ভূমিকম্প: প্রতি দশ মিনিটে একটি লাশ সিরিয়ায়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৯:০১ | প্রকাশিত : ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৮:৩৩

সোমবার সকালে তুরস্কের দক্ষিণাঞ্চলের ১০টি প্রদেশে এবং প্রতিবেশী সিরিয়ায় একটি শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। ঘটনায় তুরস্কের সীমান্তের মধ্যে কমপক্ষে ১০১৪ জন এবং যুদ্ধ-বিধ্বস্ত সিরিয়ায় ৫৯২ জনের বেশি লোক নিহত হয়েছে।

ভূমিকম্পের ফলে এখন পর্যন্ত দুই হাজারের বেশি ভবন ধসে পড়েছে। একেকটা ভবন পরিণত হয়েছে লাশের স্তূপে। সিরিয়ার ধ্বংসস্তূপ থেকে কিছুক্ষণ পরপরই উদ্ধার করা হচ্ছে মৃতদেহ। প্রতি দশ মিনিট অন্তর মিলছে একেকটা লাশ। উদ্ধারকাজে সহায়তা করছে বেশ কয়টি দেশ। এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের পর চীনও তুরস্কে সহায়তা পাঠানোর কথা ঘোষণা করেছে।

তুরস্কের দুর্যোগ ও জরুরী ব্যবস্থাপনা প্রেসিডেন্সি (এএফএডি) জানিয়েছে, ৭.৭ মাত্রার ভূমিকম্পটি সোমবার ভোর ৪টা ১৭ মিনিটে আঘাত হানে এবং এর কেন্দ্রস্থল ছিল কাহরামানমারাস প্রদেশের পাজারসিক জেলায়। এর ১২ ঘণ্টার পার হওয়ার আগে আরও একটি ৭.৫ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হানে।

এএফএডি অনুসারে, তুরস্কে কমপক্ষে ১ হাজার ১৪ জন নিহত হয়েছে বলে জানা গেছে।

সিরিয়ায়, যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটির শাসক-নিয়ন্ত্রিত এলাকায় কমপক্ষে ৩৭১ জন নিহত এবং ১ হাজার ৮৯জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। হোয়াইট হেলমেট রেসকিউ গ্রুপ আরও বলেছে, বিরোধী-নিয়ন্ত্রিত এলাকায় কমপক্ষে ২২১ জন নিহত এবং ৪১৯ জন আহত হয়েছে।

১৯৩৯ সালের এরজিনকান ভূমিকম্পের পর ভূমিকম্পটিকে তুরস্কের ‘সবচেয়ে বড় বিপর্যয়’ হিসেবে বর্ণনা করে এরদোগান বলেছেন, ‘এখন পর্যন্ত ৯১২ জন নাগরিক প্রাণ হারিয়েছেন এবং আরও ৫ হাজার ৩৮৫ জন আহত হয়েছেন।’

এএফএডি এক বিবৃতিতে বলেছে, ভূমিকম্পের পর ৭৮টি আফটারশক হয়েছে।

গাজিয়ানটেপ, সানলিউরফা, দিয়ারবাকির, আদানা, আদিয়ামান, মালত্য, ওসমানিয়ে, হাতায় এবং কিলিস প্রদেশগুলি ভূমিকম্পে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তুরস্কের প্রেসিডেন্সি অনুসারে রাষ্ট্রপতি আদানা, ওসমানিয়ে, হাতায় এবং কিলিসের মেয়রদের সাথে ফোনে কথা বলেছেন এবং অনুসন্ধান ও উদ্ধার কার্যক্রম সম্পর্কে তথ্য পেয়েছেন।

এরদোগান বলেন, ধ্বংসস্তূপ থেকে উদ্ধার হওয়া মানুষের সংখ্যা ২ হাজার ৪৭০ এ পৌঁছেছে। ধসে পড়া ভবনের সংখ্যা ২ হাজার ৮১৮টি।

ভাইস প্রেসিডেন্ট ফুয়াত ওকতায় এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন যে ভূমিকম্পের মুহূর্ত থেকেই এরদোগান অনুষ্ঠানটি অনুসরণ ও পরিচালনা করছেন। এরদোগান বর্তমানে উদ্ধার ও ত্রাণ কাজের সমন্বয় করতে রাজধানী আঙ্কারার এএফএডি অফিসে রয়েছেন।

ওকতায় যোগ করেছেন যে হাতায় বিমানবন্দর বর্তমানে ফ্লাইটের জন্য বন্ধ রয়েছে, তারা বলেছে যে তারা কাহরামানমারাস এবং গাজিয়ানটেপ থেকে সিভিল ফ্লাইটগুলিও বন্ধ করে দিয়েছে। এখন পর্যন্ত ১০২টি মোবাইল বেস স্টেশন ভূমিকম্প অঞ্চলে পাঠানো হয়েছে।

তিনি তথ্য দূষণ না করার জন্য সমস্ত মিডিয়া সংস্থা, প্রতিষ্ঠান এবং সংস্থাগুলিকে অফিসিয়াল বিবৃতির ওপর নির্ভর করার আহ্বান জানান।

ভাইস প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, এই ১০টি প্রদেশের সমস্ত স্কুল এক সপ্তাহের জন্য বন্ধ রয়েছে।

এদিকে, জাতীয় শিক্ষামন্ত্রী মাহমুদ ওজার বলেছেন, দিয়ারবাকির, গাজিয়ানটেপ, সানলিউরফা, আদানা, ওসমানিয়ে এবং কিলিস প্রদেশের স্কুলগুলি এক সপ্তাহের জন্য বন্ধ থাকবে।

ওজার বলেন, ‘আজ থেকে, আমরা কাহরামানমারাস, হাতায়, আদিয়ামান এবং মালতায়া প্রদেশে শিক্ষা থেকে দুই সপ্তাহের বিরতি নিচ্ছি।’

যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রী মেহমেত কাসাপোগলু বলেছেন যে তুরস্কে অনুষ্ঠিতব্য সমস্ত জাতীয় ক্রীড়া সংস্থা পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে। লেবানন ও সিরিয়াসহ এ অঞ্চলের বেশ কয়েকটি দেশেও ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/০৬ফেব্রুয়ারি/এসএটি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ

ভারতে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষ, শীর্ষনেতাসহ ২৯ মাওবাদী নিহত

ইরানের হামলার প্রতিক্রিয়া জানানোর প্রয়োজন নেই: সাবেক ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী

ভারতের কাশ্মীরে নৌকাডুবে ৬ জনের প্রাণহানি, নিখোঁজ ১৫

ইসরায়েলে হামলার পর পরমাণু স্থাপনা সাময়িক বন্ধ করে ইরান

২০ বছর পর নতুন প্রধানমন্ত্রী পাচ্ছে সিঙ্গাপুর

ইসরায়েলের পাল্টা হামলার ঘোষণায় উদ্বিগ্ন ইরানিরা

সাইপ্রাসে পুলিশি অভিযানে পাঁচতলা ভবন থেকে ঝাঁপ দিয়ে বাংলাদেশি নিহত 

পাকিস্তানে ভারী বষর্ণ ও বজ্রপাতে নিহত ৩৯

ইরানে সম্ভাব্য হামলার প্রস্তুতি চূড়ান্ত করল ইসরায়েলি বিমান বাহিনী

হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রগুলো ঠেকাতে পারেনি ইসরায়েল ও তার মিত্ররা

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :