‘মহাকবি আলাওল অবিস্মরণীয় হয়ে আছেন’

ঢাকাটাইমস ডেস্ক
| আপডেট : ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২০:৪৪ | প্রকাশিত : ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২০:৪২

কক্সবাজারে রামু লেখক ফোরামের উদ্যোগে ‘বাংলা সাহিত্যে মহাকবি আলাওল’ শীর্ষক সাহিত্য আসর অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকালে অনুষ্ঠিত এ সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি হাফেজ মুহাম্মদ আবুল মঞ্জুর।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আহমদ ছৈয়দ ফরমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সাহিত্য আসরে প্রধান আলোচক ছিলেন গবেষক মাওলানা আ. হ. ম নুরুল কবির হিলালী। প্রধান আলোচকের প্রবন্ধের ওপর মুখ্য আলোচনা করেন লেখক ও গবেষক আখতারুল আলম।

এছাড়াও আলোচনায় অংশ নেন সাহিত্যানুরাগী আসাদুজ্জামান, উপদেষ্টা মাওলানা আতাউর রহমান, মাদ্রাসা শিক্ষক মুহাম্মদ সাইফুল্লাহ, সহ-সভাপতি হাফেজ মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, অর্থ সম্পাদক মুহাম্মদ দিদারুল আলম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাফেজ জায়নুল আবেদীন প্রমুখ।

সাহিত্য আসরে উপস্থাপিত প্রবন্ধে বলা হয়, আলাওল মধ্যযুগের একজন শ্রেষ্ঠ কবি। ড. মুহাম্মদ শহীদুল্লাহর মতে-“মধ্য যুগে বাঙালি কবিদের মধ্যে আলাওলের স্থান উচ্চে, তার সমকক্ষ বহুভাষাবিদ কবি সেই যুগে আর ছিলেন না।

কবি আলাওলের জন্ম আনুমানিক ১৫৯৭ ইংরেজিতে। তার পিতা ফতেহাবাদ মজলিশ কুতুবের অমাত্য ছিলেন। তিনি তার পিতার সাথে জলপথে রোসাঙ্গ যাচ্ছিলেন। কিন্তু পথিমধ্যে পর্তুগিজ জলদস্যুরা তাদের উপর আক্রমণ করে। তার পিতাসহ অন্যরা মৃত্যুবরণ করলেও ভাগ্যক্রমে বেঁচে যান আলাওল। ইতিহাস থেকে জানা যায় তখন শুধু চট্টগ্রামই নয় সমগ্র পূর্ববাংলার জলপথে পর্তুগিজ জলদস্যুদের হানা ছিল নিয়মিত। এরপর রোসাঙ্গ (আরাকান) রাজসভায় আশ্রয় লাভ করেন আলাওল। রোসাঙ্গ রাজ্যের প্রধান অমাত্য মাগন ঠাকুর ছিলেন আলাওলের প্রধান পৃষ্ঠপোষক। তার আদেশ ও অনুরোধে কবি দুটি কাব্য রচনা করেন। ‘পদ্মাবতী’ ও ‘সয়ফুল মুলুক বদিউজ্জমাল’। কবি আলাওলের জীবনেও অকস্মাৎ এক ট্রাজেডি হাজির হয়। মির্জ্জা নামক এক খারাপ লোকের অপবাদে আলাওল কারাগারে বন্দি হন। কিন্তু খুব দ্রুতই রাজা তার ভুল বুঝতে পেরে আলাওলকে সসম্মানে মুক্তি প্রদান করেন। শুধু তাই নয় তাকে কাব্য সাধনা করতে অনুপ্রাণিত করেন।

কবি আবার নতুন করে কাব্য চর্চ্চা শুরু করেন। মাগন ঠাকুরের মৃত্যুর পর রোসাঙ্গ রাজার সৈন্যাধ্যক্ষ সৈয়দ মুসা তাকে আশ্রয় দান করেন। সৈয়দ মুসা কাব্য রসিক ও ধার্মিক ছিলেন। তার অনুরোধ রক্ষা করতে কবি পুনরায় কাব্য চর্চায় মন দেন। শেষে সয়ফুল মুলুক রচনা শেষ করেন। সর্বোপরি বাংলা সাহিত্য মহাকবি আলাওল নতুনভাবে প্রাণসঞ্চার করে অবিস্মরণীয় হয়ে আছেন।

(ঢাকাটাইমস/২১সেপ্টেম্বর/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

সাহিত্য বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :