'বাবা পেতেন প্রশংসা, বক্সঅফিসে চলত সিক্সপ্যাক নায়কদের ছবিই'

বিনোদন ডেস্ক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ০৯ জুলাই ২০২০, ০৯:০৮

সম্প্রতি গত হয়েছেন বলিউড অভিনেতা ইরফান খান। গত ২৯ এপ্রিল মাত্র ৫২ বছর বয়সে ক্যানসারের কাছে হার মেনে পৃথিবী থেকে বিদায় নিয়েছেন তিনি। তার শোক স্মৃতি বলিউড ভুলতে শুরু করলেও তার ছেলে বাবিল খান বাবাকে ভুলতে পারছেন না। কখনও ষন্ত্রণা, কখনও আক্ষেপ, কখনও কষ্ট, কখনও বা রাগ– প্রতি পলে ঝরে পড়ছে কিশোর মনে।

বাবিল খান বারবার বাবাকে নিয়ে লিখছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। বাবার ভালবাসার কথা মনে করে ভেঙে পড়ছেন তিনি। সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামে ইরফান খানের কিছু পুরনো ছবি শেয়ার করে একটি লম্বা পোস্ট লিখেছেন বাবিল। তাতেই তার অভিযোগ, 'সুশান্তের মৃত্যুর পর বলিউডের পলিটিক্স নিয়ে অনেক কথা হচ্ছে। কিন্তু এর জন্য তো আমরাই দায়ী। আমার বাবার অভিনয় প্রশংসিত হলেও ওর ছবি হিট করত না। সিক্স প্যাকওয়ালা নায়কদের ছবিই হিট করত'।

ইরফান চলে যাওয়ার পরে তার স্ত্রী সুতপা শিকদার এবং ছেলে বাবিল ইরফান খানের স্মৃতিতে নানা কথা শেয়ার করেছেন বেশ কয়েক বার। তবে আচমকা বাবিল যে বলিউড নিয়ে এমন দীর্ঘ সমালোচনা করবেন, এত স্পষ্ট ভাষায় মতামত রাখবেন, তা হয়তো অনেকেই আশা করেননি।

বাবিলের ওই ইনস্টাগ্রাম পোস্টের একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে, বাবার কোলে ছোট্ট বাবিল। আর একটি ছবিতে নিজের প্রিয় পোষ্যকে নিয়ে শুয়ে রয়েছেন ইরফান। এই ছবি দু’টি শেয়ার করে বাবিল লিখেছেন, 'সিনেমার ছাত্র হিসেবে আমার বাবা আমাকে একজন প্রথমেই যে শিক্ষাটা দিয়েছিলেন তা হল, বলিউডে আমাকে নিজেকে প্রমাণ করতে হবে কোনো কিছুর আশা না করেই। বাবা তাই করেছিলেন। ৬০ থেকে ৯০ দশক পর্যন্ত বলিউড ছবির সমাদর ছিল না পৃথিবীতে। তার একটা কারণ ছিল আমরা নতুনকে সহজে মানতে পারতাম না'।

বাবিল লিখেছেন, 'যেমন আমার বাবা কত ভাল ভাল কাজ করেছেন, অন্য ধারার ছবি করেছেন। তার অভিনয় প্রশংসিতও হয়েছে। কিন্তু বক্স অফিসে চলেনি। সেখানে সকলের মন জিতে নিয়েছেন সিক্স প্যাকের হিরোরা। তাদের ছবি দেখে সুপারহিট করেছি আমরাই। আসলে আমরা অবাস্তব জিনিস পছন্দ করি। আমরা বাস্তবের মুখোমুখি হতে ভয় পাই। সুশান্তের মৃত্যুর পরে বলিউডের যে পলিটিক্স নিয়ে কথা হচ্ছে, এর জন্যও তো আমরাই দায়ী। কোনও কিছুকে আকড়ে ধরে না থেকে নতুনকে মেনে নিতে হবে, উৎসাহ দিতে হবে।'

তার তীব্র শ্লেষ, 'আপনাকে বুঝতে হবে বক্সঅফিসে ফ্লপ মানে বেশিরভাগ লগ্নি আপনার উপর থেকে সরে যাচ্ছে। চলে যাচ্ছে সেই সিক্স প্যাকের বিজয়ীদের কাছে। তবে এখন একটা পরিবর্তন আসছে বাতাসে। নতুন প্রজন্ম আরও উদার। যদি কোথাও কোনো ইতিবাচক পরিবর্তন আসে তবে তাকে সাদরে আমন্ত্রণ করব আমরা।'

কয়েক দিন আগে ইরফানের ছেলে বাবিল সুশান্তের মৃত্যু নিয়েও একটি পোস্ট করেছিলেন সামাজিক মাধ্যমে। লিখেছিলেন, 'হিন্দি ছবির দুনিয়ায় এমন প্রতিভা সত্যিই বিরল যিনি কোয়ান্টাম ফিজিক্স বোঝেন, কবিতা পড়েন, বাচ্চাদের নাসায় পাঠাতে চান, জ্যোতির্বিদ্যা ভালবাসেন সেই সঙ্গে যোগ এবং আধ্যাত্মবাদেও আগ্রহী।'

১৯৬৭ সালে রাজস্থানের এক পাঠান পরিবারে জন্মেছিলেন ইরফান খান। ছোট থেকেই অভিনয়ের প্রতি আলাদা ভালবাসা ছিল তার। দিল্লির ন্যাশনাল স্কুল অফ ড্রামাতে নাটকের শিক্ষা নিয়েছিলেন। ইরফানের প্রথম সিনেমা ‘সালাম বম্বে’ অস্কারের জন্য নমিনেশন পেয়েছিল। সব সময় একটু অন্যধারার কাজ করেছেন তিনি। তিনি কখনই প্রচলিত চেহারার হিরো ছিলেন না।

ঢাকা টাইমস/০৯জুলাই/একে

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :