জম্মু ও কাশ্মীরের পরিস্থিতি স্বাভাবিক নয়: রাহুল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ২৫ আগস্ট ২০১৯, ১২:২৩

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরের বিশেষ মর্যাদা ও রাজ্যের মর্যাদা বাতিল করেছে নরেন্দ্র মোদি সরকার। এ বিষয় উল্লেখিত ৩৭০ ধারা বাতিলের পর থেকে রাজ্যজুড়ে ধারপাকড় ও নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে রেখেছে ভারতের কেন্দ্রীয় বাহিনী। এমন অবস্থায় কাশ্মীরের অবস্থা সরেজমিনে দেখতে গিয়েছিলেন ভারতের প্রধান বিরোধী দল জাতীয় কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। তবে তাকে কাশ্মীরে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি। রাজ্যের রাজধানী শ্রীনগর বিমানবন্দর থেকে তাকে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

শ্রীনগর থেকে ফিরে কংগ্রেসের সদ্য সাবেক হওয়া সভাপতি বলেন, রাজ্য সরকারের পদক্ষেপ প্রমাণ করে জম্মু ও কাশ্মীরের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক ছিল না। জম্মু ও কাশ্মীরের থেকে বিশেষ রাজ্যের মর্যাদা প্রত্যাহার এবং রাজ্যটিকে ভাঙার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর সেখানকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে তা দেখতে রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক তাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন বলে জানান তিনি।

রাহুল গান্ধি বলেন, ‘কয়েকদিন আগে, জম্মু ও কাশ্মীরে যাওয়ার জন্য আমায় আমন্ত্রণ জানান রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক। সবকিছু স্বাভাবিক রয়েছে দাবি করে রাজ্যপাল সফরের জন্য আমায় বিমান পাঠানোর প্রস্তাব দেন। আমি তাকে বলি আপনার বিমান আমার প্রয়োজন নেই, তবে আপনার প্রস্তাব গ্রহণ করছি এবং জম্মু ও কাশ্মীরে আমি যাব।’

তিনি জানান, ‘আমরা জানতে চেয়েছিলাম, সেখানকার মানুষ কেমন রয়েছেন এবং পরিস্থিতিতে সাহায্য করতে চেয়েছিলাম। দুর্ভাগ্যবশত আমাদের বিমানবন্দর থেকে বেরোতে দেওয়া হয়নি। আমাদের সঙ্গে থাকা সাংবাদিকদের হেনস্তা করা হয়েছে, মারধর করা হয়েছে। এটা পরিষ্কার যে, জম্মু ও কাশ্মীরের পরিস্থিতি স্বাভাবিক ছিল না।’

রাহুল গান্ধির এই সফর রাজনৈতিক বলে মন্তব্য করে কাশ্মীরের রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক বলেন, ‘আমি তাকে ভাল মনে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলাম, তবে তিনি রাজনীতি শুরু করলেন। এটা (তাদের সফর) তাদের রাজনৈতিক পদক্ষেপ ছাড়া কিছুই ছিল না। এই সময়ে দলের উচিত দেশের স্বার্থ মাথায় রাখা।’

কাশ্মীরের অবস্থা পর্যবেক্ষণ করতে রাহুলের সঙ্গী হয়েছিলেন একাধিক রাজনৈতিক দলের নেতারা। ৩৭০ ধারা বাতিলের পর থেকে রাজ্যের একাধিক সাবেক মুখ্যমন্ত্রীসহ কয়েকশ নেতাকে আটক করা হয়েছে। রাজ্যজুড়ে কড়া নিরাপত্তা ও কারফিউ জারি রয়েছে। কিছু কিছু জায়গা স্বাভাবিক রয়েছে বলে ভারত সরকার দাবি করলেও তা ভিত্তিহীন।

ঢাকা টাইমস/২৫আগস্ট/একে

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :