প্রথম দিনেই চমক দেখালেন ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমান, বদলে যাচ্ছে ফোর্সদের থাকা-খাওয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা টাইমস
| আপডেট : ০১ অক্টোবর ২০২৩, ১৫:০৮ | প্রকাশিত : ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ২০:২৭

দায়িত্ব গ্রহণের তিন ঘণ্টার মধ্যেই চমক দেখালেন ডিএমপির নতুন কমিশনার হাবিবুর রহমান। তার নেতৃত্বে এবার বদলে যাচ্ছে রাজারবাগ পুলিশ লাইনস ব্যারাকে থাকা পুলিশ সদস্যদের থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা।

শনিবার দুপুরে দায়িত্ব গ্রহণের পরপরই হাবিবুর রহমান ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। এরপর যান রাজারবাগ পুলিশ লাইনস স্মৃতিসৌধে শহীদ পুলিশ সদস্যদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে। এ সময় তিনি ব্যারাকে পুলিশ সদস্যদের থাকা-খাওয়ার অবস্থার খোঁজ-খবর নিতে যান। সেখানে থাকা পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন। সঙ্গে সঙ্গেই কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন- ফোর্সদের (পুলিশ সদস্যদের) থাকা খাওয়া যেন উন্নত ও আধুনিক করা হয়। নিজে ঘুরে দেখেন, ফোর্সদের রান্নাঘর, খাওয়ার ঘর, বাথরুম, চুলকাটার ঘর ও জিমনেশিয়াম।

পুলিশ সদস্যরা বলছেন, নতুন কমিশনার হাবিবুর রহমান দায়িত্ব নেওয়ার পর তাদের থাকা খাওয়ার অবস্থার উন্নতি হবে এটা তাদের বিশ্বাস ছিল। আজ সেটা বাস্তবায়ন হতে যাচ্ছে। কমিশনার সরাসরি তাদের সমস্যার কথা শুনেছেন। তাৎক্ষণিক সিদ্ধান্ত দিয়েছেন। এতে তারা খুশি।

পুলিশের আরেক সদস্য বলেন, ‘অতীতে কোনো কমিশনার সরাসরি ফোর্সদের ব্যারাকে এসে তাদের খোঁজ-খবর নিয়েছেন এমনটা দেখিনি বা শুনিনি। স্যার আজকে সরাসরি আমাদের ডায়নিংয়ে এসেছেন। রান্নাঘর, বাথরুম, থাকার জায়গা দেখেছেন। সবকিছু উন্নত ও আধুনিক করার জন্য দায়িত্বপ্রাপ্তদের নির্দেশ দিয়েছেন। আমরা স্যারের জন্য দোয়া করি। তিনি সবসময় মানবিক কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করেন, এটা আবারও প্রমাণ করলেন।’

একইদিন রাতে ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমান ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘আমি দায়িত্ব নেবার পর বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে রাজারবাগ পুলিশ লাইনস স্মৃতিসৌধে শহীদ পুলিশ প্রতি শ্রদ্ধা জানাই। এরপর প্রথমেই ছুটে গেছি রাজারবাগে ফোর্সরা যেখানে থাকে। তাদের থাকা-খাওয়া, সুযোগ-সুবিধা, ব্যারাক পরিদর্শন করেছি এবং সবকিছু দেখেছি। আমি রান্নাঘর, বাথরুমে ঢুকে নিজেই সরাসরি সব দেখেছি। তাদের মানোন্নয়নের জন্য নির্দেশ দিয়েছি। যদি ছোটখাটো আর কোনো সমস্যা থেকে থাকে সেগুলো সমাধানের আশ্বাস দিয়েছি।’

কমিশনার হাবিবুর রহমানের এমন সিদ্ধান্তের পরপর সেখানে উপস্থিত ফোর্সদের চোখেমুখে উৎফুল্লতা ছড়িয়ে পড়তে দেখা গেছে। সবার মধ্যে প্রাণচঞ্চলতা দেখা যায়।

এদিকে ডিএমপির ৩৬তম কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পান ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি হাবিবুর রহমান। তিনি বিদায়ী কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুকের স্থলাভিষিক্ত হলেন। ২০ সেপ্টেম্বর হাবিবুর রহমানকে ডিএমপি কমিশনার করা হয়।

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে-পরে রাজধানীর আইনশৃঙ্খলাসহ নানা কারণে ডিএমপি কমিশনারের পদটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সেই হিসেবে এই গুরুদায়িত্ব পালন করবেন মানবিক ও ডায়নামিক পুলিশ কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান। সবশেষ তিনি মাত্র এক বছরেরও কমসময়ে ট্যুরিস্ট পুলিশে বহুমাত্রিক নতুনত্ব দিয়েছেন। দেশ ও মানুষের সেবায় নিবেদিত এই পুলিশ কর্মকর্তা কর্মজীবনে যেখানেই দায়িত্ব পালন করেছেন সেখানেই তাকে ঘিরে স্বপ্ন বুনেছেন সবাই। একজন দক্ষ, আধুনিক ও ভিশনারি পুলিশ কর্মকর্তা হিসেবে তার নেতৃত্ব পুলিশ বিভাগের প্রতি মানুষের আস্থা বাড়িয়েছে।

ডিএমপি সূত্রে জানা গেছে, কমিশনার ব্যারাকে উপস্থিত পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে তাদের সমস্যা নিয়ে কথা বলেন। জনবান্ধব, আধুনিক ও মানবিক পুলিশ গঠনের লক্ষ্যে ফোর্সের কল্যাণ নিশ্চিত করার প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরেন। তিনি বহুতল আধুনিক ভবন নির্মাণ করার মাধ্যমে ফোর্সের আবাসন সংকট নিরসনের কাজ করবেন বলে জানান।

পুলিশের মেসগুলো পরিদর্শনের সময় হাবিবুর রহমান পুলিশ সদস্যদের সুস্বাস্থ্য নিশ্চিতে সুষম খাদ্যের প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরেন। তিনি ফোর্সের নিয়মিত খাদ্য তালিকায় মৌসুমী ফল বাড়াতে নির্দেশনা দেন। খাদ্যের মান উন্নয়নে দৃঢ় পদক্ষেপ গ্রহণের অঙ্গীকারও করেন।

এরপর হাবিবুর রহমান রাজারবাগ পুলিশ লাইনস জিমনেসিয়াম পরিদর্শনে যান। ফোর্সের শারীরিক সক্ষমতা বৃদ্ধি ও মানসিক সুস্থতার জন্য শরীরচর্চার গুরুত্ব তুলে ধরেন। পুলিশের খেলোয়াড়দের জন্য স্থাপিত জিমনেসিয়ামটি নিয়ে তিনি সন্তোষ প্রকাশ করেন। অচিরেই ফোর্সের জন্য একই মানের একটি জিমনেসিয়াম স্থাপন করবেন বলেন প্রতিশ্রুতি দেন।

হাবিবুর রহমান বিসিএস পুলিশ ক্যাডারের ১৭তম ব্যাচের কর্মকর্তা। তিনি ১৯৬৭ সালে গোপালগঞ্জের চন্দ্র দিঘলিয়ায় জন্মগ্রহণ করেন।

শনিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ডিএমপি সদরদপ্তরে নতুন কমিশনার হাবিবুর রহমানের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করেন বিদায়ী কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক। এ সময় রীতি অনুযায়ী ফুলের রশি দিয়ে গাড়ি টেনে তাকে বিদায় জানানো হয়। পুলিশের সুসজ্জিত একটি চৌকস দল বিদায়ী কমিশনারকে বিদায়ী সালাম দেন। গত ২৪ সেপ্টেম্বর গোলাম ফারুককে অবসর দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে সরকার।

(ঢাকাটাইমস/৩০সেপ্টেম্বর/কেএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজধানী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :