‘আগামীতে নির্বাচন নাও করতে পারি’

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ২১:৩৮

আগামীতে নির্বাচন আমি নাও করতে পারেন বলে জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ একেএম শামীম ওসমান। বলেন, ‘রাজনীতিকে আমি ব্যবসা বা ধান্ধা হিসেবে নেইনি। আমি বহুরূপী রাজনীতি করি না। যা বলব পরিষ্কারভাবে বলব। আমি যখন বিদায় নেব, মানুষ বলবে তুমি যেও না, এটাই আমার বড় পাওয়া। আগামীতে নির্বাচন আমি নাও করতে পারি। আমি মানুষের জন্য কিছু করতে চাই। আমার লক্ষ্য, আমি মরে গেলে মানুষ যেন আমার জন্য কাঁদে।’

বৃহস্পতিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ সরকারি তোলারাম কলেজের নবীণবরণ উৎসবে তিনি এসব কথা বলেন।

স্থানীয় দৈনিক পত্রিকার কঠোর সমালোচনা করে শামীম ওসমান বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জে কিছু লোকাল পত্রিকা আছে, দেওয়ালে ছাপে। পত্রিকা আবার দেওয়ালে ছাপে নাকি? এরা নাকি জামায়াত, মন্ত্রী-মিনিস্টারের থেকে পয়সা পায়। আমি এসব পত্রিকা পড়িও না। আমার নাম, আমার বড় ছবি দিয়ে নানান নিউজ করে। আমার নামে হেডলাইন দিয়ে পত্রিকা চলে, চালাও আপত্তি নাই। রয়্যালিটি দেও, বিভিন্ন পোজ দিয়ে ছবি দেই। আমারে না দিলেও তোলারাম কলেজের ১০টা গরিব ছাত্রের লেখাপড়ার পয়সা দিও। ব্ল্যাকমেইলিং করে মানুষের কাছে সম্মানিত হতে পারবেন না। মানুষ এই ব্ল্যাকমেইলারদের সামনে না বললেও পেছনে বলে হলুদ সাংবাদিক। এটা একটা সাংবাদিকদের জন্য গালি। আমাকে আক্রমণ করেন, মানুষের দুর্ভোগ নিয়ে খবর করেন। আমরা এতে শ্রদ্ধাশীল হব, সেটা না করে উল্টাপাল্টা খবর লিখেন।’

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ‘আমাকে কিছু ঘটনা চিন্তিত করে তুলেছে। নারায়ণগঞ্জে কিছু কাজ করছি, তোমাদের সাপোর্ট চাই। কিন্তু রাজনীতি করতে হবে এমন না। রাজনীতি করে কারো হাতের হাতিয়ার হইও না। তবে সজাগ থেক- প্রতিবাদ করো। আমি পারি না প্রতিবাদ করতে, তুমি তো পার।’

সরকারি তোলারাম কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর বেলা রানী সিংহের সভাপতিত্বে এবং সরকারি তোলারাম কলেজ শাখা ও মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান রিয়াদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন- শামীম ওসমানের সহধর্মিনী নারায়ণগঞ্জ জেলা মহিলা সংস্থার চেয়্যারম্যান সালমা ওসমান লিপি।

আরোও উপস্থিত ছিলেন- ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শওকত আলী, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইয়াসিন মিয়া, তোলারাম কলেজ শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক জীবন কৃষ্ণ মোদক, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রধান প্রফেসর নজমুল হুদা, মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহ্ নিজাম, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর সোহেল আলী, মহানগর কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান লিটন, মহানগর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন সাজনু, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রফেসর শিরীন বেগম, মহানগরের সভাপতি ইসরাত জাহান স্মৃতি, মহানগর যুব মহিলা লীগের আহ্বায়ক সুইটি ইয়াসমিন, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আজিজুর রহমান আজিজ ও সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসমাঈল রাফেল প্রধান প্রমুখ।

(ঢাকাটাইমস/১৭অক্টোবর/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :