শেষ ৩ মিনিটের জোড়া গোলে ওয়েলসকে হারাল ইরান

ক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকা টাইমস
| আপডেট : ২৫ নভেম্বর ২০২২, ১৮:৩৪ | প্রকাশিত : ২৫ নভেম্বর ২০২২, ১৮:০৪

কাতার বিশ্বকাপের ৬ষ্ঠ দিনের প্রথম খেলায় শেষ ৩ মিনিটের জোড়া গোলে ওয়েলসকে হারিয়েছে ইরান। নাটকীয়তায় মোড়ানো ম্যাচটি ২-০ তে জিতে নিয়েছে এশিয়ার ফুটবল শক্তিধর দেশটি।

শুক্রবার বাংলাদেশ সময় বিকাল ৪টায় আহমেদ বিন আলি স্টেডিয়ামে মাঠে নামে ইরান ও ওয়েলস।

প্রথমার্ধে গোলের দেখা পায়নি ইরান-ওয়েলস। দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নেমে গোল করতে মরিয়া দুদল বেশ কয়েকটি আক্রমণ ও পাল্টা আক্রমণ করে। তবে খেলার ৮৩ মিনিটে ম্যাচটি নাটকীয়তায় মোড় নেয়। ওয়েলসের ফাঁকা ডিফেন্সে মেহেদি তারেমি বল নিয়ে ছুটলে গোলরক্ষক হেনেসি ডি বক্সের বাইরে এসে তাকে ফাউল করেন। প্রথমে রেফারি গোলরক্ষক হেনেসি হলুদ কার্ড দেখালেও পরে ভিআর সিদ্ধান্তে তাকে লাল কার্ড দিয়ে মাঠের বাইরে পাঠিয়ে দেন। পরে অবশ্য ফ্রি কিকে সুযোগ কাজে লাগাতে পারেনি।

পরে ম্যাচের অতিরিক্ত মিনিটে বাজিমাত করে ইরান। খেলার ৫ মিনিট বাকি থাকতে পরপর দুটি গোল করে ওয়েলসকে উড়িয়ে দেয় ইরান। মূলত লাল কার্ড পেয়ে গোলরক্ষের বিদায়ের পর ওয়েলস দুর্গ দুর্বল হয়ে পড়ে। এ সুযোগটিই কাজে লাগায় ইরান।

এদিন ম্যাচের শুরুতেই মাঠে দাপট দেখায় ওয়েলসের ফুটবলাররা। ম্যাচের ৩ মিনিটে মিডফিল্ডার উইলসনের পাসে ডি বক্সের বাইরে থেকে গোল বরাবর লম্বা কিক নেন উইলিয়ামস। কিন্তু এ যাত্রায় বেঁচে যায় ইরান। বলটি গোলবারের উপর দিয়ে চলে যায়।

বেশ কয়েকবার ইরানের ডিফেন্স ভেঙে আক্রমণ করে ওয়েলস। এর মধ্যে ম্যাচের ১২ মিনিটে দুর্দান্ত একটু সুযোগ মিস হয় তাদের। ইরানের গোলরক্ষক সোসাইন হোসেইনির প্রতিরোধে গোল বক্সের ভেতরে স্ট্রাইকার মুরের চেষ্টা ব্যর্থ হয়ে যায়।

ম্যাচে ওয়েলসের দাপটের মুখে ১৫ মিনিটে উল্টো গোল দিয়ে বসে ইরান। তবে ভিআর সিদ্ধান্তে গোলটি বাতিল করেন রেফারি। গোলের জন্য মুখিয়ে থাকা ইরান ম্যাচের ২২ মিনিটে একটি ফ্রি কিক পায়। তবে ইরানি স্ট্রাইকার আজমাউন গোলবক্সের ভেতর মাথায় বল ছুঁয়ে দিলেও বারের দেখা পায়নি।

পরে ৩১ মিনিটের মাথায় ইরানের মিড ফিল্ডার এজাতোলাহির ফাউল থেকে ফ্রি কিক পায় ওয়েলস। তবে গ্যারেথ বেলের কিক ইরানি ডিফেন্সে আটকে যায়। নির্ধারিত ৪৫ মিনিট ও অতিরিক্ত চার মিনিটে গোলের দেখা পায়নি দুদল।

দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নেমে গোল করতে মরিয়া দুদল বেশ কয়েকটি আক্রমণ ও পাল্টা আক্রমণ করে। তবে ম্যাচে ৬০ মিনিটেও কেউ জালে বল জড়াতে পারেনি। তবে ম্যাচের ৭৩ মিনিটে দারুণ একটি কর্ণার কিক থেকে সুযোগ তৈরি হয়েছিল ইরানের সামনে। মিডিফিল্ডার আলি গুলিজাদেহের করা কর্ণার কিক ওয়েলসের ডিফেন্স ভেদ করতে পারেনি।

এরপর ৮৩ মিনিটে ম্যাচের নাটকীয় মোড় নেয় ম্যাচ। ওয়েলসের ফাঁকা ডিফেন্সে মেহেদি তারেমি বল নিয়ে ছুটলে গোলরক্ষক হেনেসি ডি বক্সের বাইরে এসে তাকে ফাউল করেন। প্রথমে রেফারি গোলরক্ষক হেনেসি হলুদ কার্ড দেখালেও পরে ভিআর সিদ্ধান্তে তাকে লাল কার্ড দিয়ে মাঠের বাইরে পাঠিয়ে দেন। পরে অবশ্য ফ্রি কিকে সুযোগ কাজে লাগাতে পারেনি।

তবে ম্যাচ যখন শেষ অতিরিক্ত মিনিটে গড়ায় তখন উন্মাদনার পারদ বাড়ে কয়েকগুণ। অতিরিক্ত ৮ মিনিটের মাথায় ওয়েলসের জালে বল পাঠান চেশমি। পরে উড়ন্ত ইরান শেষ ২ মিনিটের মাথায় আরো একটি গোল করে ইরান। শেষ গোলটি করেন ইরানি ডিফেন্ডার রামিন রেজাইয়েন। তার গোলের ২ মিনিট পর শেষ বাঁশি বাজান রেফারি। এতে ২-০ গোলের দুর্দান্ত জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ইরান।