মহালয়ার উৎসব মিলিয়ে গেল করতোয়ার জলে

নিজস্ব প্রতিবেদক ও পঞ্চগড় প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২৩:০১ | প্রকাশিত : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২২:৫৬

পঞ্চগড়ে বোদায় করতোয়া নদীতে নৌকা ডুবে শিশু ও নারীসহ অন্তত ২৪ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। এদের মধ্যে ১২ জন নারী, আট জন শিশু ও চার জন পুরুষ রয়েছে। তাদের বাড়ি পঞ্চগড় জেলার বোদা, দেবীগঞ্জ এবং ঠাকুরগাঁও জেলায়। রবিবার দুপুরে মাড়োয়া আউলিয়া ঘাটে মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এখনও ৬৩ জন নিখোঁজ রয়েছে বলে জেলা প্রশাসন। রবিবার রাত ১০টায় এ রিপোর্ট লেখার সময়ও ওই এলাকায় চলছিল শোকের মাতম। কান্নার রোল। এ ঘটনায় শোক জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মোহাম্মদ আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

জেলা প্রশাসনের কন্ট্রোল রুমের দেওয়া তথ্যমতে নৌকা ডুবে নিহতরা হলেন-পলি রানি (১৪), লক্ষ্মী রানি (২৫), শোভা রানি (২৭), প্রিয়ান্তা রানি (৫), খুকি রানি (৩৫), প্রলিমা রানি (৫৫), তারা রানি (২৪), শোনেকা রানি (৬০), ফাল্গুনি রানি (৫৫), প্রমিলা রানি (৭০), ধনবালা (৪৭), সুমিত্রা রানি (৫৭), সফলতা রানি (৪০), শিমলা রানি (৩৫), উশোষী রানি (২), তনুশ্রী রানি (২), শ্রেয়শী রানি (২), শ্যামলি রানি (৩৫), রূপালী রানি (৩৫), দীপঙ্কর (৫), অমল চন্দ্র (৩৫), নৌকার মাঝি হাসান আলী (৫২), বিমল চন্দ্র (৪৫) ও জোতিষ চন্দ্র (৫৫)।

এদিকে রবিবার রাতে জেলা প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে জানানো হয়, পঞ্চগড়ে করতোয়া নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় ৬৩ জন নিখোঁজ রয়েছেন।

এ ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে জানিয়ে স্থানীয় জেলা প্রশাসক জহুরুল ইসলাম জানান, নিহতদের প্রতিজনের পরিবারকে ২০ হাজার টাকা করে এবং আহতদের চিকিৎসার জন্য ১০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে।

বোদা উপজেলা চেয়ারম্যান মো. সোলেমান আলী জানান, ‘রাত হয়ে যাওয়ায় আপাতত উদ্ধার অভিযান স্থগিত করা হয়েছে আলোর স্বল্পতার জন্য। সকালে (সোমবার) আবার উদ্ধার অভিযান শুরু হবে।’

তদন্ত কমিটি

ঘটনার তদন্তে পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করেছে জেলা প্রশাসন। রবিবার রাতে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট দীপংকর রায়কে প্রধান করে কমিটি গঠন হয়। জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম বলেন, কমিটিকে আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

দুপুরে বোদা উপজেলার মাড়েয়া ইউনিয়নের আউলিয়ার ঘাট এলাকায় নৌকাডুবির ঘটনায় শিশু, নারীসহ ২৪ জনের লাশ উদ্ধার হয়। এরমধ্যে ১২ নারী, আট শিশু ও চার পুরুষের লাশ রয়েছে। এ ঘটনায় ৩০ জনের বেশি নিখোঁজ রয়েছেন। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিটের কর্মীরা উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করছে।

এদিকে অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাইয়ের কারণে নৌকাডুবির ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ করেছেন স্থানীয়রা।

মাড়েয়া বামনহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু আনছার মো. রেজাউল করিম বলেন, ‘মহালয়া উপলক্ষে মাড়েয়া বাজার এলাকার আউলিয়া ঘাট থেকে শ্যালো ইঞ্জিনচালিত নৌকাযোগে ৮০ জনের বেশি যাত্রী বড়শশী ইউনিয়নের বদেশ্বরী মন্দিরে (নদীর অপরপাড়ে) যাচ্ছিলেন। তবে মাঝনদীতে নৌকাটি ডুবে যায়। এ সময় কয়েকজন সাঁতরে তীরে ওঠেন। ঘটনাস্থলেই ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। স্থানীয় লোকজন ১০ জনকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পর সাত জনের মৃত্যু হয়। এখনও ৩০ জনের বেশি নিখোঁজ রয়েছেন। বাকিরা বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।’

তিনি আরও বলেন, ‘স্থানীয় নৌকার মাঝিদের সঙ্গে কথা বলে জেনেছি, মহালয়া উপলক্ষে মানুষের চাপ বেশি ছিল। প্রায় সব নৌকা বেশি করে যাত্রী নিয়ে যাচ্ছিল। দুর্ঘটনাকবলিত নৌকায় যাত্রী ধারণক্ষমতা ছিল ৩৫ থেকে ৪০ জন। সেখানে ৮০ জনের বেশি যাত্রী নেওয়া হয়েছিল। অতিরিক্ত যাত্রী তোলায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।’

বোদা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. সোলেমান আলী বলেন, ‘উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। উদ্ধার কার্যক্রম চলছে। লাশ শনাক্তের প্রক্রিয়া চলছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মৃতদের পরিবারকে ২০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে।’

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম বলেন, ‘নৌকাটিতে দ্বিগুণ যাত্রী ছিল। তবে ফায়ার সার্ভিসের অভিযান শেষ না হলে প্রকৃত মৃত্যুর সংখ্যা জানানো যাচ্ছে না। এ পর্যন্ত ২৪ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তাৎক্ষণিকভাবে মৃতদের পরিবারকে ২০ হাজার করে এবং আহতদের প্রত্যেককে ১০ হাজার করে টাকা দেওয়া হবে।’

রাষ্ট্রপতি প্রধানমন্ত্রীর শোক

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় করতোয়া নদীতে নৌকা ডুবে প্রাণহানির ঘটনায় রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। রবিবার পৃথক বার্তায় এ শোক প্রকাশ করেন তারা।

রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী নিহতদের বিদেহী আত্মার শান্তি ও মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

(ঢাকাটাইমস/২৫সেপ্টেম্বর/আরআর/এমএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :