প্রতিরক্ষা খাতে অতিরিক্ত ৮.৭ বিলিয়ন ডলার চায় তাইওয়ান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:০৩ | প্রকাশিত : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৫৯
ছবি: সংগৃহীত

প্রতিরক্ষা খাতে আগামী ৫ বছরে অতিরিক্ত ২৪০ বিলিয়ন তাইওয়ান ডলার (৮.৬৯ বিলিয়ন ডলার) ব্যয়ের প্রস্তাব করেছে তাইওয়ান। অতিরিক্ত এই অর্থ যেসব খাতে ব্যয় করার পরিকল্পনা করা হয়েছে তার মধ্যে নতুন ক্ষেপণাস্ত্রের বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। বলা হচ্ছে, চীন থেকে আসা ‘কঠিন হুমকি’ মোকাবেলার জন্য প্রতিরক্ষা খাত দ্রুত উন্নত করার জন্য এই প্রস্তাব আনা হয়েছে।

তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট টিসাই ইং-ওয়েন ২০১৬ সালে প্রথম ক্ষমতায় আসেন। তিনি তাইওয়ানের সশস্ত্র বাহিনীর আধুনিকায়ন করেছেন। প্রতিরক্ষা খাতে ব্যয় বৃদ্ধির বিষয়টিকে তিনি সবসময় প্রাধান্য দিয়েছেন।

আগামী ৫ বছরে তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা খাতের ব্যয় ৪৭১.৭ বিলিয়ন তাইওয়ান ডলার (১৭ বিলিয়ন ডলার) ব্যয় ধরা হয়েছে। আগামী ১ জানুয়ারি নতুন মেয়াদ শুরু হবে। এই প্রস্তাব বাস্তবায়ন করতে হলে সংসদে পাস হতে হবে। সংসদে টিসাইয়ের ক্ষমতাসীন দলের সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে। সুতরাং প্রস্তাবটি পাস হতে সমস্যা হবে না বলেই মনে করা হচ্ছে।

এক সপ্তাহ ধরে চলা মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে বৃহস্পতিবার তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘চীনের কমিউনিস্ট পার্টি জাতীয় প্রতিরক্ষা খাতে ব্যাপক হারে ব্যয় করছে। তাদের সামরিক শক্তি দ্রুতগতিতে বৃদ্ধি পাচ্ছে। আমাদের জল ও আকাশসীমায় প্রায়ই চীনের এয়ারক্রাফট ও জাহাজ ঢুকে পড়ছে। তাদের উদ্দেশ্য আমাদের আক্রমণ ও হয়রানি করা।’

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, ‘শত্রুর কাছ থেকে আসা কঠিন হুমকি মোকাবেলার জন্য তাইওয়ানের সামরিক বাহিনী প্রস্তুত হচ্ছে। দ্রুতগতিতে খুব অল্প সময়ের মধ্যে ব্যাপক হারে উন্নতমানের অস্ত্র উৎপাদন করাটা জরুরি। এই টাকা দিয়ে তাইওয়ান ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র ও যুদ্ধজাহাজসহ উন্নতমানের প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম ক্রয় করবে।’

সূত্র: আল জাজিরা

(ঢাকাটাইমস/১৬ সেপ্টেম্বর/এসইউএল)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :