আনন্দবাজার সম্পাদক অনির্বাণ চট্টোপাধ্যায়ের পদত্যাগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ৩১ মে ২০২০, ২০:০৮ | প্রকাশিত : ৩১ মে ২০২০, ১৯:৫০

ভারতের সর্বাধিক প্রচারিত বাংলা দৈনিক আনন্দবাজারের সম্পাদক পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন অনির্বাণ চট্টোপাধ্যায়। শনিবার রাতে তিনি নিজ দায়িত্ব থেকে ইস্তফা দেন। তবে কেন তিনি সরে গেলেন, কারণ এখনো ধোঁয়াশাই রয়েছে। কলকাতা ভিত্তিক গণমাধ্যম সূত্রে এ তথ্য মিলেছে।

যদিও দেশটির গণমাধ্যমগুলো বলছে, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের খবর প্রকাশের ব্যাপারে সম্পাদকীয় নীতির অনমনীয় মনোভাবই এর পেছনে দায়ী। এনিয়ে সম্পাদকের সঙ্গে সরকারের মনকষাকষিও চলছিল।

কলকাতা টাইমস২৪ এর একটি খবরে বলা হয়েছে, শনিবার রাত থেকেই অনির্বাণ চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেপ্তার করা হতে পারে বলে গুঞ্জন ছিল। রাতে তাকে কলকাতা শহরের হেয়ার স্ট্রিট থানা থেকে ডাকা হয়েছিল। এই সব জল্পনার মাঝেই ইস্তফা দিয়েছেন জনপ্রিয় বাংলা দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকার সম্পাদক অনির্বাণ চট্টোপাধ্যায়। তবে কী কারণে তাঁকে থানায় ডাকা হয়েছিল সে বিষয়ে কিছুই জানাতে পারেনি দেশটির গণমাধ্যমগুলো।

অনির্বাণ চট্টোপাধ্যায় সরে যাওয়া স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠেছে নতুন সম্পাদক কে হচ্ছেন? মনে করা হচ্ছে, নতুন সম্পাদক হবেন আনন্দবাজারের বর্তমান বার্তা সম্পাদক ঈশানী দত্ত রায়। এর সঙ্গে রয়েছে এবিপি আনন্দের সুমন দে-এর নামও। যিনি সম্পাদক হওয়ার দৌঁড়ে রয়েছেন। একই সঙ্গে উঠে আসছে সেমন্তী দে-এর নাম। তবে কে হবেন সম্পাদক সে বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত এখনও নেওয়া হয়নি।

প্রসঙ্গত শুক্রবার কলকাতার বামনেতা সূর্যকান্ত মিশ্রের টুইটবার্তায় গুজব ছড়ায় যে গ্রেপ্তার হয়েছেন আনন্দবাজারের সম্পাদক।টুইটে তিনি লিখেছিলেন, ‘যদি বিজেপি-কে খুশী করার জন্য আনন্দ বাজার পত্রিকা সম্পাদককে গ্রেপ্তার করা হয় তাহলে বুঝতে হবে আমাদের রাজ্য ও দেশের সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতার ওপর আক্রমণ আরও তীব্রতর হবে।মুখ্যমন্ত্রীও তার অংশীদার হলে বুঝতে হবে তিনি পুরোপুরি বিজেপির কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন।এটা কি ঠিক?’

অনির্বাণ চট্টোপাধ্যায় এর আগে রবিবাসরীয়সহ বিভিন্ন ক্রোড়পত্র ও বিশেষ সংখ্যারও দায়িত্ব পালন করেন। কলকাতা প্রেসিডেন্সি কলেজ থেকে অর্থনীতিতে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নেওয়ার পর তিনি ১৯৮৩ সালে আনন্দবাজার–এ কর্মজীবন শুরু করেন। অর্থনৈতিক উন্নয়ন বিষয়ে তাঁর নিয়মিত কলাম বেশ পাঠক প্রিয়।

(ঢাকাটাইমস/৩১মে/এইচএফ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত