লক্ষ্মীপুরে ১২ ইউনিয়ন প্লাবিত, সড়ক ভেঙে ফেরি চলাচল বন্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক, লক্ষ্মীপুর
| আপডেট : ০৬ আগস্ট ২০২০, ০৭:১৪ | প্রকাশিত : ০৫ আগস্ট ২০২০, ২৩:৪৫

উত্তর ও মধ্যাঞ্চলের বন্যার পানির চাপ ও মেঘনা নদীর পানি অস্বাভাবিক বৃদ্ধির কারণে লক্ষ্মীপুরের রামগতি ও কমলনগর উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন প্লাবিত হয়েছে। পানির তোড়ে বুধবার বিকালে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার মজুচৌধুরীরহাট ফেরি ঘাটের সড়ক ভেঙে নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। ফলে অনিদিষ্টকালের জন্য বন্ধ লক্ষ্মীপুর-ভোলা নৌ-রুটের ফেরি চলাচল।

পানিবন্দি হয়ে দুর্ভোগে পড়েছেন তিন উপজেলার লক্ষাধিক মানুষ। ভেসে গেছে পুকুর ও ঘেরের মাছ। পানির নিচে তলিয়ে রয়েছে অন্তত ৫ হাজার হেক্টর আমনের আবাদ ও বীজতলা।

স্থানীয়রা জানায়, বন্যার পানির চাপে হঠাৎ করে ১২টি ইউনিয়নের ৫০টি গ্রাম প্লাবিত হয়। প্লাবিত হওয়া ইউনিয়নগুলো হলো- রামগতির বড়খেরী, চরআলগী, চররমিজ, চরআবদুল্লাহ, চরআলেকজান্ডার, কমলনগর উপজেলার সাহেবেরহাট, পাটওয়ারীরহাট, চরকালকিনি, চরফলকন, চরলরেন্স, চরমার্টিন ও সদর উপজেলার চরমনী মোহন।

পানিবন্দি হয়ে পড়া মানুষ দুর্ভোগে পড়েছেন। এছাড়া ফেরিঘাটের সড়ক নদীগর্ভে বিলীন হওয়ায় ফেরি চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। ফলে দুই পাড়ে পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে পণ্যবাহী অনেক ট্রাক।

স্ব-স্ব উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারা বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, অস্বাভাবিক জোয়ারের পানিতে বেশ কয়েকটি ইউনিয়ন প্লাবিত হয়েছে। এতে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে লক্ষাধিক মানুষ। এছাড়া সড়ক ভেঙে যাওয়া অনিদিষ্টকালের জন্য ফেরি চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

তবে কবে নাগাদ সড়ক ঠিক করা হবে, সেটা অনিশ্চিত বলে জানান সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা। তারপরও দ্রুত জিওব্যাগ ফেলে ভাঙন রোধে কাজ করা হবে।

(ঢাকাটাইমস/৫আগস্ট/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :