মির্জাপুরে সংখ্যালঘু পরিবারের ওপর হামলার অভিযোগ

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৬ জুলাই ২০১৯, ২১:৩১

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে স্কুলছাত্রীকে উত্ত্যক্তের অভিযোগ করায় সংখ্যালঘু এক পরিবারের সদস্যদের পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শনিবার বিকালে উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়নের থলপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী জানায়, থলপাড়া গ্রামের অষ্টম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে একই গ্রামের সজিব মিয়া উত্ত্যক্ত করত। সকালে স্কুলে যাওয়ার পথে ওই ছাত্রীকে তাদের বাড়ির পাশের রাস্তাতেই সজিব জোরপূর্বক তার মোটরসাইকেলে উঠাতে চায়। এতে ভয় পেয়ে ছাত্রীটি দৌড়ে বাড়িতে গিয়ে উঠে। পরে পরিবারের সদস্যরা একই গ্রামের মাতাব্বর বারেক মিয়াকে বিষয়টি জানায়। তিনি ঘটনাটি সজিবের পরিবারকে জানান।

এদিকে উত্ত্যক্তের বিষয়ে পরিবারের সদস্যদের কাছে নালিশ করায় সজিব ক্ষিপ্ত হন। সে ধারালো অস্ত্র নিয়ে বিকালে ছাত্রীটির বাড়ি যায়। প্রথমে মেয়েটির বাবাকে মারধর করে। তা দেখে মেয়েটির চাচাতো দাদা এগিয়ে আসলে সজিব তাকে বেধড়ক পেটায়। ভয়ে তিনি দৌড়ে ঘরে ঢুকলে দরজা ভেঙে ঘর থেকে বের করে সজিব তার গায়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে। এতে তার ঘাড়ের পাশে কেটে যায়। মেয়েটির দাদিকেও পিটিয়ে আহত করা হয়। এছাড়া বাবাকে মারতে দেখে মেয়েটির ফুপু এগিয়ে গেলে সজিব তাকেও মারধর করে। তাছাড়া তার কোলে থাকা তিন মাসের শিশুকে কোল থেকে কেড়ে নেয়। অনেক আকুতি করলে বাচ্চাটিকে ফিরিয়ে  দেয়।

মেয়েটির বাবা জানান, তাকে বেধড়ক পেটানো হয়। প্রাণ বাঁচাতে তিনি ঝিনাই নদ সাঁতরে অপর পাড়ে যান। পরে বিষয়টি এলাকাবাসী জানতে পারেন। সজিবের ভয়ে তারা নৌকাযোগে নদ পার হয়ে প্রাণ বাঁচাতে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বাড়িছাড়া রয়েছেন বলে জানান।

মির্জাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম মিজানুল হক জানান, সন্ধ্যায় মেয়ের বাবার অভিযোগ পাওয়ার পর বিষয়টি গুরুত্বসহ দেখা হচ্ছে।

(ঢাকাটাইমস/৬জুলাই/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :