পুঁজিবাজারে শরিয়াহ সম্মত বিনিয়োগকারী আনতে কাজ করছে আইবিএসএল

বীর সাহাবী, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৭ জুন ২০২২, ১৬:০০

ইসলামী শরিয়াহ সম্মতভাবে গ্রাহকদের পুঁজিবাজারে যুক্ত করার লক্ষ্যে কাজ করছে ইসলামী ব্যাংক সিকিউরিটিজ লিমিটেড—আইবিএসএল। ২০১০ সালে যাত্রা করা ইসলামী ব্যাংকের এই সাবসিডিয়ারি প্রতিষ্ঠান চলতি বছরে একযুগ পূর্ণ করেছে।

এই এক যুগের পথ চলা, প্রতিষ্ঠানের সার্বিক পরিস্থিতি, পুঁজিবাজারে তাদের ভূমিকা—সবমিলিয়ে ঢাকা টাইমসের সঙ্গে কথা বলেছেন আইবিএসএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মো. জাহিদুল ইসলাম। একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি তুলে ধরেছেন প্রতিষ্ঠানটির আগামীর লক্ষ্য।

ঢাকা টাইমস: কোন লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছে আইবিএসএল?

জাহিদুল ইসলাম: আইবিএসএল শরিয়াহ সম্মত প্রতিষ্ঠান। গ্রাহকদের পুঁজিবাজারে যুক্ত করার লক্ষ্য নিয়েই আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। ২০২২ সালে আমাদের একযুগ পূর্তি হয়েছে। এই দীর্ঘসময়ে আমরা চেষ্টা করেছি সকল গ্রাহকদের শরিয়াহ সম্মতভাবে পুঁজিবাজারে আনতে।

ঢাকা টাইমস: আপনারা গ্রাহক সেবায় কতটা এগিয়েছেন?

জাহিদুল ইসলাম: গ্রাহক হচ্ছে আমাদের প্রাণ। গ্রাহক সেবা প্রতিটা প্রতিষ্ঠানের জন্যই মূখ্য ব্যাপার। গ্রাহকদের সেবা যতবেশি দিতে পারব ততবেশি গ্রাহক আমাদের প্রতিষ্ঠানের প্রতি আকৃষ্ট হবে। সেক্ষেত্রে ডিজিটাল যুগে এসে আইবিএসএল সিঙ্গেল ক্লিকে গ্রাহককে সর্বোচ্চ সেবা দেওয়া নিশ্চিত করছে। গ্রাহককে ডিজিটাল মাধ্যমে অভ্যস্ত করতে কাজ করছি আমরা।

ঢাকা টাইমস: অনলাইন বেনিফিশিয়ার ওনার্স (বিও) অ্যাকাউন্ট সম্পর্কে বলুন...

জাহিদুল ইসলাম: সিডিবিএল অনলাইনে বিও অ্যাকাউন্ট নিয়ে কার্যক্রম চালাচ্ছে। আইবিএসএলও অনলাইনে বিও অ্যাকাউন্ট সেবা চালু করেছে। যাতে গ্রাহকরা সহজেই অনলাইনে বিও অ্যাকাউন্ট খুলতে পারে।

ঢাকা টাইমস: আইবিএসএলের পোর্টফলিও কেমন?

জাহিদুল ইসলাম: আইবিএসএল গ্রাহকরা ওয়েবসাইটের মাধ্যমে পোর্টফলিও দেখতে পারেন৷ প্রতিদিন লেনদেন শেষে ১ ঘণ্টার মধ্যেই তারা ই-মেইল পেয়ে যান। আপকামিং আইপিও কীভাবে আসছে, বুক বিল্ডিং না ফিক্সড প্রাইস মেথডে তা জানানো হয়। এছাড়া প্রতি বৃহস্পতিবার আমরা গ্রাহককে পোর্টফলিওর সঙ্গে মার্কেটের আপডেট দেওয়ার চেষ্টা করি।

ঢাকা টাইমস: আইবিএসএলে কারা লেনদেন করতে পারে?

জাহিদুল ইসলাম: ইসলামী ব্যাংক সিকিউরিটিজে সবাই লেনদেন করতে পারেন। ইন্টারেস্টের সঙ্গে যেসব সিকিউরিটিজ যুক্ত থাকে সেগুলো ছাড়া সব ধরনের শেয়ারই কেনাবেচা করা যায়।

ঢাকা টাইমস: ব্যাক অফিস সফটওয়্যার ব্যবহারে বিএসইসির নির্দেশনা আছে। আপনাদের বেলায় সেটির কি অবস্থা?

জাহিদুল ইসলাম: গ্রাহকের বিনিয়োগের অর্থ নিরাপত্তা দেয়ার জন্য আমরা একটি মাত্র ব্যাক অফিস সফটওয়্যার ব্যাবহার করে থাকি। কারণ একাধিক সফটওয়্যার ব্যবহার এক ধরনের অপরাধ। একটি সফটওয়্যার ব্যবহারের বিষয়ে নিয়ন্ত্রক সংস্থা যে উদ্যোগ নিয়েছে নিঃসন্দেহে তা একটি ভাল উদ্যোগ। এমন উদ্যোগ আরো আগে নেয়া উচিত ছিল।

ঢাকা টাইমস: পুঁজিবাজার নিয়ে যদি বলেন...

জাহিদুল ইসলাম: ক্যাপিটাল মার্কেট সব দেশেই আধিপত্য বিস্তার করে থাকে। একজন ব্যক্তি বা একটা প্রতিষ্ঠানকে যদি সম্পদের দিক থেকে র‍্যাংকিং করা হয় তাকে ক্যাপিটাল মার্কেটে আসতে হবে।

বাংলাদেশের ক্যাপিটাল মার্কেট অলমোস্ট ৬ লাখ কোটি টাকার মার্কেট। নতুন কমিশন আসার পরে আমরা অনেকগুলো সংশোধন পেয়েছি যা প্রত্যেকটা মার্কেটের জন্য ইতিবাচক। এটার বীজ বপন করা হয়েছে তার জন্য একটু সময় লাগবে।

ঢাকা টাইমস: পদ্মা সেতু দেশের অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারে কতোটা প্রভাব ফেলবে?

জাহিদুল ইসলাম: পদ্মা সেতু আমাদের নতুন ইকোনমিক করিডোর। আমাদের প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নের সঙ্গে আমাদের জাতিরও দাবি ছিল। ভারতের দিক চিন্তা করলে সেখানে ১২টা ইকোনমিক করিডোর আছে। আর এদিকে আমাদের ৫০ বছরে প্রথম ইকোনমিক করিডোর হয়েছে। এটির বড় একটা ইতিবাচক প্রভাব ক্যাপিটাল মার্কেটে পড়বে। এক থেকে দুই বছরের মধ্যে আমরা ফ্রন্টিয়ার মার্কেট থেকে এমার্জিং মার্কেটের দিকে যাবো।

ঢাকা টাইমস: বিনিয়োগকারীদের উদ্দেশে কিছু বলুন...

জাহিদুল ইসলাম: বিনিয়োগকারীদের উদ্দেশে বলব আপনারা একটু হলেও বিনিয়োগটা কোথায় করছেন তা নার্সিং করবেন। প্রত্যেকেই তার অ্যানুয়াল রিপোর্ট, ক্যাশ ফ্লো, ডিভিডেন্ড ইল্ড এবং প্রভিডেন্ড লস অ্যাকাউন্টগুলো রিভিউ করে তাহলে অল্প সময়ের মধ্যেই ভাল শেয়ারগুলোর একটা মুভমেন্ট আসে।

ঢাকা টাইমস: সার্বিকভাবে আইবিএসএল নিয়ে যদি বলেন...

জাহিদুল ইসলাম: বিএসইসির অনুমতি পেয়ে আমরা তিনটা বিভাগীয় শহর চট্টগ্রাম, খুলনা এবং সিলেটে দুইটা করে ডিজিটাল বুথ ও একটা করে ব্রাঞ্চ খুলেছি। শতভাগ শরিয়াহ মেনে বিনিয়োগে আগ্রহীদের অবশ্যই ইসলামী ব্যাংক সিকিউরিটিজের মাধ্যমে আসা উচিত।

আইবিএসএলের আছে স্মার্ট হিউম্যান রিসোর্স। তারা কখনোই মানুষকে মিস গাইড করে না। ভালো তথ্যের ওপর ভিত্তি করে ভালো প্রোডাক্ট কীভাবে কেনা যায় সেই পরামর্শ দিয়ে থাকে আইবিএসএল।

এছাড়া আমরা ফান্ডামেন্টাল ও টেকনিক্যাল দিক দিয়েও গ্রাহকদের সাপোর্ট দেওয়ার চেষ্টা করি। আমরা চাই গ্রাহকরা কোনভাবেই যেন পথভ্রষ্ট না হয়। ক্যাপিটাল মার্কেটে যারা আসতে চান ঢাকা টাইমসের মাধ্যমে তাদের প্রতি আমার অনুরোধ থাকবে—প্রথম পছন্দ হিসেবে ইসলামী ব্যাংক সিকিউরিটিজকেই বেছে নিন।

(ঢাকাটাইমস/২৭জুন/ডিএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

সাক্ষাৎকার বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :