দ্রুত সময়ের মধ্যে নাগরিক সেবা দিতে হবে: হবিগঞ্জে বিভাগীয় কমিশনার

নিজস্ব প্রতিবেদক, হবিগঞ্জ
| আপডেট : ২৮ মার্চ ২০২৪, ২৩:২৫ | প্রকাশিত : ২৮ মার্চ ২০২৪, ২২:০৭

হবিগঞ্জে সুশাসন প্রতিষ্ঠার নিমিত্তে অংশীজনের অংশগ্রহণে অভিযোগ প্রতিকার বিষয়ে স্টেকহোল্ডারগণের সমন্বয়ে অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকালে জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে সভা অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা প্রশাসক মোছাম্মৎ জিলুফা সুলতানার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার আবু আহমদ সিদ্দিক।

বিশেষ অতিথি ছিলেন সিলেটের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার দেবজিৎ সিংহ। এতে বক্তব্য রাখেন হবিগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নুরুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আবুল মনসুর, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক প্রিয়াঙ্কা পাল, হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসিব খান চৌধুরী পাবেল, ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাক্তার মুখলেছুর রহমান উজ্জ্বল, বিশিষ্ট কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব তাহমিনা বেগম গীনি, পুটিজুরী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোদ্দত আলী, লাখাইর মোড়াকরি ইউপি চেয়ারম্যান ফয়সল মোল্লা, বুল্লা ইউপি চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খোকন গোপসহ বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের প্রতিনিধিগণ।

অনুষ্ঠানে স্টেক হোল্ডারগণ তাদের বিভিন্ন অভিযোগ সেবা না পাওয়ার বিষয়ে বিভাগীয় কমিশনারকে অবগত করেন। বিভাগীয় কমিশনার আবু আহমদ ছিদ্দীকী তাৎক্ষণিক অনেকগুলো বিষয়ের সমাধান দেন এবং আগামীতে আরো দ্রুত নাগরিক সেবা দেওয়ার আশ্বাস দেন।

প্রতিটা নাগরিকের তথ্য পাওয়ার অধিকার রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, তথ্য চাওয়া এবং পাওয়ার মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয় রয়েছে সে বিষয়গুলোকে মাথায় রেখে কাজ করতে হবে। অতি গোপনীয় কোনো তথ্য সরবরাহ করা ঠিক হবে না। রাষ্ট্রীয় গোপন নথি দলিলসহ অতি গোপনীয় কিছু তথ্য রয়েছে যেগুলো জনসম্মুখে প্রকাশ করা যায় না। এছাড়া যে কোনো তথ্য জানার অধিকার প্রতিটি নাগরিক রয়েছে। তথ্য পেতে হলে নিয়ম অনুযায়ী আপনাকে আবেদন করতে হবে। আবেদনের পর নির্দিষ্ট সময় থাকে সেই সময়ের মধ্যে তথ্য দিতে হবে। অন্যথায় কী কারণে দেওয়া হলো না তার জন্য তিনি আপিল করতে পারবেন।

বিভাগীয় কমিশনার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে হলে নিজে এবং নিজ দপ্তরকে দুর্নীতিমুক্ত রাখতে হবে। নিজেরা দুর্নীতিমুক্ত থেকে কাজ করলে ধীরে ধীরে অন্যান্যরাও দুর্নীতিমুক্ত থাকতে উৎসাহিত হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক মোছাম্মৎ জিলুফা সুলতানা বলেন, আমি আমার দপ্তর দুর্নীতিমুক্ত। আমার দপ্তরে কোনো ফাইল আটকে থাকে না। জটিল কোনো সমস্যা না হলে ৭২ ঘণ্টার মধ্যেই আমি সই করে দেই। জন্মনিবন্ধনের বিষয়ে যে জটিলতাগুলো রয়েছে সেগুলোও সমাধান করে দেওয়া হচ্ছে। এক সময় আর কোনো জটিলতাই থাকবে না বলেও তিনি আশ্বস্ত করেন।

(ঢাকাটাইমস/২৮মার্চ/প্রতিনিধি/পিএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

সারাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সারাদেশ এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :