চার হাসপাতাল পেল ২৮ হাজার পিপিই

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৩ জুন ২০২০, ২০:০৪

বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি ও সুইস রেড ক্রসের যৌথ উদ্যোগে বহুজাতিক কোম্পানি নোভারটিস বাংলাদেশের সহযোগিতায় করোনা চিকিৎসায় নির্ধারিত রাজধানীর চারটি হাসপাতালকে প্রায় দুই কোটি ২৭ লাখ টাকা সমমূল্যের ২৮ হাজার সেট ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রী বা পিপিই প্রদান করা হয়েছে।

হাসপাতালগুলো হলো- হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, কুয়েত বাংলাদেশ ফেন্ড্রশিপ সরকারি হাসপাতাল, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল।

বুধবার সোসাইটির জাতীয় সদর দপ্তরের ট্রেনিং রুমে এই পিপিই হস্তান্তর অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

পিপিই হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সোসাইটির ভাইস চেয়ারম্যান ও আইএফআরসির গভার্নিং বোর্ডের সদস্য প্রফেসর ডা. মো. হাবিবে মিল্লাত।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সোসাইটির মহাসচিব মো. ফিরোজ সালাহ্ উদ্দিন, উপ-মহাসচিব মো. রফিকুল ইসলাম, সুইস রেড ক্রস বাংলাদেশের কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ মি. অমিতাভ শর্মা, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জামিল আহমেদ, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন ও কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালের পরিচালক ডা. সারওয়ার উল আলম প্রমূখ।

অনুষ্ঠান শেষে সোসাইটির ভাইস চেয়ারম্যান হাবিবে মিল্লাত চারটি কোভিড-১৯ হাসপাতালের পরিচালকদের কাছে চিকিৎসক ও অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য ব্যক্তিগত স্বাস্থ্য সুরক্ষা উপকরণ-পিপিই হস্তান্তর করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে হাবিবে মিল্লাত বলেন, ‘করোনা সংকট মোকাবিলায় শুরু থেকেই সরকারের নেয়া পদক্ষেপগুলোকে সর্বাত্মকভাবে সহায়তা দিয়ে আসছে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি। সোসাইটি দেশের জনগণের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতকরণে করোনাভাইরাসে আকক্রান্তদের চিকিৎসার সুবিধার্থে হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালকে কোভিড-১৯ হাসপাতাল হিসেবে রূপান্তর করা হয়েছে।’

করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের চিকিৎসায় নিয়োজিত স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য ব্যক্তিগত স্বাস্থ্য সুরক্ষা উপকরণ-পিপিই দিয়ে সহযোগিতা করায় নোভারটিস বাংলাদেশ ও সুইস রেড ক্রস বাংলাদেশ কান্ট্রি অফিসকে সোসাইটির পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানান হাবিবে মিল্লাত।

সুইস রেড ক্রসের কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ অমিতাভ শর্মা বলেন, ‘করোনা মোকাবিলায় ফ্রন্টলাইনার্স হিসেবে দায়িত্ব পালনকারী চিকিৎসক ও অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মীদের সহায়তায় অংশীদার হতে পেরে সুইস রেড ক্রস আনন্দিত। এই কাজে সুইস রেড ক্রস-বাংলাদেশ কান্ট্রি অফিসকে সম্পৃক্ত করায় বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি ও নোভারটিস- বাংলাদেশকে ধন্যবাদ জানাই।’

(ঢাকাটাইমস/০৩জুন/এনআই/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :