চাঁদপুর মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট নদী কেন্দ্রে অবৈধভাবে যন্ত্রাংশ বিক্রি, আটক ১

চাঁদপুর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৮ মে ২০২৩, ২৩:৪৯ | প্রকাশিত : ২৮ মে ২০২৩, ২৩:৩৮

বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট নদী কেন্দ্র চাঁদপুরের গোডাউনে রক্ষিত থাকা পুরাতন সরকারি বিভিন্ন যন্ত্রাংশ কোন প্রকার টেন্ডার, নিলাম বিহীন ও সরকারি নিয়ম বহির্ভূতভাবে বিক্রি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এর মধ্যে রয়েছে বড় আকারের ২টি মটর, ২টি ইঞ্জিন, পানি সেচের ১টি মেশিন, লোহার পাইপ। এসব যন্ত্রাংশের আনুমানিক মূল্য ধরা হয়েছে প্রায় ৫ লাখ।

এসব মালামাল বিক্রি করার পর মালামালগুলো শহরের পুরানবাজার পুলিশ ফাড়ির সহকারী উপপরিদর্শক আমিরুল ইসলামে নেতৃত্বে ,ফাড়ির এএসআই সনেট, এটিএসআই মোহাম্মদ আলীসহ পুলিশ অভিযান চালিয়ে এ সব যন্ত্রাংশ জব্দ করতে সক্ষম হয়। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকায় অবৈধভাবে সরকারি এ সব মালামাল ক্রয় করায় পুরানবাজারের একজন ভাঙ্গারি ব্যবসায়ী মো. লিটন গাজীকে (২৬) পুলিশ আটক করেছে।

এলাবাসীর অভিযোগ সে দীর্ঘদিন যাবত এভাবে অবৈধ ও চোরাই মালামাল ক্রয় ও বিক্রি করে যাচ্ছে।

রবিবার সন্ধ্যায় শহরের পুরানবাজার কলেজ রোডস্থ কলেজের বাউন্ডারির নিকটে লিটন গাজীর ভাঙ্গারি দোকানে ও তার ভাঙ্গারি রাখার গোডাউনে এ ঘটনা ঘটে।

একটি নির্ভর যোগ্যসূত্রে জানা গেছে,বাংলাদেশ মৎস্য গবেষনা ইনস্টিটিউট নদী কেন্দ্র চাঁদপুরের এ সব মূল্যবান অনুমান ২ টন লোহা প্রায় ৫ লাখ টাকার যন্ত্রাংশের মালামাল সরকারি নিয়ম বহির্ভূতভাবে স্থানীয় কর্মকর্তাদের চোখ ফাঁকি দিয়ে অবৈধ পন্থায় বিক্রি করা হয়।

এ অফিসের ফিল্ড এ্যাসিস্টেন্ট (ক্ষেত্র সহকারী) মো নূরুজ্জামান, এ অফিসের হেচারী বিভাগের এলএলএম (পিয়ন) সামছুল আলম মানিক তার মেয়ের জামাতা আব্দুর রহমানের সহায়তায় এক জোট হয়ে এক প্রকার চোরাই ভাবে গোপনে ফিল্ড অ্যাসিস্টেন্ট (ক্ষেত্র সহকারী) মো নূরুজ্জামানের নির্দেশে কয়েকজন ভাঙ্গারী ব্যবসায়ীকে এ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট নদী কেন্দ্র চাঁদপুরে এনে দরকষাকষির মাধ্যমে রবিবার (২৮ মে) দুপুর আড়াই টায় ১ লাখ ৭ হাজার টাকায় বিক্রি করেছে বলে জানিয়েছেন, ভাঙ্গারি ব্যবসায়ী মো: লিটন গাজী ও সামছুল আলম মানিকের মেয়ের জামাতা আব্দুর রহমান।

এ ঘটনায় বাংলাদেশ মৎস্য গবেষনা ইনষ্টিটিউট নদী কেন্দ্র চাঁদপুরের অফিস পাড়ার ভিতরে এ কেন্দ্রের সরকারী কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মধ্যে এ খবর ছড়িয়ে পড়লে ব্যাপক চাপা ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করতে দেখা গেছে।

এ বিষয়ে ফিল্ড এ্যাসেসটেন্ড(ক্ষেত্র সহকারী) মো: নূরুজ্জামানের সাথে মুঠো ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন,আমি এ বিষয়ে কিছু বলবো না। আমি এখন অফিসের কাজে সিলেট আছি। আজ সোমবার চাঁদপুর এসে এ বিষয়ে জানাবো। এখন রিপোট করার দরকার নেই।

এ অফিসের হেচারী বিভাগের এলএলএম(পিয়ন) সামছুল আলম মানিকের মেয়ের জামাতা আব্দুর রহমান বলেন,আমি বিভিন্ন স্থান থেকে পুরাতন রড ক্রয় করে চাক্কি বানাই। আমার শ্বশুরের অনুরোধে আমি কয়েকজন ভাঙ্গারি ব্যবসায়ীকে এ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট নদী কেন্দ্রে আনলে তারা ফিল্ড এ্যাসিস্টেন্ট মো: নূরুজ্জামানের সাথে দরকষাকষির মাধ্যমে রোববার(২৮মে) আড়াই টায় ১লাখ ৭হাজার টাকায় লিটনের কাছে এ সব মালামাল বিক্রি করে

বাংলাদেশ মৎস্য গবেষনা ইনষ্টিটিউট নদী কেন্দ্র চাঁদপুরের চীপ ড. মো. আমিনূল ইসলাম এর মুঠো ফোনে কয়েকবার চেষ্টা করে তার সঙ্গে কথা বলে বক্তব্য নেওয়া সম্বব হয়নি।

চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ আব্দুর রশিদ জানান,মালামাল জব্দ করে ঘটনাস্থলে একটি রুমে তালা মেরে রাখা হয়েছে। তারা টেন্ডার প্রক্রিয়ার কি কাগজপত্র আছে, তা দেখাবে। তা’দেখে বলতে পারবো কাগজ পত্র ঠিক আছে কিনা।

(ঢাকাটাইমস/২৮মে/এআর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :