যশোর শিক্ষাবোর্ডে চেক জালিয়াতিতে জড়িতদের গ্রেপ্তারে আলটিমেটাম

যশোর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৮:৩৭

যশোর শিক্ষাবোর্ডে চেক জালিয়াতির ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তার, দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশসহ ছয় দফা দাবিতে সাত দিনের আলটিমেটাম দিয়েছেন বাম গণতান্ত্রিক জোট যশোর জেলার নেতারা। অন্যথায়, বোর্ডের নয়া চেয়ারম্যানকে স্মারকলিপি ও শিক্ষাবোর্ড অফিসের সামনে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হবে বলে হুঁশিয়ারি দেয়া হয়।

মঙ্গলবার দুপুরে যশোর শহরের ভোলা ট্যাংক রোডস্থ জোটের অস্থায়ী কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন জোটের জেলা সমন্বয়ক তসলিম উর রহমান।

সংবাদ সন্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, সম্প্রতি যশোর শিক্ষাবোর্ডের কোটি কোটি টাকার দুর্নীতির খবর বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রকাশ করা হয়েছে। আমরা এই দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে আন্দোলন করে আসছি।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, ইতোমধ্যে বাম গণতান্ত্রিক জোট যশোরের জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে শিক্ষামন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ করেছে। আন্দোলনের মুখে যশোর শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান ও সচিব ওএসডি হয়েছেন। এই দুর্নীতির সঙ্গে আরও অনেকেই জড়িত বলে প্রকাশ পেয়েছে।

অনেকে স্বেচ্ছায় টাকা ফেরত দিয়েছে। অনেকে দুর্নীতির সঙ্গে জড়িতদের রক্ষার জন্য স্বাক্ষর সংগ্রহ করেছে। তারা চেক টেম্পার করে অর্থ গ্রহণ করেছে। আমরা জেনেছি, এই দুর্নীতির টাকা ঠিকাদারসহ অনেকের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ঢুকেছে। সংবাদ সম্মেলনে আরও বলা হয়, যশোর শিক্ষা বোর্ডের কর্মকর্তা, কর্মচারী ও ঠিকাদার, ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ যারাই জড়িত হোক না কেন, সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে তাদের চিহ্নিত ও জড়িতদের কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।

নেতৃবৃন্দ শিক্ষাবোর্ডের দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশ, দুর্নীতির সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তার ও বিচারে সোপর্দ, অসাধু ব্যবসায়ী ও ব্যাংক কর্মকর্তাদের গ্রেপ্তার, জড়িতদের চাকরি থেকে বরখাস্ত ও গ্রেপ্তার, দীর্ঘদিন অডিট না হওয়ার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের আইনের আওতায় আনা এবং প্রশাসনের সর্বস্তরের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার ব্যবস্থা নিশ্চিতের দাবি উত্থাপন করেন।

বক্তারা বলেন, আগামী সাত দিনের মধ্যে কার্যকর কোনো ব্যবস্থা নেওয়া না হলে ৭ ডিসেম্বর চেক টেম্পারিং ও দুর্নীতির সঙ্গে জড়িতদের বরখাস্ত ও গ্রেপ্তারের দাবিতে শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান কাছে স্মারকলিপি ও ১৩ ডিসেম্বর শিক্ষা বোর্ডের সামনে বিক্ষোভ করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জোটের কেন্দ্রীয় নেতা, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী) কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ইকবাল কবির জাহিদ, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির জেলা সভাপতি আবুল হোসেন, ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী) জেলা সভাপতি নাজিমউদ্দিন, বাসদ (মার্কসবাদী) জেলা সমন্বয়ক হাচিনুর রহমান, ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী) জেলা সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান ভিটু, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সদস্য কামাল হাসান পলাশ প্রমুখ।

(ঢাকাটাইমস/৩০নভেম্বর/কেএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :