নাঈমের উত্থানের গল্প

ক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ১৪:৪২

‘আর দুই ওভার ক্রিজে থাকলে তো ভারতকে হারিয়েই দিতে’ ভারত-বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি সিরিজের তৃতীয় ম্যাচ শেষে নাঈম শেখকে কথাটা বলেছিলেন হরভজন সিং। পরশু দেশে ফিরে হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরের লবিতে দাঁড়িয়ে সাংবাদিকদের এই গল্প শোনাচ্ছিলেন নাঈম। শুধু তৃতীয় ম্যাচ নয়, ভারতের বিপক্ষে পুরো টি-টোয়েন্টি সিরিজই ভালো খেলেছেন ২০ বছর বয়সী তরুণ এই ক্রিকেটার।

পরিবারের অর্থনৈতিক অবস্থা ভালো ছিল না। পড়াশোনার ক্ষতি করে ব্যাট-বল নিয়ে পড়ে থাকাটা পরিবারের অনেকে পছন্দও করতেন না। বাকিটা শুনুন নাঈমের মুখেই, ‘ফরিদপুরের জুনিয়র ক্রিকেট ক্লাবে ভর্তি হই। ক্লাবে তখন জেলার অনেক ভালো ক্রিকেটার ছিল, আমি সুযোগ পেতাম না। একটা পর্যায়ে অনুশীলন বন্ধ করে দিলাম। আমাদের সপ্তাহে ছয় দিন অনুশীলন করানো হতো। আর যাওয়া-আসার জন্য প্রতিদিন লাগত ৪০ টাকা। বাসা থেকে সাপোর্ট করতে পারছিল না। আমাদের জন্য বিষয়টি কঠিন ছিল।’

নাঈম জানান, হাতখরচের জন্য মাঝেমধ্যে টেপ টেনিস খেলে বেড়াতেন। বড় অনুপ্রেরণা ছিল বড় ভাই আর মায়ের। বড় ভাই মোহাম্মদ নাদিম শেখ অর্থনৈতিক সমর্থনের পাশাপাশি মাঠের খারাপ সময়েও পাশে থাকতেন

নাঈম বলেন, ‘বড় ভাই আর আম্মুর যে কতো অবদান তা বলে বুঝাতে পারব না। আর্থিক সমস্যা ছিল। বাবা (আবদুল আজিজ শেখ) অনেক বছর সৌদি আরবে ছিলেন। বড় ভাই এখনো সৌদিতে আছেন।’

(ঢাকাটাইমস/১৪ নভেম্বর/এআইএ)

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :