বাংলাদেশে ‘পাবজি গেম’ বন্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক
| আপডেট : ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ২১:৪১ | প্রকাশিত : ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ১৭:৩৭

অনলাইনভিত্তিক গেম প্লেয়ার আননোনস ব্যাটলগ্রাউন্ডস যেটি পাবজি নামে জনপ্রিয়, সেটি বাংলাদেশে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। অল্পদিনেই সাড়া জাগানো পাবজির নানা নেতিবাচক দিক বিবেচনায় নিয়ে গেমটি বাংলাদেশে বন্ধ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম বিভাগ।

শুক্রবার সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম বিভাগের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (এডিসি) মো. নাজমুল ইসলাম সুমন তার ফেসবুক পেজে এক স্ট্যাটাসে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি লিখেছেন, ‘আমরা সরকারিভাবে শুধু মাত্র সাধারণ নাগরিকদের জন্যই নাগরিকদের মতামতের ভিত্তিতেই পাবজি গেমের নানা নেতিবাচক সাইকোসোশ্যাল প্রাযুক্তিক প্রভাবের কারনে এই গেইম বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি, এতে সরকারের ভিন্ন কোন উদ্দেশ্য নেই। সিদ্ধান্ত কতটুকু যৌক্তিক হয়েছে সেটা সমাজের বিভিন্ন এন্টিটি ঠিক করবে। যুক্তির মাধ্যমে কিছু একাডেমিক আলোচনার আবহ তৈরি হতেই পারে, তবে ভিন্নমতকে সবসময়ই স্বাগত জানাই।’

তার স্ট্যাটাসটি ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম বিভাগের ভ্যারিফাইড ফেসবুকে পেজে শেয়ার করা হয়েছে। স্ট্যাটাসটির নিচে ছয় শতাধিক কমেন্টে এই গেমের পক্ষে-বিপক্ষে নানা মন্তব্য দেখা গেছে।

এদিকে পাবজি গেম বন্ধের পর বিটিআরসির ফেসবুকে পেজে গেমটির পক্ষে-বিপক্ষে নানা মন্তব্য আসছে অনেকের। আবার কেউ কেউ পেজটিকে এক তারকার মাধ্যমে অভিযোগ করছেন। এর ফলে শুক্রবার বিকাল পাঁচটায় পেজটির রেটিং ১ দশমিক ৭- এ নেমে এসেছে।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে গুগল প্লে-স্টোর ও অ্যাপল অ্যাপসে যুক্ত হয় পাবজি গেমটি। এরপর ছড়িয়ে পড়ে বিশ্বব্যাপী। দুই বছরের মধ্যে গেমটি প্রায় ১০ কোটিরও বেশি ডাউনলোড করা হয়েছে। একইসঙ্গে পাবজি মোবাইল লাইটও ১০ লাখের বেশিবার ডাউনলোড করা হয়েছে।

বিশে^র অনেক দেশের মতো বাংলাদেশেও তরুণ সমাজের একটি বড় অংশ এই গেমে আসক্ত হয়ে পড়ে। এক সময় এই আসক্তি পরিণত হয় নেশায়। যা নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে অনলাইনে নিমগ্ন তারুণ্যের ওপর।

পাবজির ক্ষতিকর দিক বিবেচনায় নিয়ে এরইমধ্যে বেশ কয়েকটি দেশ গেমটি নিষিদ্ধ করেছে। সবশেষ গত ১৩ এপ্রিল নিষিদ্ধ করে নেপাল। ভারতের গুজরাট রাজ্য সরকারও এই গেম খেলার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। এমনকি পাবজি খেলার কারণে পুলিশের হাতে আটকও হয়েছে এ রাজ্যের কয়েকজন।

(ঢাকাটাইমস/১৮অক্টোবর/কারই/ডিএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :