রেলস্টেশনে বিশ্ববিদ্যালয়ছাত্রের প্রাণহানি, চোখের সামনে এমন মৃত্যু কী করে মেনে নেবেন বাবা-মা

নাটোর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪:১৯ | প্রকাশিত : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৩:৪৫

নাটোরের লালপুরে আবদুলপুর রেলজংশন স্টেশনে দৌড়ে ট্রেনে উঠতে গিয়ে হাসানুজ্জামান ইমতিয়াজ (২৫) নামের এক তরুণের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। ছেলের এমন মৃত্যুতে হতভম্ব ট্রেনে থাকা তার বাবা-মা। ঘটনার পর থেকে শোকে পাথর বাবা-মা কারো সঙ্গে কোনো কথা বলছেন না।

শনিবার সকাল ৭ টা ৫০ মিনিটে রাজশাহীগামী কমিউটার এক্সপ্রেস ট্রেনে কাটা পড়ে তার মৃত্যু হয়।

হাসানুজ্জামান ইমতিয়াজ রাজশাহীর বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। তার বাড়ি পাবনার ঈশ্বরদী পৌর এলাকায়। তার বাবা ইসাহক আলী পাবনা জজকোর্টের আইনজীবী।

আব্দুলপুর স্টেশন মাস্টার ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, ঈশ্বরদী থেকে ছেড়ে আসা রাজশাহীগামী কমিউটার এক্সপ্রেস ট্রেনটি সকাল ৭টা ৫০ মিনিটে লালপুরের আব্দুলপুর জংশনে দাঁড়ায়। এসময় ইমতিয়াজ পুরি খাওয়ার জন্য ট্রেন থেকে নামেন।

পুরি খাওয়ার সময় ট্রেনটি ছেড়ে দিলে দৌড়ে ট্রেনের হাতল ধরে ওঠার সময় হাত পিছলে ট্রেনের নিচে পড়ে যান ইমতিয়াজ। ট্রেনটি প্ল্যাটফর্ম ছেড়ে গেলে তার ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করা হয়। এ সময় ইমতিয়াজের মা-বাবা ট্রেনের ভেতরে বসে ছিলেন। ঘটনার পর তারা দুজন হতভম্ব হয়ে যান। এর পর থেকে তারা কারো সঙ্গে কোনো কথা বলছেন না।

আবদুলপুর রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার শেখ জিয়াউদ্দিন বলেন, রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা রেল লাইনের ওপর থেকে মৃতদেহটি সরিয়ে রেখেছে। ঘটনাটি ঈশ্বরদী রেলওয়ে থানাকে জানানো হয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/২৪সেপ্টেম্বর/এসএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :