অতিথি, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মেজর জেনারেল এমদাদ-উল-বারি (এনডিসি.পি এস সি.টি ই)। এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপ উপাচার্য ড. এম আবুল কাশেম মজুমদার (পিএইচডি) এবং প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক আনিসুল হক।

প্রধান আলোচক আনিসুল হক তার বক্তব্যে, শিক্ষার্থীদের সামনে সংস্কৃতি চর্চার গুরুত্ব তুলে ধরেন। লেখাপড়ার পাশাপাশি বিশুদ্ধ সাংস্কৃতিক চর্চার জন্য শিক্ষার্থীদের জোর দেন।

উপ উপাচার্য ড. আবুল কাশেম তার বক্তব্যে ফোকফেস্ট এর প্রশংসা করেন এবং আয়োজকদের শুভকামনা জানান। তিনি সকলের সম্মতিক্রমে বিশ্ববিদ্যালয়ের পেছনের মনপুরা লেকে ভবিষ্যতে  ঐতিহ্যবাহী নৌকাবাইচ আয়োজন করার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সব শেষে উপাচার্য শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন। তিনি   শিক্ষার্থীদের সৃষ্টিশীল উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান। পরে প্রধান, বিশেষ এবং আমন্ত্রিত অতিথিরা বাংলাদেশের বিভিন্ন বিভাগের লোকধারা এবং লোকসংস্কৃতি নিয়ে বানানো ব্যানার-ফেস্টুন পরিদর্শন করেন। এ সময় তারা শিক্ষার্থীদের রুচিবোধ এবং একাগ্রতার প্রশংসা করেন।

এরপর তারা হেঁটে বটগাছের নীচে বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষার্থীকে পরিপূর্ণ বাউলের বেশে দেখতে পান এবং তার সাজসজ্জাতে অভিভূত হন। তারা শিক্ষার্থীর সাথে ক্যামেরাবন্দী হন এবং তাকে আন্তরিক সাধুবাদ জানান।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে শুরু হয় বাউল দলের পরিবেশনার মধ্য দিয়ে। পরবর্তীকালে তারুণ্য নির্ভর লোকগানের দল পিনকোড এবং পুনরুত্থান তাদের লোকগীতি পরিবেশনা করে। সবার শেষে অনুষ্ঠিত হয় চিত্রাঙ্কন এবং ট্রেজার হান্ট প্রতিযোগিতা। এর মাধ্যমেই শেষ হয় ফোক ফেস্ট এর প্রথম দিনের আনুষ্ঠানিকতা।

 

ফেস্টের দ্বিতীয় দিন শুরু হয় আধুনিক তারুণ্যের পরিচিত জনপ্রিয় গানের দল একতারার পরিবেশনার মধ্য দিয়ে। পরবর্তীতে পর্যায়ক্রমে লোক গানের দল পঞ্চবর্গ ও বাউলদলের পরিবেশনা অনুষ্ঠানকে করে তুলে উৎসবমুখর। দিনের মধ্যভাগে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও ট্রেজার হান্ট প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানের শেষ অংশে কাঙ্ক্ষিত জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী শায়ান চৌধুরী অর্ণব এর পরিবেশনা বিইউপি ফোক ফেস্ট ২০১৯ কে এনে দেয় পরিপূর্ণতা। এই সময়ে বিইউপি প্রাঙ্গন ছিল দর্শকে ভরপুর।

বিইউপি কালচারাল ফোরামের প্রেসিডেন্ট তাহের রহমান বলেন, বিইউপি সিএফ সর্বদাই চেষ্টা করে সংস্কৃতিকে লালন করতে। এই ধারা ভবিষ্যতে অব্যাহত রাখার আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

ঢাকাটাইমস/১৬সেপ্টেম্বর/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :