গফরগাঁওয়ে অপহৃত মা-ছেলের সন্ধান চেয়ে থানা ঘেরাও

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৮ জুন ২০১৯, ২১:৩৯

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে সন্ত্রাসী হামলায় নিখোঁজ মুর্শেদা বেগম ও তার ছেলে আনসারুলের সন্ধানের দাবিতে শুক্রবার দুপুরে মানববন্ধন হয়েছে।

চরআলগী ইউনিয়নবাসীর উদ্যোগে গফরগাঁও প্রেসক্লাবের সামনে এই মানববন্ধন হয়।

মানববন্ধন চলাকালে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উমর আলী, আজিম উদ্দিস, কাজিম উদ্দিন, মো. হুসেন, সিদ্দিক, মুর্শিদ, ছাইফুল ইসলাম, আলতাফ হোসেন, শহিদ মিয়া প্রমুখ।

মানববন্ধন শেষে চরআলগী ইউনিয়নবাসীর উদ্যোগে নিখোঁজ মুর্শিদা বেগম ও তার ছেলে আনসারুলের সন্ধানের দাবিতে থানা ঘেরাও করা হয়। এ সময় উজ্জ্বল ও নাঈম নামে দুই যুবককে গফরগাঁও থানা পুলিশ আটক করে।

প্রসঙ্গত, বুধবার রাত তিনটার দিকে মুর্শিদার ভাই শফিকুল, রফিকুল, আমিনুলের নেতৃত্বে সোহেল, হোসাইন, সিরাজ, মান্নান ও অজ্ঞাতনামা আরো ১৫/১৬ জন রামদা, লোহার রড, চাপাতি,শাবলসহ তিনটি ব্যটারিচালিত অটোরিকশা যোগে চরমছলন্দ গ্রামে কান্দাগ্রামে ব্রহ্মপুত্র নদের পাড়ে মুর্শিদার বাড়িতে হামলা চালায়। সন্ত্রাসীরা মুর্শিদার দুইটি বসতঘর মাটির সাথে মিশিয়ে দেয়। আসবাবপত্র ভাঙচুর করে ও আগুন লাগিয়ে দেয়। মূল্যবান জিনিপত্র ও নগদ টাকা লুট করে নেয়। হামলার পর থেকে মুর্শিদা ও তার ছেলে আনসারুল নিখোঁজ। সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত মুর্শিদার মেয়ে কল্পনা জানান, তার এবং তার ভাই ও মা’র গলায় রামদা ঠেকিয়ে জিম্মি করে রাখে সন্ত্রাসীরা। সে কোন রকমে জীবন বাঁচিয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে আসে।

তিনি জানান, সন্ত্রাসীরা তার মা মুর্শিদা ও ছোট ভাই আনসারুলকে হাত, পা ও মুখ বেঁধে অপহরণ করে নিয়ে যায়। এরপর থেকে তার মা ও ভাই নিখোঁজ।

এ ঘটনায় মুর্শিদার মেয়ে কল্পনা বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার রাতে গফরগাঁও থানায় মামলা করেছেন।

পুলিশ অভিযুক্ত শফিকুলকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে ময়মনসিংহ জেলহাজতে প্রেরণ করেছে।

গফরগাঁও থানার ওসি আব্দুল আহাদ খান বলেন, পুলিশ এ মামলার এক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে। বাকিদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে। পাশাপাশি নিখোঁজ মুর্শিদা ও তার ছেলে আনসারুলের নিখোঁজ রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা চলছে।

(ঢাকাটাইমস/২৮জুন/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :